• চেতন নারুলা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পূজারা ওপেন করুক, চান কোহলি

সেঞ্চুরির থেকে বোলারদের উইকেট নেওয়া বেশি তৃপ্তি দেয়

১)
কোহলির অভূতপূর্ব চেস্ট বাম্প।

Advertisement

পাঁচ নম্বর টেস্টে এসে অধিনায়ক কোহলির প্রথম জয়, তা-ও আবার সেটা বিদেশের মাঠে পেয়ে তাঁর প্রধান উপলব্ধি, ‘‘আমার বোলারদের কুড়িটা উইকেট তুলে নেওয়াটা আমাকে দলের ব্যাটসম্যানদের সেঞ্চুরি পাওয়ার চেয়ে বেশি আনন্দ দেয়!’’ ক্যাপ্টেন কোহলির এ দিন সাংবাদিক সম্মেলনের আরও একটা ক্যাচলাইন— ‘‘আমাদের কারও না কারও বড় রান পাওয়াটা অনেক দিন ধরেই তো চলে আসছে। যার তুলনায় বোলারদের কেসটার সংখ্যাটা কম।’’
পাঁচ বোলার নিয়ে আগ্রাসী ক্রিকেট, অধিনায়ক বিরাট কোহলির সেই অস্ট্রেলিয়া থেকেই ঘোষিত ইউএসপি। গলে তাঁর বোলাররা শ্রীলঙ্কার কুড়িটা উইকেট তুলে নিলেও টিম ইন্ডিয়ার মাত্র তিনটে সেশন খারাপ ক্রিকেটের জেরে হারতে হয়েছিল কোহলির ভারতকে। পি সারা ওভালেও কোহলির বোলাররা বিপক্ষের কুড়িটা উইকেট নিয়েছেন এবং এ বার ভারতই জিতেছে রেকর্ড ব্যবধানে।
স্বয়ং কোহলির কাছে যার ব্যাখ্যা, ‘‘এই টেস্টে শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে যে সেশনটায় ওদের আমরা টুঁটি টিপে ধরেছিলাম, সেটা ভারতীয় দলে থাকাকালীন আমার দেখা এখনও পর্যন্ত সেরা বোলিং সেশন। গত দু’বছরে খুব সহজেই এটাকে আমাদের সেরা বোলিং পারফরম্যান্স বলতে পারি। বিশেষ করে বোলিং জুটির ক্ষেত্রে। ব্যাটিংয়ে ভাল পার্টনারশিপ হওয়ার মতো বোলিংয়ের ক্ষেত্রেও পার্টনারশিপের কিন্তু দরকার সফল হওয়ার জন্য।’’
বল হাতে ইশান্ত-অশ্বিনদের যে মনোভাবটা তাঁদের অধিনায়কের সবচেয়ে ভাল লেগেছে সেটা হল, ‘‘আমাদের পুরো বোলিং লাইন আপ নিজেদের ভূমিকা ঠিকঠাক পালন করেছে। উইকেটের জন্য পাগল হয়ে মাথা খোঁড়েনি ওভালে।’’ কোহলি মনে করেন, ‘‘অ্যাডিলেড আর সদ্য সদ্য গলে জেতার কাছাকাছি এসেও সেটা না পারায় আজ পি সারা ওভালের জয়টা আরও আনন্দের।’’ তাঁর মতে, ‘‘একটা টেস্টের পনেরোটা সেশনের মধ্যে আপনি যদি ছ’টা জিততে পারেন তা হলে ম্যাচটাও সচরাচর জেতা সম্ভব।’’
কোহলি-মন্ত্র কি সেটাও আজ বলে দিলেন স্বয়ং ভারত অধিনায়ক। ‘‘আমাদের প্রধান লক্ষ্য, টেস্ট ম্যাচ জেতা। তার জন্য যদি কাউকে একটা ম্যাচে খেলিয়ে পরের ম্যাচেই বসিয়ে দেওয়া হয়, তা হলে বুঝতে হবে সেটা দলের আরও ভালর জন্যই।’’ আর এই জায়গা থেকেই ক্যাপ্টেন কোহলি সিরিজ নির্ণায়ক তৃতীয় তথা শেষ টেস্টের চার দিন আগেই প্রায় জানিয়ে দিলেন, চোটে বাকি সিরিজ থেকে মুরলী বিজয় ছিটকে যাওয়ায় এসএসসি-তে ভারতের ওপেনিং জুটি হবেন লোকেশ রাহুল-চেতেশ্বর পূজারা।

‘‘যদি পরের টেস্টে পূজারাকে দলের প্রয়োজনে ওপেন করতে বলা হয়, ও খুব খুশির সঙ্গে সেটা করবে। এবং এ রকমই বিশ্বাস আর আস্থা সতীর্থ অথবা ম্যানেজমেন্টের থেকে আমাদের কাম্য। আমি বিশ্বাস করি কোনও নিদিষ্ট ম্যাচে সেই ম্যাচের উপযুক্ত সেরা এগারোকেই খেলানো দরকার।’’ কেন সদ্য ‘এ দলের বেসরকারি টেস্টে সেঞ্চুরি করে আসা করুণ নায়ারের আগে পূজারা? কোহলিই উত্তর দেন, ‘‘পূজারা সলিড ব্যাট। উপমহাদেশে নতুন বলের বিরুদ্ধে ওপেন করেছে আগে। ভারতে গোটা কয়েক টেস্টে ওর ওপেন করার ব্যাপারটা আমার মনে আছে। সেটার থেকেই ওকে পরের টেস্টে ওপেন করানোর চিন্তাটা মাথায় এসেছে।’’  

 

ভারত

প্রথম ইনিংস ৩৯৩ ও দ্বিতীয় ইনিংস ৩২৫-৮ ডিঃ

শ্রীলঙ্কা

 প্রথম ইনিংস ৩০৬ ও দ্বিতীয় ইনিংস (আগের দিন ৭২-২)

করুণারত্নে বো অশ্বিন ৪৬

ম্যাথেউজ ক রাহুল বো উমেশ ২৩

চণ্ডিমল বো মিশ্র ১৫

থিরিমান্নে ক পূজারা (পরিবর্ত) বো অশ্বিন ১১

মুবারক ক কোহলি বো ইশান্ত ০

প্রসাদ ক মিশ্র বো অশ্বিন ০

হেরাথ অপরাজিত ৪

কৌশল এলবিডব্লিউ মিশ্র ৫

চামিরা এলবিডব্লিউ মিশ্র ৪

 

অতিরিক্ত ৭ 

মোট ১৩৪

পতন: ৩-৭২, ৪-৯১, ৫-১০৬, ৬-১১১, ৭-১১৪, ৮-১২৩, ৯-১২৮।

বোলিং: অশ্বিন ১৬-৬-৪২-৫, উমেশ ৭-১-১৮-১, ইশান্ত ১১-২-৪১-১, মিশ্র ৯.৪-৩-২৯-৩।

 

 

 

 

ছবি: এএফপি, রয়টার্স

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন