• নিজস্ব সংবাদদাতা 
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নেপালে সেরা কোলাঘাটের সাঁতারু সুপ্রিয়

Supriya Mandol got gold in 200 meter butterfly swimming
n উচ্ছ্বাস: সোনা জিতে জাতীয় পতাকা নিয়ে সুপ্রিয়। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

নেপালের পোখরায় সাউথ এশিয়ান গেমসে সাঁতারে ২০০ মিটার বাটার ফ্লাই-এ সোনা জিতেছেন কোলাঘাটের সুপ্রিয় মণ্ডল। ৭ ডিসেম্বর ছিল ওই ইভেন্টের ফাইনাল। প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে এশিয়ার সাতটি দেশ।

কোলা ইউনিয়ন হাইস্কুলের প্রাক্তন ছাত্র সুপ্রিয়র বাড়ি কোলাঘাটের সাহাপুর গ্রামে। বাবা সুকুমার মণ্ডল পেশায় মৎস্যজীবী। বাড়ির বড় ছেলে সুপ্রিয় পড়াশোনায় তেমন ভাল না হলেও ছোট থেকেই সাঁতারে পারদর্শী। মৎস্যজীবী পরিবার থেকে উঠে আসা সুপ্রিয়র সাঁতারে হাতেখড়ি কোলাঘাট সুইমিং সেন্টারে। বর্তমানে বেঙ্গালুরুতে ডলফিন অ্যাকোয়াটিকে অনুশীলন করেন সুপ্রিয়। চাকরি করেন রেলওয়েতে।

সোমবার দেশের হয়ে সোনা জেতাটা ছিল শুধু অপেক্ষামাত্র। এর আগে দেশের হয়ে যুব অলিম্পিক্স ও যুব এশিয়াডে অংশ নেন সুপ্রিয়। যুব কমনওয়েলথ গেমসে ২০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে রুপো জেতেন। চাকরি ও সাঁতারের পাশাপাশি একটি মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক হওয়ার জন্য পড়ছেন সুপ্রিয়। তাঁর ভাই  শ্রীদীপও ভাল সাঁতারু। কোলা ইউনিয়ন হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র শ্রীদীপ। দু’সপ্তাহ আগে বিদ্যালয় ভিত্তিক ৬৫ তম জাতীয় সাঁতারে অনূর্ধ্ব ১৯ বিভাগে পূর্ব মেদিনীপুর তথা বাংলার হয়ে দুটি ইভেন্টে দ্বিতীয় হন শ্রীদীপ। 

এ দিকে, আগামী মার্চে সিঙ্গাপুরে অলিম্পিক্সের যোগ্যতা অর্জনের প্রতিযোগিতা। নেপাল থেকে ফিরেই তার প্রস্তুতি শুরু করেছেন সুপ্রিয়। দরিদ্র পরিবার থেকে উঠে আসা এই সাঁতারুর সাফল্যে খুশি তাঁর শিক্ষকেরা। কোলা ইউনিয়ন হাইস্কুলের শিক্ষক ও পূর্ব মেদিনীপুর স্কুল গেমসের সাঁতার দলের ম্যানেজার সুজন বেরা বলেছেন, ‘‘সাফল্য পেতে শুধুমাত্র পড়াশোনাই অপরিহার্য নয়। ছাত্রছাত্রীদের অন্যান্য পারদর্শিতাকেও সঠিকভাবে এগিয়ে নিয়ে গেলে সাফল্য আসতে পারে। প্রাক্তন ছাত্র হিসেবে সুপ্রিয় দেশের পাশাপাশি আমাদের স্কুলকেও গর্বিত করেছে।’’

বাবা সুকুমার মণ্ডলের কথায়, ‘‘ছেলের সাফল্যে গর্ব হচ্ছে।’’ আর সুপ্রিয় বলেন, ‘‘আগামী দিনে সাঁতারে দারুণ কিছু করে বিশ্বের দরবারে দেশকে তুলে ধরতে চাই।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন