সুনীল ছেত্রীর দুরন্ত গোলে এগিয়ে গিয়েও শেষরক্ষা হল না। বদলাল না ওমানের বিরুদ্ধে ব্যর্থতার ছবিটাও। শেষ আট মিনিটে দু’গোল খেয়ে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের প্রথম ম্যাচে জয়ের স্বপ্ন অধরাই থাকল ভারতীয় ফুটবল দলের। 

ম্যাচের পরে ভারত অধিনায়ক সুনীল বলেছেন, ‘‘এমন হার মেনে নেওয়া কঠিন। আমার মনে হয়, দ্বিতীয়ার্ধে যতটা বল দখলে রাখার দরকার ছিল, তা পারিনি। ওমানের মতো দলকে বল দখল করতে দিলে জেতা সহজ নয়। এই ব্যাপারটা নিয়ে আমাদের আরও পরিশ্রম করতে হবে। ঘুরে দাঁড়াতে হবে। তবে দলের ছেলেরা দারুণ লড়াই করেছে।’’ সুনীল আরও বলেছেন, ‘‘৮১ মিনিট পর্যন্ত ১-০ এগিয়ে ছিলাম। দুর্দান্ত সুযোগ ছিল ম্যাচটা জেতার। এই সুযোগটা কাজে লাগানো উচিত ছিল।’’ ম্যাচ দেখতে এ দিন গ্যালারিতে ছিলেন সুনীলের বাবা, মা ও স্ত্রী।

জিততে না পারলেও হতাশ নন ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্তিমাচ। ম্যাচের পরে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেছেন, ‘‘রোজ কেউ গোল করতে পারে না। ৮২ মিনিট পর্যন্ত আমরা এগিয়ে ছিলাম। তা ছাড়া আশিক কুরিয়ান ও সন্দেশ ঝিঙ্ঘান ফিট ছিল না। তা সত্ত্বেও ছেলেরা যা খেলেছে, তাতে গোটা দেশ গর্বিত।’’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘আমাদের ছেলেরা ওমানের ফুটবলারদের চেয়ে ফিট ছিল। কিন্তু অভিজ্ঞতাতেই আমরা মার খেয়ে গেলাম।’’ 

 পাঁচ দিন পরেই ভারতকে খেলতে হবে কাতারের বিরুদ্ধে। স্তিমাচ বলেছেন, ‘‘দোহায় অ্যাওয়ে ম্যাচে কাতারের বিরুদ্ধে খেলা খুব কঠিন। তবে আমরাও তৈরি। প্রত্যেকটা ম্যাচেই পরিস্থিতি একই রকম থাকবে। আমাদের সামনে প্রতিপক্ষ যেই থাকুক, মাঠে নেমে লড়াই করতে হবে। দেখতে হবে যে ভুলের জন্য আমরা আজ তিন পয়েন্ট হারালাম তার পুনরাবৃত্তি যেন না হয়।’’ তিনি আরও বলেছেন, ‘‘দলে চার-পাঁচটা পরিবর্তন হতে পারে। কাতার যতই শক্তিশালী হোক ভয় নিয়ে নয়, ভাল ফুটবল খেলতে মাঠে নামব।’’