• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কুম্বলেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা না জানিয়ে ট্রোলড হলেন বিরাট

Virat-Kumble
তখন থেকেই শুরু খারাপ সম্পর্কের। —ফাইল চিত্র।

অনিল কুম্বলেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা না জানিয়ে সমালোচনার মুখে পড়তে হল ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালিকে। জন্মদিনের দিনই টুইট বিভ্রাটে মুখ লুকোতে হয়েছে বিসিসিআইকে। ঠিক বিভ্রাট না, সেই শুভেচ্ছাবার্তায় কুম্বলেকে শুধুই প্রাক্তন বোলার বলে সম্বোধন করা হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই টুইট ডিলিট করে দেয় বিসিসিআই। তা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। এ বার কুম্বলেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা না জানিয়ে ট্রোলড হলেন বিরাট কোহালি। সবাই শুভেচ্ছা জানালেও তিনি কুম্বলেকে কোনও শুভেচ্ছা জানাননি। গত বছর এই দিনে কুম্বলেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন বিরাট। তার পর থেকে আর সোশ্যাল মিডিয়ায় কুম্বলে প্রসঙ্গে কোনও বার্তা দেননি তিনি।

আরও পড়ুন

ভাইয়ের স্ত্রীকে নির্যাতনে যুবরাজেরও মদত?

কমিক চরিত্রে এ বার বইয়ের পাতায় সচিন

বিরাট না জানালেও প্রাক্তন কোচকে শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি চেতেশ্বর পূজারা, অজিঙ্ক রাহানে, ইশান্ত শর্মা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, কুলদীপ যাদব, যশপ্রীত বুমরাহরা। কুম্বলে যখন ভারতীয় দলের কোচের দায়িত্ব ছাড়েন তখন সব আঙুলই উঠেছিল বিরাট কোহালির দিকে। বলা হয়েছিল, অধিনায়কের সঙ্গে খারাপ সম্পর্কের জন্যই তাঁকে সরে যেতে হয়েছে। সেই সময়ই ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে হারের মুখ দেখতে হয়। তার পর সরে দাঁড়ান কুম্বলে। নিয়ে আসা হয় রবি শাস্ত্রীকে। কিন্তু সে সব এখন অতীত। এই শুভ দিনে প্রাক্তন কোচকে শুভেচ্ছা না জানানোয় টুইটারে কেউ প্রশ্ন তুলেছেন, ‘বিরাট কোহালির সময় রয়েছে অরিজিৎ সিংহর সঙ্গে দেখা করার।’ কেউ লিখেছেন, ‘বিরাট কোহালির ফুটবল খেলার সময় আছে, টিভি শো করার সময় রয়েছে কিন্তু কুম্বলেকে শুভেচ্ছা জানানোর সময় নেই।’ কেউ বলেছেন, ‘ইগো সরিয়ে রেখে কুম্বলেকে শুভেচ্ছা জানানো উচিত।’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন