বিশ্বকাপে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোয় উঠলেও শেষ ম্যাচে নিজেদের খেলায় সন্তুষ্ট নয় স্পেন।

মরক্কোর বিরুদ্ধে সোমবার ২-২ ড্র করেন সের্খিও র‌্যামোসরা। তবে ম্যাচে দু’বারই স্পেন পিছিয়ে গিয়েছিল। ম্যাচের একেবারে শেষ দিকে ইয়াগো আসপাস গোল করে স্পেনের হার আটকে দেন। এই পারফরম্যান্স খুশি করতে পারছে না র‌্যামোসকে। তিনি বলেন, ‘‘ম্যাচটায় বেশ কিছু মুহূর্ত খুব অস্বস্তিকর ছিল। আমরা গ্রুপে প্রথম হয়ে উঠেছি ঠিকই। সেটাই আমাদের লক্ষ্য ছিল। ম্যাচটা কিন্তু আমরা ভাল খেলতে পারিনি।’’ তিনি আরও বলেছেন, ‘‘প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত আমাদের আত্মসমালোচনা করতে হবে। আমাদের এই মনোভাবটা পাল্টাতে হবে। তবে এটাও বলে রাখি, সমালোচনার চোখে দেখলেও আমাদের কিন্তু বেশি নেতিবাচক হলে চলবে না।’’

সব চেয়ে বেশি চিন্তার কারণ হতে পারে স্পেনের রক্ষণ। র‌্যামোস নিজেই মরক্কোর বিরুদ্ধে প্রথম গোল খাওয়ার ক্ষেত্রে আংশিক ভাবে দায়ী। ‘‘মরক্কোর মতো এমন একটা আক্রমণাত্মক দলের বিরুদ্ধে আমাদের আরও সতর্ক থাকা উচিত ছিল। ওখানেই পার্থক্য হয়ে যায়। ভুলের কোনও জায়গা নেই। এর পরে এ রকম কোনও ভুল করলে বিশ্বকাপ থেকে কিন্তু ছিটকে যেতে হতে পারে,’’ বলেন র‌্যামোস। স্পেনের প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে লড়াই রাশিয়ার বিরুদ্ধে। আয়োজক দেশের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জটা সোজা হবে না মনে করছেন স্পেনের অধিনায়ক। ‘‘জয়টা সোজা হবে না। তবে আশা করি আমরা দুরন্ত ভাবে ওদের হারাতে পারব। খুব ভাল খেলছে রাশিয়া। আমাদেরও নিজেদের ক্ষমতা দেখিয়ে দিতে হবে। আশা করি সেটা পারব আমরা।’’