জবি জাস্টিনের সই-নাটক এ বার যাচ্ছে হাতের লেখা বিশারদের কাছে। শনিবার আইএফএ-র প্লেয়ার্স স্টেটাস কমিটির সভায়। সিদ্ধান্ত হল, এটিকের পক্ষে কেরল স্ট্রাইকার যে সই করেছেন সেটা তাঁরই কি না তা পরীক্ষা করে  দেখা হবে। আইএফএ সচিব উৎপল গঙ্গোপাধ্যায় বললেন, ‘‘জবির সই পরীক্ষার পরে ফের কমিটির সভা ডেকে সিদ্ধান্ত নিয়ে তা পাঠিয়ে দেব ফেডারেশনে।’’ দলবদলের সই নিয়ে কলকাতায় শেষ বার স্নেহাশিস চক্রবর্তীর সই পরীক্ষা করার জন্য সাহায্য নেওয়া হয়েছিল হাতের লেখা বিশারদদের। সে বার ইস্টবেঙ্গল থেকে মোহনবাগানে যেতে চেয়েছিলেন স্নেহাশিস। দুই প্রধানই দাবি করেছিল, স্নেহাশিস তাদের চুক্তিতে সই করেছেন। শেষ পর্যন্ত জরিমানা দিয়ে মোহনবাগানে সই করেন তিনি।  

ইস্টবেঙ্গলের অভিযোগ, টোকেন এবং খেলার প্রতিশ্রতির চিঠি দেওয়ার পরেও এটিকের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন জবি। এর পরেই সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন তদন্তের নির্দেশ দেয় আইএফএ-কে। শোনা যাচ্ছে, দুটো সই জবির প্রমাণিত হলে জটিলতা আরও বাড়তে পারে। এ দিকে বিএসএস-এর খেলোয়াড় সূরজ মণ্ডলকে গড়াপেটায় যুক্ত থাকার অভিযোগে নির্বাসিত করেছিল আইএফএ। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হয়নি। কিন্তু মিথ্যা তথ্য  দেওয়ার জন্য তাঁকে দশ হাজার টাকা জরিমানা করা হল।