টেবল টেনিসে হাতেখড়ি সাত বছর আগে। এই সময়ের মধ্যেই রাজ্য ও জাতীয় স্তরে তার বিভাগে সেরা বাংলার সায়নী পণ্ডা।

গত মে মাসেই তাইল্যান্ড থেকে টেবল টেনিসে এশিয়ান হোপস চ্যাম্পিয়নশিপ (১২ বছর পর্যন্ত) জিতে কলকাতা ফিরেছে সায়নী। বুধবার সকালে বিশ্ব হোপস চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে এ বার ওমান উড়ে যাচ্ছে বাংলার এই উদীয়মান টেবল টেনিস প্রতিভা। যাওয়ার আগের দিন দক্ষিণ কলকাতার অবন মহলে অনুশীলনের ফাঁকে সায়নী বলে দেয়, ‘‘প্রথম তিনে থাকতেই হবে। মিশর, মালয়েশিয়া ও মলদ্বীপের খেলোয়াড়রা কড়া চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে পারে। কিন্তু আমি ওদের নিয়ে ভেবে চাপ বাড়াতে চাই না।’’

এশীয় হোপস চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে ফেরার পরে ডান পায়ে চোট পেয়েছিল সন্তোষপুরের এই মেয়ে। ক্ষতস্থানে সেলাই পড়ে। তিন সপ্তাহ অনুশীলন হয়নি তার। তবে তা নিয়ে চিন্তা করতে নারাজ বাংলার এই প্রতিভা। এ দিন সন্ধেয় দক্ষিণ কলকাতার অবন মহলে সায়নীকে সংবর্ধনা দিল চিলড্রেন্স লিটল থিয়েটার (সিএলটি)। উদ্বোধন হল আধুনিক ফ্লোর ম্যাট ও দু’টি উন্নত মানের টেবল টেনিস বোর্ডের। উদ্বোধন করেন কলকাতায় বাংলাদেশের উপরাষ্ট্রদূত তৌফিক হাসান। তাঁর হাত থেকেই সংবর্ধনা নেয় সায়নী। সায়নীর সঙ্গে কিছুক্ষণ টেবল টেনিস খেলেনও উপরাষ্ট্রদূত।