আসন্ন বিশ্বকাপে ফেভারিট হিসেবেই খেলতে নামছে পাকিস্তান। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের এমনই মতামত।

ভারত, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পাকিস্তানকেও সেমিফাইনালে দেখছেন মহারাজ। কারণ হিসেবে সৌরভ বলছেন, ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্ব পর্যায়ের সব টুর্নামেন্টে পাকিস্তান আগাগোড়া ভাল খেলে এসেছে। সেই কারণেই এ বারের বিশ্বকাপেও পাকিস্তান ভাল পারফরম্যান্স তুলে ধরতে পারে।

সৌরভ বলছেন, “ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্ব পর্যায়ের সব টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের রেকর্ড বেশ ভাল। দু’বছর আগে পাকিস্তান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতেছে। ২০০৯ সালে টি টোয়েন্টি প্রতিযোগিতাও জিতেছে পাকিস্তান।’’ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে পাকিস্তানের পারফরম্যান্স তুলে ধরেছেন সৌরভ। ইংল্যান্ডের করা পাহাড়প্রমাণ ৩৭৪ রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ১২ রানে হার মেনেছে পাকিস্তান। তাঁর মতে, এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে, ইংল্যান্ডের মাটিতে পাকিস্তান অন্যতম শক্তিশালী একটা দল। সৌরভ বলছেন, ‘‘ইংল্যান্ডের মাটিতে পাকিস্তান সব সময়ে ভাল খেলে। শেষ ম্যাচটার কথাই ধরা যাক। ইংল্যান্ড ৩৭৪ রান করেছিল। পাকিস্তান প্রায় ধরে ফেলেছিল ওদের। মাত্র ১২ রানে হার মানতে হয়েছে। বোলিং শক্তির জন্যই ইংল্যান্ডের মাটিতে ইংল্যান্ডকেই টেস্ট ম্যাচে হারিয়েছে পাকিস্তান।’’

আরও খবর: ২ বছর ধরে বিশ্বকাপের স্বপ্ন দেখছে বিরাট, জানালেন ছোটবেলার কোচ

আরও খবর: দলে এক নাইট, কেমন হল আইপিএলের সেরা একাদশ?

তা হলে কি ভারতকে বেগ দেবে পাকিস্তান? বিশ্বকাপের ইতিহাস বলছে, এখনও পর্যন্ত পাকিস্তানের কাছে হারেনি ভারত। এ বারের বিশ্বকাপে কী হবে? সৌরভ বলছেন, ‘‘আমি রেকর্ডে বিশ্বাসী নই। নির্দিষ্ট দিনে দুটো দলকেই ভাল খেলতে হবে। যে ভাল খেলবে সেই দলই জিতবে। ভারত বেশ শক্তিশালী দল। কোহালি, রোহিত, শিখর ধওয়নের মতো খেলোয়াড় রয়েছে যে দলে, সেই দল কোনওমতেই দুর্বল হতে পারে না।’’

এই ভারতীয় দল ও ২০০৩ সালের দলের মধ্যে পার্থক্য কোথায়? প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া হয় সৌরভকে। তিনি বলেন, ‘‘দুটো দল দুই প্রজন্মের। ২০০৩ সালে আমরা ফাইনালে পৌঁছেছিলাম। আশা করি। এই দলটা ফাইনালে খেলবে এবং জিতবে।’’