Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ম্যাচ ফিক্সিং থেকে বর্ণবিদ্বেষ, ঘানাকে নিয়ে তুলকালাম

‘ফুটবলারদের শেষ করার চক্রান্ত’

চলতি বিশ্বকাপে পরপর অঘটনে যখন তোলপাড় ফুটবলবিশ্ব, তখনই ইংল্যান্ডে এক স্টিং অপারেশনে উঠে এল গড়াপেটা চেষ্টার এক চাঞ্চল্যকর অভিযোগ। যার কেন্দ্রে

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৪ জুন ২০১৪ ০৫:৪৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

চলতি বিশ্বকাপে পরপর অঘটনে যখন তোলপাড় ফুটবলবিশ্ব, তখনই ইংল্যান্ডে এক স্টিং অপারেশনে উঠে এল গড়াপেটা চেষ্টার এক চাঞ্চল্যকর অভিযোগ। যার কেন্দ্রে রয়েছে বিশ্বকাপে সাড়া ফেলে দেওয়া আফ্রিকান শক্তি ঘানা।

অভিযোগ উঠেছে, ম্যাচ গড়াপেটার প্রস্তাব নিয়ে ঘানার ফুটবলারদের কাছে এসেছিল দুই ব্যক্তি। এক জন ফিফার এক এজেন্ট, অন্য জন ঘানার এক ক্লাব কর্তা। সে দেশের একটি ম্যাচ গড়াপেটা করতে চেয়েছিল তারা। স্টিং অপারেশনে উঠে এল এই তথ্য। ঘানার ফুটবল সংস্থা জিএফএ অবশ্য এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে জানিয়েছে, তাদের বিশ্বকাপ দলের কোনও ফুটবলারের কাছে এমন প্রস্তাব আসেনি। উল্টে তারা পুলিশকে এই ঘটনার তদন্তের অনুরোধ জানিয়েছে। এমনকী যে চ্যানেলে ও সংবাদপত্র এই স্টিং অপারেশন চালিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে মামলার হুমকিও দিয়েছেন সংস্থার প্রেসিডেন্ট কোয়েশি নিয়ানটাকি।

ইংল্যান্ডের ‘দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফ’ ও চ্যানেল ফোর-এর স্টিং অপারেশন দেখায়, ফিফার এক লাইসেন্সড এজেন্ট ক্রিস্টোফার ফোরসিথ ও ঘানার এক ক্লাব কর্তা ও অনূর্ধ্ব ২০ দলের ম্যানেজার ওবেদ নকেটিয়া বলছেন, তাঁরা ঘানার দু’টি ম্যাচ গড়াপেটা করার জন্য ম্যাচপ্রতি এক লক্ষ পাউন্ড পর্যন্ত ঢালতে রাজি। নিজেরাই সেই ম্যাচের রেফারি বাছাই করে তাদের দিয়ে ম্যাচের ফল আগে থেকেই ঠিক করার পরিকল্পনা ছিল এই দু’জনের।

Advertisement

তবে সেগুলি বিশ্বকাপের ম্যাচ নয়। বিশ্বকাপের পর দু’টি প্রদর্শনী ম্যাচ। দাবি করা হয়েছে, মায়ামিতে ঘানার বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শিবিরেও ওই দুই ব্যক্তি হানা দিয়েছিল এই দুই ম্যাচ নিয়ে কথাবার্তা বলতে। ঘানা ফুটবল সংস্থার প্রেসিডেন্ট নিয়ানটাকি না কি সেই প্রস্তাবে রাজিও হয়ে যান। যদিও বিবিসি-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তা অস্বীকার করেছেন তিনি।

অভিযোগ উঠেছে, নিয়ানটাকি সেই ছদ্মবেশী সাংবাদিককে বলেছিলেন, দু’টি প্রস্তাবিত ‘ফিক্সড’ ম্যাচের চুক্তিপত্র দেখে তিনি খুশি। পরে বিস্মিত নিয়ানটাকি বলেন, “আমি ওই চুক্তিপত্র দেখিইনি। ওরা বলেছিল ম্যাচটা কোনও বিনিয়োগ সংস্থা স্পনসর করতে চায় ও ফিফার এক এজেন্ট ম্যাচ দুটোর আয়োজন করবে। আমি ওই চুক্তিপত্রগুলো আমাদের সংস্থার আইনজীবীদের খুঁটিয়ে পড়ার জন্য দিই।” রবিবার এই স্টিং অপারেশনের সম্প্রচার হওয়ার পর জিএফএ তাদের দেশের পুলিশকে এই ঘটনার তদন্তের অনুরোধ জানায়। যে দুই ব্যক্তিকে নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, সেই দুই ব্যক্তিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। নকেটিয়া বলেছেন, “এমন কাজ করতেই আমি পারি না। সম্পুর্ণ মিথ্যা অভিযোগ।” ফরসিথ বলেন, “আমি আমার এক কল্পনার কথা সে দিন বলেছিলাম। জানিই না ঠিক কী ভাবে এগুলো করা যায়।”

জার্মানির সঙ্গে ড্র করার পর ঘানার প্রশংসার পাশাপাশি প্রশ্নও উঠেছিল। ২০১০-এর বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে গড়াপেটা হয়েছিল বলেও অভিযোগ উঠেছিল। তবে ফিফা কর্তারা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, এ বার তেমন কোনও সমস্যা নেই। রবিবার পর্তুগালের ড্রয়ের পর ঘানার শেষ ষোলোয় ওঠার একটা ক্ষীণ সম্ভাবনা রয়েছে। তাদের শেষ ম্যাচ পর্তুগালের বিরুদ্ধে। পাল্টা অভিযোগ উঠেছে, সেই ম্যাচের আগে ঘানার ফুটবলারদের ফোকাস নষ্ট করার জন্যই এমন কাণ্ড ঘটানো হচ্ছে। খোদ জিএফএ প্রেসিডেন্ট এই অভিযোগ করে বলেছেন, “ঘানার কষ্টার্জিত সম্মান নষ্ট করার জন্য কিছু লোক উঠে পড়ে লেগেছে। সে জন্যই এই চক্রান্ত। আমাদের গায়ে কালি ছিটিয়ে ঘানার ফুটবলকে শেষ করে দেওয়ার চক্রান্ত হচ্ছে।”



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement