তিনি জাতীয় স্তরের প্রাক্তন তিরন্দাজ। জামশেদপুর থেকে একসময় উঠে এসেছে অনেককেই। এই মুহূর্তে যাঁর নাম সবার আগে মনে পড়ছে তিনি দীপিকা কুমারী। দেশের সেরা তিরন্দাজদের মধ্যে তাঁকে ধরা হয়। সেই জামশেদপুরেই এক তিরন্দাজ হারিয়ে যাচ্ছেন অভাব-অনটনের অতলে।

২৮ বছরের তিরন্দাজ অশোক সোরেন এই মুহূর্তে শ্রমিকের কাজ করে জীবন কাটাচ্ছেন। সরকারের রুরাল এমপ্লয়মেন্ট গ্যারান্টি স্কিমে এই কাজ করেন সোরেন। সঙ্গী অভাব। সেই খবর কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী রাজ্যবর্ধন রাঠৌরের কাছে পৌঁছতেই কাজ হল। সরকারের পণ্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায় ন্যাশনাল ওয়েলফেয়ার ফান্ড থেকে প্রাক্তন এই তিরন্দাজকে ৫ লাখ টাকার অনুদান দেওয়া হল।

২০০৮-এর দক্ষিণ এশিয়ান গেমসে জোড়া সোনা জিতেছিলেন অশোক সোরেন। এখন তাঁর এই অবস্থা। এর আগে ক্রীড়া দফতর থেকে সাহায্য করা হয়েছে অর্জুন পুরস্কার প্রাপ্ত লিম্বা রামকেও। তিনি নিউরোডিজেনারেটিভ রোগে ভুগছেন। এই মাশের শুরুতে আরও এক তিরন্দার গোহেলা বোরোকেও ৫ লাখ টাকা অনুদান দেওয়া হয় সরকারের তরফে।

আরও পড়ুন
ডোপ ফ্রি বছরে বিসিসিআই-এর একমাত্র কলঙ্ক ইউসুফ পঠান