প্রাক্তন ক্রিকেটারদের স্বার্থ-সংঘাত নিয়ে বিতর্কে তোপ দাগলেন প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। জানিয়েছেন, এই বিষয়ে বাস্তবোচিত দৃষ্টিভঙ্গি রাখা প্রয়োজন। শুক্রবার মুম্বইয়ে এক অনুষ্ঠানে সৌরভ বলেছেন, ‘‘স্বার্থ-সংঘাত নিয়ে দৃষ্টিভঙ্গি বাস্তবসম্মত হওয়ার দরকার রয়েছে।’’ তিনি যোগ করেন, ‘‘রাহুল দ্রাবিড়কে জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির মাথায় আনা হল। তখনই ওর একটি সংস্থার সঙ্গে চাকরিসূত্রে যুক্ত থাকার প্রসঙ্গও টেনে আনা হল। এটা ঠিক নয়। কাল হয়তো ও জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির সঙ্গে না-ও থাকতে পারে। কিন্তু চাকরিটা তো ওর স্থায়ী। সেটার কি হবে?’’

বরং সৌরভ মনে করেন, কোনও ক্রিকেটারের ধারাভাষ্য ও কোচিংয়ের সঙ্গে যুক্ত থাকার মধ্যে স্বার্থ-সংঘাতের কোনও সম্পর্ক নেই। তিনি বলেছেন, ‘‘রিকি পন্টিংকে দেখুন। অস্ট্রেলিয়া দলের কোচিং করিয়েছে। এই মুহূর্তে অ্যাশেজ সিরিজে ধারাভাষ্য করছে। আবার আগামী বছর আইপিএলে ও দিল্লি ক্যাপিটালস দলের সঙ্গে যুক্ত হবে। ফলে আমি আদৌ মনে করি না, এর সঙ্গে স্বার্থ-সংঘাতের কোনও প্রশ্ন জড়িয়ে রয়েছে।’’ তাঁর আরও সংযোজন, ‘‘প্রত্যেকটি মানুষের দক্ষতা বিচার করে তাঁকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের দায়িত্ব পালন করতে হয়। তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠা ঠিক নয়।’’

ভারতীয় দলের নতুন ব্যাটিং কোচ হয়েছেন বিক্রম রাঠৌর। তা নিয়ে সৌরভ বলেছেন, ‘‘ওর ভগ্নীপতি আশিস কপূর জুনিয়র দলের নির্বাচক বলে স্বার্থ-সংঘাতের প্রশ্ন উঠছে। এটা খুবই হাস্যকর।’’