সাদা-নীল জার্সিতে তাঁরা ২৩ জন। জার্সির ওপরে যুদ্ধের পোশাক। হুঙ্কার দিচ্ছেন শত্রুদের উদ্দেশে। ‘সেনাপতি’র হাতে একটি ফুটবল। তীব্র দৃষ্টিতে তাঁরা তাকিয়ে সামনের দিকে। যেন শপথ নিয়েছেন কোনও অধরা স্বপ্ন পূরণ করার।

তাঁরা হলেন লিয়োনেল মেসি এবং তাঁর বাইশ আর্জেন্তাইন ফুটবলার।

মেসিদের অভিনব এই ছবি টাঙানো আছে রাশিয়ায় আর্জেন্তিনার শিবিরে। জানিয়েছে আর্জেন্তিনার প্রচারমাধ্যম। যে ছবি প্রতিটা মুহূর্তে যেন মেসিদের মনে করিয়ে দিচ্ছে, কী উদ্দেশে তাঁরা রাশিয়ায় এসেছেন। জানা গিয়েছে, আর্জেন্তিনার ফুটবলারদের উদ্বুদ্ধ করতেই এই ভাবনা। শনিবার রাতে স্পেন থেকে রাশিয়ায় এসেছে আর্জেন্তিনা। রবিবার মেসিরা নেমে পড়েন অনুশীলনে। বিশ্বকাপে মেসিদের প্রথম প্রতিপক্ষ আইসল্যান্ডও নেমে পড়েছে অনুশীলনে। মেসিদের মতো আইসল্যান্ডের ফুটবলাররাও শনিবার রাতে এসে পড়েন রাশিয়ায়। রবিবার ছিল প্রথম অনুশীলন। তবে বাকিদের থেকে আইসল্যান্ডের অনুশীলনের ছবিটা একটু আলাদা। অনুশীলনের সময় মাঠে প্রবেশ করার অনুমতি দিয়েছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। ফলে দেখা যায়, আইসল্যান্ডের অনুশীলন দেখতেই প্রচুর মানুষ এসেছেন। অনুশীলনের জন্য যে মাঠ বেছেছে আইসল্যান্ড, তাতে দেড় হাজার লোক ধরে। অনুশীলনের সময় তা অনেকটাই ভরে গিয়েছিল। তবে এই ‘ভক্তদের’ মধ্যে কিন্তু বেশির ভাগই রাশিয়ার মানুষ। জানা গিয়েছে, আইসল্যান্ড থেকে এখনও রাশিয়ায় এসে পৌঁছতে পারেনি সে দেশের সমর্থকেরা। আইসল্যান্ড ফুটবল সংস্থার প্রধান ম্যাগনাস গিলফাসন বলেছেন, ‘‘আমরা কিন্তু অনেক রকম ভাবে বিপক্ষকে চমকে দিতে পারি।’’