ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসবাদী হামলা থেকে অল্পের জন্য বাংলাদেশের ক্রিকেটারেরা রক্ষা পাওয়ার পরে বাতিল করা হল নিউজ়িল্যান্ড এবং বাংলাদেশের তৃতীয় টেস্ট। 

আজ, শনিবার থেকে এই টেস্ট শুরু হওয়ার কথা ছিল। আইসিসি জানিয়েছে, তারা তৃতীয় টেস্ট বাতিল করাকে পূর্ণ সমর্থন করছে। আইসিসির চিফ এক্সিকিউটিভ ডেভিড রিচার্ডসন জানিয়েছেন, ‘‘এই ভয়াবহ ঘটনায় যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাঁদের পরিবার ও বন্ধুদের সমবেদনা জানাচ্ছি। দুই ক্রিকেট দল, সাপোর্ট স্টাফ এবং ম্যাচ অফিসিয়ালরা সুরক্ষিত আছেন। আইসিসি তৃতীয় টেস্ট বাতিল হওয়াকে সমর্থন করছে।’’

নিউজ়িল্যান্ড ক্রিকেট সংস্থা ম্যাচ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করে। নিউজ়িল্যান্ড দলের সরকারি টুইটারে জানানো হয়, ‘‘ক্রাইস্টচার্চের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবার ও বন্ধু-বান্ধবদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। নিউজ়িল্যান্ড ক্রিকেট এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড যৌথ ভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছে হ্যাগলি ওভাল টেস্ট বাতিল করার। আবার জানাচ্ছি, দুই দলের ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট স্টাফ সুরক্ষিত।’’

 দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড টুইট করে, ‘‘দলের ক্রিকেটার এবং সাপোর্ট স্টাফ সুরক্ষিত ভাবে হোটেলে ফিরে এসেছেন। টিম ম্যানেজমেন্ট এবং ক্রিকেটারদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে বিসিবি।’’ তবে সবাই হোটেলে ফিরে এলেও আতঙ্ক যে কাটিয়ে উঠতে পারেননি, তা বাংলাদেশে দুই সিনিয়র ক্রিকেটার তামিম ইকবাল এবং মুশফিকুর রহিমের টুইটে স্পষ্ট। তামিম লিখেছেন, ‘‘সামনেই গুলি চলছিল। গোটা দল বেঁচে গিয়েছে। ভয়াবহ অভিজ্ঞতা। আমাদের জন্য সবাই প্রার্থনা করুন।’’ নিউজ়িল্যান্ডের ক্রিকেটার জিমি নিশাম টুইট করেছেন, ‘‘এত দিন আমি বাকি বিশ্বে বিভিন্ন ঘটনা দেখতাম আর ভাবতাম আমাদের দেশ বোধহয় তা থেকে মুক্ত। কিন্তু আজ একটা ভয়ানক দিন হয়ে রইল। খুব খারাপ লাগছে সব শুনে। এই ঘটনার কথা ভাবতে চাই না।’’

নিউজ়িল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের চিফ এক্সিকিউটিভ ডেভিড হোয়াইট সে দেশের সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, ‘‘আমরা এই ঘটনায় হতবাক হয়ে গিয়েছি। আমি নিশ্চিত আমার মতোই অবস্থা নিউজ়িল্যান্ডের বাকি মানুষদেরও। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গেও কথা বলেছি। আমরা দুই বোর্ড কর্তারাই সহমত, এই অবস্থায় খেলা চালু রাখা যায় না।’’

নিউজ়িল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের তরফে বিবৃতিতে এর পরে জানানো হয়েছে, দ্রুত বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের দেশে ফেরার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। শনিবারের মধ্যেই বাংলাদেশ দল ফেরার বিমানে উঠছে।