Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

অল্পের জন্য বিশ্বকাপের জার্সি অধরা

ঘরের মাঠ বলে চাপটা মারাত্মক থাকবে, বলছেন ব্রাজিলীয় তরুণ

তানিয়া রায়
কলকাতা ১৩ মে ২০১৪ ০৩:৩১
হফেনহেইমের ফুটবলারদের সঙ্গে ব্যারেটোদের আড্ডা। সোমবার।

হফেনহেইমের ফুটবলারদের সঙ্গে ব্যারেটোদের আড্ডা। সোমবার।

স্কোলারিকে তিনি খুব কাছ থেকে দেখেছেন। ব্রাজিল টিমের সঙ্গে রীতিমতো অনুশীলন করেছেন। তবে ২২ বছরের রবার্তো ফির্মিনো ভাগ্যের শিকে এ বার ছেড়েনি। স্কোলারির বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি তাঁর। তবে এতে কোনও আফসোস নেই রবার্তোর। বরং ব্রাজিল টিমের সঙ্গে কিছু দিন প্র্যাকটিস করার অভিজ্ঞতা থেকে রবার্তো বলে দিলেন, “ঘরের মাঠে মারাত্মক চাপ থাকবে ব্রাজিলের। তবে স্কোলারির মতো অভিজ্ঞ কোচ জানেন কী ভাবে সেই চাপ কাটাতে হয়।”

রবার্তো এই মুহূর্তে বুন্দেশলিগায় খেলা টিম হফেনহেইমের তারকা ফুটবলার। এই মুহূর্তে একটি প্রদর্শনী ম্যাচ খেলতে আইজল যাওয়ার পথে সোমবার দিনটা শহরে কাটাল হফেনহাইম। দীর্ঘ বিমান যাত্রার ধকলে ক্লান্ত রবার্তো অবশ্য প্রথমে কথা বলতেই চাইছিলেন না। তবে ব্রাজিলের প্রসঙ্গ উঠতে আর চুপ থাকতে পারলেন না। ইংরেজি বোঝেন না। তবে দোভাষীর সাহায্য নিয়ে বলছিলেন, “পাঁচ সপ্তাহ আগে স্কোলারি স্যার আমাকে ট্রায়ালের জন্য ডেকেছিলেন। পরে তিনি আশ্বস্ত করে বলেছেন, এ বার বিশ্বকাপ স্কোয়াডে না রাখতে পারলেও ভবিষ্যতে ব্রাজিল টিমে আমাকে ডাকা হবে।” ২০১৩-১৪ বুন্দেশলিগায় ভাল ফল করেনি হফেনহেইম। ৯ নম্বরে শেষ করেছিল তারা। তবে দলগত সর্বোচ্চ গোলের বিচারে বাকি সবাইকে পিছনে ফেলে তিনে ছিল জার্মানির এই টিমটি। বায়ার্ন মিউনিখ, বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের ঠিক পরেই। মোট ৭২ টি গোলের মধ্যে অর্ধেকের বেশি গোল হয়েছিল রবার্তোর সাহায্যেই। এ বছর বুন্দেশলিগায় মোট ৩৩টি ম্যাচে ১৬টি গোল করেছেন রবার্তো নিজে। ২০১১ সাল থেকে হফেনহেইমে খেলছেন তিনি। এই মুহূর্তে জার্মানির ক্লাবটির মাঝ-মাঠের প্রধান ভরসা ব্রাজিলের এই অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার।


রবার্তো ফির্মিনো

Advertisement



বিশ্বকাপ নিয়ে ব্রাজিলে এখনও তুমুল গণ্ডগোল চলছে। সেই উত্তেজনা নাকি এখন রাজনৈতিক মোড়ও নিয়েছে। এই উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়াটা স্কোলারির টিমের কাছে বড় চ্যালেঞ্জের বলে মনে করেন রবার্তো। “ব্রাজিলে যে ভাবে গণ্ডগোল চলছে, এটা কিন্তু একটা বড় চাপ হবে স্কোলারির টিমের কাছে। তবে এই পরিস্থিতিতে ব্রাজিল বিশ্বকাপ জিতে গেলে নিঃসন্দেহে একটা অক্সিজেন পাওয়া যাবে।”

আজ মঙ্গলবার সকালেই আইজলে উড়ে যাচ্ছে হফেনহেইম। সন্তোষ ট্রফি চ্যাম্পিয়ন মিজোরামের টিমের সঙ্গে একটি প্রদর্শনী ম্যাচ খেলবেন রবার্তোরা। তার পর বুধবারই ফিরে আসবেন শহরে। কলকাতা ঘুরে দেখার পাশাপাশি বুধবার বিকেলে একটি ফুটবল ক্লিনিকে অংশ নেবেন রবার্তো। কলকাতা কাপ থেকে উঠে আসা প্রতিভাবান ফুটবলারদের বিশেষ ক্লাস নেওয়ার কথা তাঁর।

ছবি: উৎপল সরকার

আরও পড়ুন

Advertisement