Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

গেইল নয়, ছন্দ ধরে রাখার যুদ্ধটাই আসল

ক্রিস গেইল বনাম ভারতীয় পেস বোলিং। রোহিত শর্মা বনাম ক্যারিবিয়ান পেস আক্রমণ। ডেথ ওভার বনাম ভারতীয় পেস বোলিং। পারথে শুক্রবার ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ

দীপ দাশগুপ্ত
০৬ মার্চ ২০১৫ ০২:৩৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
অটোগ্রাফ বিলোলেন কোহলি। ফুটবলে মন গেইলের। ম্যাচের আগের দিন। ছবি: এএফপি।

অটোগ্রাফ বিলোলেন কোহলি। ফুটবলে মন গেইলের। ম্যাচের আগের দিন। ছবি: এএফপি।

Popup Close

ক্রিস গেইল বনাম ভারতীয় পেস বোলিং।

রোহিত শর্মা বনাম ক্যারিবিয়ান পেস আক্রমণ।

ডেথ ওভার বনাম ভারতীয় পেস বোলিং।

Advertisement

পারথে শুক্রবার ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ থেকে যদি আগাম কয়েকটা যুদ্ধের জায়গা খুঁজতে হয়, এই তিনটে। ক্রিস গেইলকে কতটা উমেশ যাদব, মোহিত শর্মারা বাড়তে দেবে সেটা একটা প্রশ্ন। আর প্রশ্ন, ক্যারিবিয়ান বোলিংয়ের বিরুদ্ধে রোহিত শর্মা ফর্মে ফিরবে কি না। আর শেষ প্রশ্ন হল, ভারতের ডেথ ওভার বোলিং। বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত যার পরীক্ষায় পড়তে হয়নি ভারতীয় বোলিংকে। শুক্রবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ আগে ব্যাট করলে পড়তে হতেও পারে।

কিন্তু এর একটাও নয়। দোলের পরের দিন পারথে ভারত সবচেয়ে বড় যে পরীক্ষাটার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে, সেটা হল মোমেন্টামের। ছন্দের। এই বিশ্বকাপ দেখেছে ছন্দ হারিয়ে ফেললে অস্ট্রেলিয়ার মতো টিমেরও কতটা অসুবিধে হয়। দু’সপ্তাহ পর নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে নেমে ওরা তো হেরেই গেল। ভারতও প্রায় এক সপ্তাহ পরপর ম্যাচ খেলতে নামছে। ছন্দের সমস্যা ধোনিদেরও কিন্তু হতে পারে।



বিশ্বকাপে ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
সবিস্তার জানতে ক্লিক করুন।

ব্যাপারটার উপর বেশি জোর দেওয়ার একটা কারণ আছে। গ্রুপ লিগ এখন প্রায় শেষ ল্যাপে ঢুকে পড়েছে। এখন একটা ম্যাচে পিছলে যাওয়া মানে টেবলে পজিশন এ দিক ও দিক হয়ে যাওয়া। ভারত এখন এক নম্বরে। হিসেব মতো ভারতের কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ড বা শ্রীলঙ্কাকে পাওয়া উচিত। কিন্তু দুম করে যদি একটা ম্যাচ ধোনিরা হেরে যায়, যদি দু’নম্বরে শেষ করে আচমকা অস্ট্রেলিয়া বা নিউজিল্যান্ডের সামনে পড়ে যাবে না, কে বলতে পারে? আর পড়লে সেই ম্যাচটা যে চরম কঠিন হবে, বলাই বাহুল্য। সে কারণেই ছন্দটা এখানে জরুরি। ভারত এখনও পর্যন্ত তিনটে ম্যাচ দাপটে খেলেছে। পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দিয়েছে। আরব আমিরশাহি ম্যাচটায় দেখে একটা সময় মনে হচ্ছিল ততটা ঝাঁঝ বার হচ্ছে না। কিন্তু পরে দেখলাম হল। দাপটেই ম্যাচটা জিতল। যে দাপটটা পরের ম্যাচগুলোতেও ধরে রাখতে হবে। আর যার এক নম্বর বাধা ওয়েস্ট ইন্ডিজ।



আজ যা দেখা যেতে পারে।
সবিস্তার জানতে ক্লিক করুন।

এই ক্যারিবিয়ান টিমটা ওয়ান ডে ক্রিকেটের ভারতের মতো দুর্ধর্ষ নয় ঠিকই, কিন্তু ভাল টিম। এমন কিছু প্লেয়ার আছে, যাদের এক বার ব্যাট-বলে হতে থাকলে শেষ করে দেবে। শুরুর দিকে ক্রিস গেইল একজন। ডেথ ওভার্সে ঢুকলে ডারেন স্যামি বা আন্দ্রে রাসেলও ফ্যাক্টর হতে পারে। ওরা বিগ হিটার। তা ছাড়া ডেথ ওভার্সে ভারতীয় বোলিং এখনও তেমন চ্যালেঞ্জে পড়েনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচে যদি পড়ে, কী হয় না হয় দেখার ইচ্ছে আছে। তবে এটাও ঠিক, গত তিনটে ম্যাচে ভারতকে প্রায় নিখুঁত দেখিয়েছে। যেমন ব্যাটিং, তেমন বোলিং। খুচখাচ দু’একটা জায়গা আছে যেগুলো মনে করি নক আউটে ঢোকার আগে দেখে নেওয়া ভাল। রোহিতের ফর্মটা ফেরা দরকার। এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপ ওর ভাল যায়নি। আর দ্বিতীয়ত, ধোনি-জাডেজার আর একটু ব্যাট করা দরকার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওপেনাররা যদি ভারতকে বড় রানের একটা মঞ্চ প্রথমেই দেয়, তা হলে ধোনি-জাডেজা ব্যাটিং অর্ডারের উপরে এসে ফর্মটা একটু ঝালিয়ে নিলে পারে।

মোটামুটি এই। প্রথমে যা বললাম, সেটাই আবার বলব। শুক্রবার গেইল নয়, ছন্দ ধরে রাখাটাই আসল যুদ্ধ ভারতের।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement