জাতীয় দলের ফুটবলাররা অনুশীলনে যোগ দেওয়ায় স্বস্তির হাওয়া লাল-হলুদ শিবিরে।

কাম্বোডিয়া ও মায়ানমার ম্যাচ খেলে বুধবার রাতেই কলকাতায় ফেরেন অর্ণব মণ্ডল, রবিন সিংহ, নারায়ণ দাস, মহম্মদ রফিক, রওলিন বর্জেস ও জ্যাকিচন্দ সিংহ। এক দিন বিশ্রাম নিয়ে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে আই লিগের ফিরতি ডার্বির প্রস্তুতিতে নেমে পড়লেন তাঁরা। শুক্রবার সকালে ঘণ্টা দু’য়েকের অনুশীলনে ফুটবলারদের বোঝাপড়া বাড়ানোর ওপরেই জোর দিয়েছেন কোচ ট্রেভর জেমস মর্গ্যান। অনুশীলনের পর তিনি বললেন, ‘‘ভারতীয় দল থেকে আসা ফুটবলাররা প্রত্যেকেই ফিট। ওদের পারফরম্যান্সে আমি খুশি।’’

তবে চার বিদেশিকে ছাড়াই ডার্বির প্রস্তুতি শুরু করে দিতে বাধ্য হলেন লাল-হলুদ কোচ। কারণ, চোটের জন্য ওয়েডসন আনসেলমে ও ক্রিস পেইন শুক্রবার সকালে ফিজিওথেরাপিস্টের কাছে রিহ্যাব করেন। অন্য দুই বিদেশি উইলিস প্লাজা ও ইভান বুকেনিয়া এখন কলকাতায় ফেরেননি। মর্গ্যান বললেন, ‘‘ওয়েডসন সোমবার থেকে অনুশীলন শুরু করবে। আর ক্রিসের এমআরআই করানো হয়েছিল। ওর কোনও চোট নেই।’’ ডার্বির আগে কয়েকটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার পরিকল্পনাও রয়েছে লাল-হলুদ কোচের। আজ, শনিবার ইস্টবেঙ্গল অ্যাকাডেমির অনূর্ধ্ব-১৮ দলের বিরুদ্ধে খেলবেন মেহতাব হোসেন-রা। মর্গ্যান বলছেন, ‘‘দু’সপ্তাহ ম্যাচ খেলেনি অধিকাংশ ফুটবলার। ওদের ম্যাচ ফিট করে তোলাটা গুরুত্বপূর্ণ।’’

এ দিকে, অনুশীলনে যোগ দিয়েই নাকে চোট পেলেন লেফটব্যাক নারায়ণ। জাতীয় শিবিরে থাকার সময়ই তাঁর নাকের হাড়ে চিড়ে ধরে। এ দিন অনুশীলনে ফের আঘাত পেলেন তিনি। রক্তাক্ত নারায়ণ অনুশীলনের মাঝপথেই উঠে যান।