• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

২০০৩ বিশ্বকাপ দলে বিরাটকে রাখতেন সৌরভ

Sourav Ganguly
পছন্দ: ধোনি নেই সৌরভের তালিকায়।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল ভারত। অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের মিশেলে এই প্রাপ্তি সম্ভব হয়েছিল তৎকালীন ভারতীয় দলের। বর্তমান ভারতীয় দল থেকে যদি কোনও ক্রিকেটারকে নেওয়ার সুযোগ দেওয়া হত, তা হলে কাদের রাখতেন সৌরভ? ভারতীয় বোর্ড প্রেসিডেন্ট নির্দ্বিধায় জানিয়ে দিলেন তাঁর পছন্দের তালিকা। যে তালিকায় তিনি রাখছেন বিরাট কোহালি, রোহিত শর্মা ও যশপ্রীত বুমরাকে।

কিন্তু মহেন্দ্র সিংহ ধোনি? বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক তাঁর দলে কেন জায়গা পেলেন না? সৌরভের সাফ ব্যাখ্যা, ‘‘দস্তানা হাতে রাহুল দ্রাবিড় অসাধারণ পারফর্ম করেছে। ধোনিকে নেওয়ার আগে তাই ভাবতে হত।’’

রবিবার মায়াঙ্ক আগরওয়ালের সঙ্গে বিসিসিআই টিভি-তে লাইভ চ্যাটে এসেছিলেন সৌরভ। সেখানেই ভারতীয় টেস্ট ওপেনারের একাধিক প্রশ্নের  মুখে পড়তে হয় বোর্ড প্রেসিডেন্টকে। মায়াঙ্ক প্রশ্ন করেন, ‘‘বর্তমান ভারতীয় দল থেকে ২০০৩ বিশ্বকাপ দলে কাদের নিতে?’’ সৌরভের উত্তর, ‘‘বিরাট, রোহিত ও বুমরা। রোহিত ওপেন করত, আমি তিন নম্বরে নামতাম। এটা শুনে বীরেন্দ্র সহবাগ হয়তো কালই আমাকে ফোন করে বলবে, ‘নিজেকে কী মনে করো’ (হাসি)। কোহালিকে মিডল অর্ডারে রাখতাম।’’ কিন্তু ধোনি? তাঁকে নেবেন না? সৌরভ বলে দিলেন, ‘‘ধোনিকে নিলে অবশ্যই ভাল হত। কিন্তু মনে রাখতে হবে, উইকেটকিপার হিসেবে দ্রাবিড় কিন্তু অসাধারণ খেলেছে।’’

অধিনায়ক হিসেবে দেশকে বহু সাফল্য এনে দিয়েছেন সৌরভ। ২০০০ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির রানার-আপ। ২০০১ সালে ইডেনে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট জয়। ২০০২ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে যুগ্মবিজয়ী। একই বছরে লর্ডসে ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জয়। ২০০৩ বিশ্বকাপের রানার-আপ হওয়ার পরের বছরই পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট ও ওয়ান ডে সিরিজ জয়। এত কিছু প্রাপ্তির মধ্যে কোনটা সব চেয়ে প্রিয় সৌরভের? মায়াঙ্কের প্রশ্নের জবাবে সৌরভ বলেন, ‘‘২০০২ ন্যাটওয়েস্ট ট্রফি জয়ের মর্যাদাই অন্য রকম। শনিবারের দুপুরে লর্ডসের ভর্তি গ্যালারির সামনে জেতার অনুভূতি আর পাঁচটি জয়ের সঙ্গে তুলনা করা যায় না। তেমনই বিশ্বকাপ ফাইনালে ওঠার অনুভূতিও আলাদা। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেছিলাম ঠিকই, কিন্তু বাকিদের হারিয়ে সেই জায়গায় পৌঁছই। দু’টোর তুলনা চলে না।’’

মায়াঙ্কের টক শোয়ে এক সমর্থক প্রশ্ন করেন, ‘‘এই প্রজন্মে জন্মালে আপনি কি টি-টোয়েন্টি খেলার জন্য নিজের টেকনিক পরিবর্তন করতেন?’’ সৌরভের উত্তর, ‘‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আমার খুব পছন্দের। এই যুগে জন্মালে অবশ্যই টি-টোয়েন্টির জন্য আরও তৈরি হতাম।’’ আইপিএলের প্রথম পাঁচটি সংস্করণে খেলেছেন সৌরভ। তবে আরও কয়েকটি ম্যাচ বেশি খেলার ইচ্ছে ছিল তাঁর।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন