• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জোড়া গোল রয় কৃষ্ণের, দুরন্ত জয়ে শীর্ষেই এটিকে

SL 2019-20: Roy Krishna Brace takes ATK to top of table
নায়ক: রয় কৃষ্ণকে নিয়ে উৎসব এটিকে ফুটবলারদের। আইএসএল

গত দু’বছর প্রত্যাশা মতো ফল হয়নি। তাই ইন্ডিয়ান সুপার লিগে কলকাতার দল এটিকে এ বার মরসুম শুরুর আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, দলের কোচিংয়ের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হবে প্রথম আইএসএল জয়ী এটিকে কোচ আন্তোনিয়ো লোপেস, হাবাসের হাতে। সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া থেকে তুলে আনা হয়, সেখানকার লিগের দুই তারকা ফুটবলার রয় কৃষ্ণ ও ডেভিড উইলিয়ামসকে। সঙ্গে প্রীতম কোটাল, প্রবীর দাস, জবি জাস্টিনের মতো স্থানীয় তারকারা।

স্পেনীয় কোচের প্রশিক্ষণে এই সব তারকার মিশেলে চলতি মরসুমে অপ্রতিরোধ্য এটিকে। দুর্দান্ত ছন্দে এগিয়ে চলেছে হাবাসের ছেলেরা। শনিবার যেমন গুয়াহাটির সরুসজাই স্টেডিয়ামে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল স্থানীয় দল নর্থইস্ট ইউনাইটেড এফসি। যাদের দলে রয়েছেন ইউরোপের বিভিন্ন লিগও  ও ২০১০ ও ২০১৪ সালে বিশ্বকাপে খেলে আসা ঘানার ফুটবলার আসামোয়া গিয়ান-সহ বেশ কয়েকজন দুরন্ত ফুটবলার। এ দিনের ম্যাচের আগে কোনও ম্যাচও হারেনি তাঁরা।

কিন্তু গুয়াহাটির দলটি কোনও প্রতিরোধই গড়ে তুলতে পারল না এটিকের সামনে। পর পর দু’টি ড্রয়ের পরে শনিবার বলিউড অভিনেতা জন আব্রাহামের দলকে প্রবীর দাসরা হারালেন ৩-০। জোড়া গোল করলেন রয় কৃষ্ণ। এটিকের অপর গোলদাতা ডেভিড উইলিয়ামস। যার ফলে সাত ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে দশ দলের ইন্ডিয়ান সুপার লিগের শীর্ষে উঠে এল কলকাতার দল। এক পয়েন্ট পিছনে দ্বিতীয় স্থানে বেঙ্গালুরু এফসি। অন্য দিকে, এ দিন ম্যাচ হারায়, ৭ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে চলে গেল নর্থইস্ট ইুনাইটেড এফসি। 

দুরন্ত জয়ের পরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ডেভিড উইলিয়ামস  বললেন, ‘‘এই জয় আত্মবিশ্বাস বাড়াবে। লিগের শীর্ষে উঠে আসায় দারুণ লাগছে। তার চেয়েও ভাল লাগছে কোনও গোল না খেয়ে মাঠ ছাড়তে পারার জন্য।’’

আর এ দিনের ম্যাচের সেরা ও এটিকের হয়ে জোড়া গোল করা রয় কৃষ্ণ বলে গেলেন, ‘‘অনুশীলনে ডেভিড উইলিয়ামসের সঙ্গে আমার জুটিটা যে রকম কার্যকর থাকে। মাঠেও সে রকমই কাজ দিচ্ছে এই জুটি। উইলিয়ামস ঠিক বুঝতে পারছে আমি মাঠের মধ্যে কোথায় জায়গা নিতে পারি। ফের জয়ে ফিরলাম আমরা। এই ছন্দটা ধরে রাখতে হবে আমাদের।’’ 

ঘরের মাঠে এ দিন এটিকের বিরুদ্ধে নর্থইস্ট খেলতে নেমেছিল ৪-২-৩-১ ছকে। উদ্দেশ্য ছিল, রয় কৃষ্ণদের দাপট মাঝমাঠেই থামিয়ে দেওয়া। অন্য দিকে, বিপক্ষ রক্ষণে আক্রমণের ঢেউ আছড়ে ফেলার জন্য হাবাস দল সাজিয়েছিলেন ৩-৫-২ ছকে। কিন্তু আট মিনিটেই আসামোয়া গিয়ান চোট পেয়ে বাইরে চলে যাওয়ায় আক্রমণ নির্বিষ হয়ে পড়ে নর্থইস্ট ইউনাইটেডের।

এটিকে: অরিন্দম ভট্টাচার্য, প্রীতম কোটাল, অগাস্টিন ইনিগুয়েজ়, সালাম রঞ্জন সিংহ, প্রবীর দাস, শেহনাজ সিংহ, হাভিয়ের হার্নান্দেজ, অদু গার্সিয়া (জয়েশ রানে), মাইকেল সুসাইরাজ, রয় কৃষ্ণ, ডেভিড উইলিয়ামস (জবি জাস্টিন)।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন