• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দলীপ ট্রফির সংস্কার করুক সৌরভ, আবেদন সচিনের

Sourav and Sachin
আস্থা: ঘরোয়া ক্রিকেটেও গুরুত্ব দেবেন সৌরভ, বিশ্বাস সচিনের। ফাইল চিত্র

Advertisement

দলীপ ট্রফিতে অংশ নেওয়া অনেক ক্রিকেটারের মধ্যে দলগত সংহতির অভাব। তাঁরা ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স ভাল করার দিকে বেশি নজর দেন এই প্রতিযোগিতায় খেলতে নেমে। এমনটাই বলছেন, মাস্টার ব্লাস্টার সচিন তেন্ডুলকর। 

একই সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বর্তমান প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে তাঁর আবেদন, দলীপ ট্রফি এবং তাতে অংশ নেওয়া ক্রিকেটারদের এই মনোভাব পাল্টানোর উদ্যোগ নিতে হবে। এ প্রসঙ্গে সচিনের দাওয়াই, প্রতিযোগিতার নিয়ম পাল্টে রঞ্জি ট্রফি সেমিফাইনালে অংশ নেওয়া চারটে দলের সঙ্গে অনূর্ধ্ব-১৯ ও অনূর্ধ্ব-২৩ দলকে খেলানো হোক দলীপ ট্রফিতে। সংবাদ সংস্থাকে সচিন বলেন, ‘‘সৌরভের কাছে আবেদন, দলীপ ট্রফিতে নজর দাও। আমার মনে হয়েছে, দলীপ ট্রফিতে ক্রিকেটারদের অনেকেই মনোনিবেশ করে ব্যক্তিগত পারফরম্যােন্স।’’

প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক আরও বলেন, ‘‘উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, যদি দলীপ ট্রফির পরেই আইপিএলের নিলাম থাকে বা কোনও টি-টোয়েন্টি বা ওয়ান ডে সিরিজ থাকে, তা হলে ক্রিকেটারদের অনেককেই দেখা গিয়েছে, দলের কথা মাথায় না রেখে নিজের জন্য খেলছে।’’

দলীপ ট্রফি দেশের পাঁচটি অঞ্চলকে নিয়ে আয়োজিত হত। কিন্তু বর্তমানে ভারত নীল, ভারত সবুজ ও ভারত লাল দলকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই প্রতিযোগিতা। সৌরভ ২৩ অক্টোবর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। তার পরেই এক সপ্তাহের মধ্যে তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে রাজি করিয়ে ফেলেন গোলাপি বলে প্রথম দিনরাতের টেস্ট খেলার জন্য। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান থাকাকালীন সৌরভ প্রথম গোলাপি বলে দিনরাতের দলীপ ট্রফি আয়োজন করিয়েছিলেন।

রবিবার ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভা। সেখানেই দলীপ ট্রফির এই সংস্কারের বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য সৌরভের প্রতি আবেদন জানিয়েছেন সচিন। তাঁর কথায়, ‘‘ক্রিকেট হল দলগত খেলা। তাই দলীপ ট্রফিতে এই পরিবর্তনটা দেখতে চাই। কারণ, ক্রিকেটে দলগত সংহতিরই গুরুত্ব রয়েছে। ব্যক্তিগত ভাবে ভাল পারফরম্যান্স করার চেয়েও যা বেশি মূল্যবান।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘রঞ্জি ট্রফির ফাইনালের পরে হোক দলীপ ট্রফি। রঞ্জি ট্রফির সেরা চারটে দলের সঙ্গে নেওয়া হোক আরও দু’টো দলকে। রঞ্জি ট্রফিতে প্রতিভাবান জুনিয়র ক্রিকেটারদের নিয়ে অনেক দল খেলে। যারা সেমিফাইনাল পর্বে উঠতে পারে না। সেই সব ক্রিকেটারদের নিয়ে দল গড়া যেতে পারে। প্রয়োজনে অনূর্ধ্ব-১৯ ও অনূর্ধ্ব-২৩ দলকেও খেলানো যেতে পারে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন