• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মেলবোর্ন থেকে সরুক বক্সিং ডে টেস্ট, চান টেলর

Boxing Day Test
ফাইল চিত্র

বছরের শেষে বিরাট কোহালিদের অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে আবার নতুন এক প্রশ্ন উঠে পড়েছে। মেলবোর্নে কি আদৌ হবে ঐতিহ্যশালী বক্সিং ডে টেস্ট?

কয়েক দিন আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সে মেলবোর্নে টেস্ট হওয়া নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছিলেন স্বয়ং অস্ট্রেলীয় টেস্ট অধিনায়ক টিম পেন। এ বার একই সুর শোনা গেল মার্ক টেলরের গলায়। অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়কের মতে, মাঠ ভর্তি দর্শক ছাড়া বক্সিং ডে টেস্ট আয়োজন করার কোনও মানে হয় না। টেলরের সাফ কথা, প্রয়োজনে অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ড অন্যত্র টেস্ট সরিয়ে নিয়ে যাক, যেখানে দর্শক আসতে সমস্যা হবে না।

অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়ায় করোনাভাইরাস সংক্রমণ কিন্তু এখনও আয়ত্তে আসেনি। বরং তা বেড়ে চলেছে। যে কারণে আশঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছে, ভিক্টোরিয়ার অন্তর্গত মেলবোর্ন শহরের কিছু কিছু অংশে ফের লকডাউন চালু হয়ে যেতে পারে। এমনিতে অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম ব্যস্ত শহর মেলবোর্ন। যেখানে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে মানুষের সমাগম ঘটে। যার ফলে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা এই শহরে সব চেয়ে বেশি। অন্য দিকে, পার্‌থ বা অ্যাডিলেডের মতো শহরে পরিস্থিতি অনেক নিয়ন্ত্রণে। যার ফলে এই দুটো শহরে দর্শক নিয়ন্ত্রণ কম হবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

ঘোষিত সূচি অনুযায়ী, অস্ট্রেলিয়া সফরে কোহালিদের টেস্ট খেলতে হবে যথাক্রমে ব্রিসবেন, অ্যাডিলেড, মেলবোর্ন এবং সিডনিতে।  পার্‌থের নাম এই তালিকায় নেই। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্ক তৈরি হয়েছে। টেলর এখন স্পষ্ট বলে দিচ্ছেন, বক্সিং ডে টেস্ট মেলবোর্নের পরিবর্তে পার্‌থ বা অ্যাডিলেডে হতেই পারে। একটি চ্যানেলে টেলর বলেছেন, ‘‘বক্সিং ডে টেস্ট কি মেলবোর্ন থেকে সরিয়ে নেওয়া উচিত? আমার মতে অবশ্যই উচিত। এখন যা পরিস্থিতি, তাতে মনে হয় বড়দিনের সময় মেলবোর্ন স্টেডিয়ামে ১০ থেকে ২০ হাজারের বেশি দর্শক উপস্থিত থাকতে পারবে না। ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ সিরিজের একটা ঐতিহ্যশালী টেস্ট ম্যাচে এত কম সংখ্যক দর্শকের উপস্থিতি মোটেই ভাল দেখাবে না।’’

তা হলে বিকল্প ব্যবস্থা কী হতে পারে? কোনও বিশেষ কেন্দ্রের নাম না করে টিম পেন বলেছিলেন, অস্ট্রেলিয়ার হাতে অনেক বিকল্প টেস্ট কেন্দ্র আছে বক্সিং ডে টেস্টের আয়োজন করার। টেলর কিন্তু পরিষ্কার তাঁর পছন্দের কথা জানিয়ে দিচ্ছেন। তিনি বলেছেন, ‘‘বক্সিং ডে টেস্ট যদি পার্‌থের অপ্টাস স্টেডিয়ামে নিয়ে যাওয়া হয় বা এমনকি অ্যাডিলেড ওভালেও, তা হলেও কিন্তু পুরো দর্শক হবে। অ্যাডিলেডের মানুষ তো আবার ভারতের খেলা দেখতে খুব পছন্দ করে। গত বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিট বোধ হয় ৫২ মিনিটে শেষ হয়ে গিয়েছিল!’’ টেলর যোগ করছেন, ‘‘পার্‌থ অবশ্যই টেস্টটা পাওয়ার জন্য ঝাঁপাবে। আর ভরা মাঠে টেস্ট ম্যাচ দেখতেও খুব ভাল লাগবে।’’

আরও পড়ুন: রোহিতের সঙ্গে বিখ্যাত রঞ্জি তারকার মিল খুঁজে পেলেন ইরফান

বছর দুই আগে তৈরি পার্‌থের অপ্টাস স্টেডিয়ামের দর্শকসংখ্যা হল ৬০ হাজার। অনেকেই মনে করেন, এমসিজি-র বাইরে পার্‌থই এখন অস্ট্রেলিয়ার সব চেয়ে সুন্দর মাঠ। সিরিজের সূচি ঘোষণা হওয়ার পরে পার্‌থের নাম বাদ পড়ায় ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট সংস্থার (ওয়াকা) প্রধান ক্রিশ্চিনা ম্যাথেউজ অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ডকে একহাত নিয়েছিলেন। 

আরও একটা প্রশ্ন উঠছে এই সিরিজ ঘিরে। অস্ট্রেলীয় বোর্ড চারটে কেন্দ্রের কথা ঘোষণা করলেও চারটে শহরে গিয়ে কি খেলা সম্ভব কোহালিদের পক্ষে? ইংল্যান্ডে গিয়ে যেমন ওয়েস্ট ইন্ডিজ জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে থেকে দুটো কেন্দ্রে টেস্ট খেলবে। সে রকমই যদি শেষ পর্যন্ত একটা কি দুটো কেন্দ্রে ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফর সূচি সঙ্কুচিত হয়ে যায়, তা হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।  

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন