বিজয় হজ়ারে ট্রফির কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছনোর আশা বাঁচিয়ে রাখল বাংলা। বুধবার জয়পুরে মনোজ তিওয়ারির অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের সুবাদে বাংলা পাঁচ  উইকেটে হারিয়েছে  ত্রিপুরাকে।

কর্নেল সাইনি স্টেডিয়ামে এ দিন টসে জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলা দলের অধিনায়ক অভিমন্যু ঈশ্বরন। ৫৫ রানের মধ্যে তিন উইকেট হারানো ত্রিপুরা দলকে বিপর্যয় থেকে টেনে তোলেন তন্ময় মিশ্র। তিনি ৯৯ বলে ৭২ রান করেন। তবে এ দিন বাংলা দলের বোলাররা ছিলেন যথেষ্ট ধারাবাহিক। দুই পেসার ঈশান পোড়েল (২-৪৫) এবং আকাশ দীপ (২-২৯) ছিলেন সপ্রতিভ। এ ছাড়া অর্ণব নন্দী দুই উইকেট নেন। তবে বুধবার বাংলা দলের জয়ের কারিগর ছিলেন প্রাক্তন অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি। বোলিং এবং ব্যাটিং—দু’জায়গাতেই তিনি ছিলেন আক্রমণাত্মক মেজাজে। পাঁচ ওভারে ৩৩ রান খরচ করে ফেরান মিলিন্দ কুমার (৪৩) এবং রজত দে-কে (১৫)। ২২৪ রানে অলআউট হয়ে যায় ত্রিপুরা। ব্যাট করতে নেমেও মনোজ ছিলেন আগ্রাসী মেজাজে। ১০৩ বলে ৮৫ রান করেন তিনি। ইনিংসে ছিল সাতটি বাউন্ডারি। অধিনায়ক ঈশ্বরন ৪৫ বলে ৩৪ রান করেন। পরে অগ্নিভ পান ৭৮ বলে ৫৭ রান করে জয় নিশ্চিত করে দেন। ৪৭.১ ওভারে বাংলা ৫ উইকেটে ২২৭ রান তোলে। 

এলিট ‘সি’ গ্রুপে সাত ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে বাংলা এই মুহূর্তে রয়েছে টেবলের তিন নম্বরে। বাংলার বাকি দু’টি ম্যাচ রয়েছে বিহার (আজ, বৃহস্পতিবার) ও রেলওয়েজের সঙ্গে (১৪ অক্টোবর)। দু’নম্বরে রয়েছে গুজরাত। ৬ ম্যাচ খেলে তাদের পয়েন্ট ২৪। বাকি তিন ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ সার্ভিসেস, জম্মু ও কাশ্মীর এবং তামিলনাড়ু। পরের রাউন্ডে পৌঁছতে হলে বাংলাকে নিজেদের বাকি দুই ম্যাচে জয় নিশ্চিত করার সঙ্গে তাকিয়ে থাকতে হবে গুজরাতের বাকি তিন ম্যাচের দিকেও। যদিও এখনও পর্যন্ত নেট রান রেটে গুজরাত (১.৮৯৪) অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে অভিমন্যুদের দলের চেয়ে (০.১)। ফলে জয়ের সঙ্গে নেট রান রেটেও উন্নতি করতে হবে বাংলা দলকে। ‘সি’ গ্রুপের শীর্ষেই রয়েছে তামিলনাড়ু (সাত ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট)। যারা এ দিন রেলওয়েজকে আট উইকেটে হারিয়েছে। ১১১ রান করেছেন বাবা অপরাজিত।