সানিয়া মির্জা জীবনের প্রথম উইম্বলডন ডাবলস ফাইনালে। বিয়াল্লিশেও লিয়েন্ডার উইম্বলডন মিক্সড ডাবলস ফাইনালে! বালকদের ডাবলস সেমিফাইনালে সুমিত নাগল। একই দিনে!

সানিয়ার একটা স্বপ্ন শনিবার পূর্ণ হচ্ছে— উইম্বলডনের সেন্টার কোর্টে ফাইনাল খেলা! আর একটা স্বপ্নও শনিবার পূর্ণ হবে কি তাঁর? উইম্বলডন খেতাব জয়!

শুক্রবার জীবনের দ্বিতীয় গ্র্যান্ড স্ল্যাম ডাবলস ফাইনালে উঠে প্রথম স্বপ্নটা পূর্ণ হওয়া নিশ্চিত করে ফেলেছেন হায়দরাবাদি কন্যা।

চার বছর আগে ফরাসি ওপেনে মেয়েদের ডাবলস ফাইনালে উঠেছিলেন সানিয়া। শনিবার উইম্বলডন ফাইনাল যে রুশ জুটির বিরুদ্ধে খেলবেন, তাঁদেরই এক জন এলেনা ভেসনিনাকে নিয়ে। কিন্তু ফাইনালে ফেভারিট সানিয়ারা রোলাঁ গারোয় অপ্রত্যাশিত হেরে যান। চেক টিম হ্রাদেকা-হাভাককোভার কাছে।

উইম্বলডনেও যতই দ্বিতীয় বাছাই একাতেরিনা মাকারোভা-ভেসনিনার সঙ্গে টিম সানিয়ার সামিট যুদ্ধ হোক না কেন, সানিয়া-মার্টিনা হিঙ্গিসের শীর্ষ বাছাই ইন্দো-সুইস জুটিই ফেভারিট।

সেটা শুধু এ দিন এক নম্বর কোর্টে সেমিফাইনালে সানিয়ারা পঞ্চম বাছাই মার্কিন জুটি জোনস-স্পিয়ার্সকে ৬-১, ৬-২ উড়িয়ে দিয়েছেন বলেই নয়। কিংবা অন্য ফাইনালিস্ট জুটি সেমিফাইনালে তিন সেটের লড়াইয়ে জিতেছেন বলেও নয়। চলতি উইম্বলডনে সানিয়া-হিঙ্গিস জুটি তুখোড় ফর্মে রয়েছেন। ফাইনালে ওঠার পথে পাঁচ ম্যাচে একটাও সেট হারেননি। তা ছাড়া সিঙ্গলস-ডাবলস-মিক্সড ডাবলস মিলিয়ে ১৫ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী হিঙ্গিসের উইম্বলডন ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতাও বহু পুরনো। অল ইংল্যান্ড কোর্টে ডাবলসে তিনি শেষ বার চ্যাম্পিয়ন হন ১৭ বছর আগে। ১৯৯৮-এ। ইয়ানা নভোত্নাকে নিয়ে খেলে। সানিয়ার বয়স তখন ১২!  

সবচেয়ে বড় কথা, ফাইনালে রুশ জুটির বিরুদ্ধে মানসিক ভাবে এগিয়ে থেকে নামবেন সানিয়ারা। কারণ, এ বছর দু’বারের সাক্ষাতে সানিয়া-হিঙ্গিস দু’বারই হারিয়েছেন ভেসনিনা-মাকারোভাকে। গত মার্চে হিঙ্গিসের সঙ্গে জুটি বাঁধার পর মাত্র তেত্রিশ দিনে টানা তিনটে ডব্লিউটিএ ট্যুর টুর্নামেন্ট জিতে সানিয়া ডাবলসে বিশ্বের এক নম্বরে উঠে আসেন। এখনও আছেন। এবং তাঁদের জুটিও তখন থেকেই মেয়েদের ডাবলসের বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে। সে জন্য উইম্বলডনের ইতিহাসে প্রথম ভারতীয় হিসেবে কোনও বিভাগে শীর্ষ বাছাইয়ের বিরল সম্মানও এ বারের টুর্নামেন্টে পেয়েছেন সানিয়া।

তিনটে মিক্সড ডাবলস গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী সানিয়া কেরিয়ারের প্রথম ডাবলস গ্র্যান্ড স্ল্যাম খেতাব দ্বিতীয় বারের প্রচেষ্টায় পান কি না সেটাই এখন দেখার।

তাঁর পার্টনার হিঙ্গিস আবার উইম্বলডনে দ্বিমুকুটের সামনে! এবং সেখানেও তাঁর সঙ্গী এক ভারতীয়— চিরসবুজ লিয়েন্ডার। এ বছর অস্ট্রেলীয় ওপেন চ্যাম্পিয়ন লিয়েন্ডার-হিঙ্গিস উইম্বলডনে মিক্সড ডাবলস সেমিফাইনালে শীর্ষ বাছাই মার্কিন জুটি মাইক ব্রায়ান-বেথানি মাটেককে ৬-৩, ৬-৪ হারিয়ে গোটা টুর্নামেন্টে একটিও সেট না খুইয়ে ফাইনাল পৌঁছে গেলেন। লিয়েন্ডারের গত ১৬ বছরে ডাবলস-মিক্সড ডাবলস মিলিয়ে এটা ৩২তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনাল। খেতাব ১৫টা। রবিবার কি ১৬ নম্বরটা আসছে?   

গ্যালারির পাতায় তারাদের উইম্বলডন। ছবি: টুইটার।