Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

এলএম টেনের বিরুদ্ধে অপরাজিত গোলকিপারের হুঙ্কার

মেসিকে এতটাই চিনি, ওর খেলার ভিডিও-ও দেখি না

আছে কুর্তোয়া, মেসিতে কী ভয়! আর্জেন্তিনীয় জিনিয়াসের সামনে পড়ে শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে টিম বেলজিয়ামের হয়তো এটাই জপমন্ত্র হবে! আর নিজেদের গো

নিজস্ব প্রতিবেদন
০৪ জুলাই ২০১৪ ০৩:৩২
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

আছে কুর্তোয়া, মেসিতে কী ভয়!

আর্জেন্তিনীয় জিনিয়াসের সামনে পড়ে শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে টিম বেলজিয়ামের হয়তো এটাই জপমন্ত্র হবে! আর নিজেদের গোলপোস্টের দিকে বোধহয় বারবার চোখ চলে যাবে রেড ডেভিলদের!

কারণ, মেসি-যুদ্ধে বেলজিয়াম গোলের নীচে যে থাকছেন থিবাউ কুর্তোয়া। গোলমেশিন এলএম টেন বিশ্ব জুড়ে গোলকিপারদের হার মানালেও একমাত্র যাঁকে একবারও পরাস্ত করতে পারেননি গোটা গত মরসুমে! বিশ্বকাপে এ বার এমনিতেই গোলকিপারদের মারকাটারি পারফরম্যান্স। তার মধ্যে কুর্তোয়ার বিরুদ্ধে লিও মেসির এহেন ট্র্যাক রেকর্ড আর্জেন্তিনা ড্রেসিংরুমে আরও দুশ্চিন্তা ডেকে আনতে পারে। ফুটবলমহলে যে কীর্তির নামকরণ হয়েছে— ‘থিবাউটিং’।

Advertisement

মেসি আর কুর্তোয়া, দু’জনই স্প্যানিশ লিগ তারকা। বার্সেলোনার প্রাণভোমরা মেসি। আর আটলেটিকো মাদ্রিদের শেষ প্রহরী কুর্তোয়া। গত মরসুমে (২০১৩-১৪) তাঁদের দু’দল মোট ছ’বার মুখোমুখি হয়েছিল। তিনটে টুর্নামেন্ট— স্প্যানিশ সুপার কাপ, লা লিগা এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিলিয়ে। কিন্তু সেই হাফডজন ম্যাচে আটলেটিকো-জালে একবারও বল ঢোকাতে পারেননি মেসি। চার বারের ব্যালন ডি’অর জয়ীর বিরুদ্ধে মুখোমুখি লড়াইয়ে গত মরসুমে একবারও পরাস্ত হননি ফিফার বিচারে বিশ্বসেরা তরুণ গোলকিপার কুর্তোয়া। এই ছ’ম্যাচের পাঁচটাই ড্র হয়েছে। অন্যটা ১-০ জিতেছে আটলেটিকো মাদ্রিদ। পাঁচটা ড্র ম্যাচের তিনটের স্কোরলাইন ১-১ হলেও বার্সেলোনার সেই তিন গোলের একটাও মেসির নয়। বরং সেই তিন গোলের দু’টো করেছিলেন বিশ্বকাপে মেসির প্রধান শত্রু ব্রাজিলের মহানায়ক নেইমার। একটা আলেক্সি সাঞ্চেজ।

ব্যাকড্রপে উজ্জ্বল এই রেকর্ডকে রেখেই বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালের আটচল্লিশ ঘণ্টা আগে বেলজিয়ান কিপার প্রায় হুঙ্কার ছেড়েছেন ফুটবলের রাজপুত্রের বিরুদ্ধেও! “মেসিকে আমি খুব ভাল চিনি। ওকে এতটাই বেশি চিনি যে, আমি অন্য অনেক ফরোয়ার্ডের ভিডিও দেখলেও মেসির খেলার ভিডিও দেখি না। বার্সেলোনার বিরুদ্ধে আটলেটিকোর গোলের নীচে দাঁড়িয়ে মেসিকে তো কম দেখিনি! কম বার তো আটকাইনি! সে জন্য এ বার দেশের জার্সিতে ওর সঙ্গে লড়তে ভালই লাগবে,” বলেছেন বাইশ বছরের কুর্তোয়া।



হোসে মোরিনহোর ডাকে এ মরসুমে পুরনো ক্লাব চেলসিতে কুর্তোয়া সত্যিই ফিরে গেলে শুক্রবারই আপাতত তাঁর সঙ্গে মেসির শেষ টক্কর। এর পর একমাত্র চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ছাড়া তাঁদের মুখোমুখি হওয়ার কোনও সুযোগ থাকবে না। আপাতত শেষ যুদ্ধে কুর্তোয়ার আশা মেসির বিরুদ্ধে তিনি নিজের ‘ক্লিনশিট’ অক্ষত রেখে মাঠ ছাড়বেন! “আশা করি, আর্জেন্তিনাকে আমরা হারাব। আর মেসি আমাকে ক্লাবের মতো দেশের জার্সিতেও গোল দিতে পারবে না। সব মিলিয়েই এ মরসুমটা আমি ওর বিরুদ্ধে অপরাজিত থাকব।”

কিন্তু মেসির বিরুদ্ধে কুর্তোয়ার অপরাজিত থাকার রেসিপি কী? বেলজিয়ান গোলকিপার নিজেই জবাব দিচ্ছেন, “মেসির খেলা এতটাই সিস্টেমের বাইরে, ও এতটাই জিনিয়াস যে, ওর খেলার ভিডিও দেখে লাভ নেই। ভিডিও দেখেও পরিষ্কার বোঝা সম্ভব নয় যে, পরের ডজটা, পরের বডি ফেইন্টটা মেসি কী করবে? সে জন্য ওর বিরুদ্ধে গোলকিপারকে প্রতিটা সেকেন্ডে একশো ভাগ প্রস্তুত থাকতে হয়। সম্পূর্ণ মনঃসংযোগ রাখতে হয়। গোলকিপার এক সেকেন্ডের জন্য অন্যমনস্ক হলেও মেসি গোল করে দেবে। আমি সেই এক সেকেন্ডটা আমার মধ্যে আসতে দিই না।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement