• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মরুশহরে বেড়াতে যাননি, বলছেন জ়িদান

Zidane
রিয়াল মাদ্রিদের ম্যানেজার জ়িনেদিন জ়িদান।—ছবি এএফপি।

সৌদি আরবের জেড্ডায় তাঁরা বেড়াতে যাননি। মরুশহর থেকে স্প্যানিশ সুপার কাপ ট্রফি জিতে ফেরাই একমাত্র লক্ষ্য। বলে দিলেন রিয়াল মাদ্রিদের ম্যানেজার জ়িনেদিন জ়িদান। বিশ্বজয়ী ফ্রান্সের প্রাক্তন মহাতারকার ক্লাব সেমিফাইনালে খেলবে ভ্যালেন্সিয়ার বিরুদ্ধে। লা লিগা ও কোপা দেল রে ধরে স্পেনের সেরা চার ক্লাব নিয়ে এই টুর্নামেন্টের আয়োজন। এ বারের প্রতিযোগিতা ৩৬ তম সংস্করণ। বাণিজ্যিক কারণে এ বার মধ্যপ্রাচ্যে খেলা হচ্ছে। 

বৃহস্পতিবার অন্য সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে লিয়োনেল মেসির বার্সেলোনা ও দিয়েগো সিমিয়োনের আতলেতিকো দে মাদ্রিদ। বার্সা ম্যানেজার আর্নেস্তো ভালভার্দে তাঁর ‘বি’ দলের ছ’জনকে নিয়ে জেড্ডায় খেলতে পৌঁছেছেন। এ দিকে, জ়িদান সাংবাদিক সম্মেলনও করলেন। ভ্যালেন্সিয়া ম্যাচের আগে কিংবদন্তি ফরাসি তারকাকে বলতে শোনা গেল, ‘‘আমরা এখানে বেড়াতে আসিনি।’’ যোগ করলেন, ‘‘সৌদি আরবে এই টুর্নামেন্ট এ বারই প্রথম হচ্ছে। জানি স্থানীয়দের মধ্যে সুপার কাপ নিয়ে মারাত্মক উৎসাহ রয়েছে। ওদের আনন্দ দেওয়াও লক্ষ্য। তবে আমার কাছে এই টুর্নামেন্ট যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। আশা করছি আমরা ভাল ফুটবলই খেলব। ভ্যালেন্সিয়াকে হারিয়ে শুধু ফাইনালে ওঠা নয়, চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। কারণ এখানে জিতলে দলের মনোবল অনেক ভাল জায়গায় চলে যাবে। তার সুফল অবশ্যই আমরা লা লিগাতে পাব।’’

এখানেই থামেননি রিয়াল মাদ্রিদকে তিন বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী করা ম্যানেজার। আরও বলেছেন, ‘‘এখানে সব কিছুই একটা ম্যাচের ব্যাপার। লা লিগায় খেলার মতো নয়। তা ছাড়া আমাদের মতো ভ্যালেন্সিয়াও বাইরের মাঠে খেলবে। তবে যেখানেই খেলি, আমাদের মানসিকতায় কোনও পরিবর্তন হবে না। জিতেই ফিরতে চাইবে ছেলেরা।’’

এ দিকে স্পেনের ফুটবল ফেডারেশন নিজেদের দেশে তোপের সামনে পড়েছে। সেখানকার মানবাধিকার সংস্থাগুলি সৌদি আরবে টুর্নামেন্ট করার প্রবল বিরোধী। তাদের বক্তব্য, সে দেশে না কি মানবাধিকার বারবার লঙ্ঘিত হয়েছে। তাই বিদেশে টুর্নামেন্ট করার এই উদ্যোগকে তারা সমর্থন করছে না। এ দিকে, জেড্ডায় কোনও টিকিট প্রায় অবিক্রিত নেই। খেলা হবে সেখানকার কিং আবদুল্লাহ স্টেডিয়ামে। যেখানে খেলা দেখতে পারেন ৬২ হাজার দর্শক। বৃহস্পতিবার এই স্টেডিয়ামেই মেসিরা মুখোমুখি হবেন আতলেতিকোর। ফাইনাল একদিন পরেই। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন