Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২

বিরাট, এটা হচ্ছেটা কী

আমার ছেলে অস্টিনের বয়স এখন পনেরো। ক্রিকেট অসম্ভব উপভোগ করে। খেলাটায় কোথায় কী হচ্ছে, সব খবর রাখে। যদি বলা হয়, কার টেকনিক অস্টিন রোল মডেল করবে, তা হলে চোখ বুজে বলব বিরাট কোহলি। এই মুহূর্তে ক্রিকেটের সব ফর্ম্যাটে ভারতের তরুণ তুর্কিকে সেরা বাছব। এ বার অস্ট্রেলিয়ায় পা রাখা ইস্তক যা কিছু করেছে তার সবই একেবারে ঠিকঠাক। কিন্তু মঙ্গলবার মিডিয়ার সঙ্গে যেটা ঘটাল, সেখানে ওর কাছে আর একটু পরিণত আচরণ আশা করেছিলাম।

মধ্যমণি বিরাট। পারথে ভারতীয় দূতাবাসে এক অনুষ্ঠানে। বুধবার। ছবি: ফেসবুক।

মধ্যমণি বিরাট। পারথে ভারতীয় দূতাবাসে এক অনুষ্ঠানে। বুধবার। ছবি: ফেসবুক।

স্টিভ ওয়
শেষ আপডেট: ০৫ মার্চ ২০১৫ ০৩:৫৯
Share: Save:

আমার ছেলে অস্টিনের বয়স এখন পনেরো। ক্রিকেট অসম্ভব উপভোগ করে। খেলাটায় কোথায় কী হচ্ছে, সব খবর রাখে। যদি বলা হয়, কার টেকনিক অস্টিন রোল মডেল করবে, তা হলে চোখ বুজে বলব বিরাট কোহলি। এই মুহূর্তে ক্রিকেটের সব ফর্ম্যাটে ভারতের তরুণ তুর্কিকে সেরা বাছব। এ বার অস্ট্রেলিয়ায় পা রাখা ইস্তক যা কিছু করেছে তার সবই একেবারে ঠিকঠাক। কিন্তু মঙ্গলবার মিডিয়ার সঙ্গে যেটা ঘটাল, সেখানে ওর কাছে আর একটু পরিণত আচরণ আশা করেছিলাম।

Advertisement

মিডিয়া মিডিয়ার কাজ করবে। সাংবাদিকদের প্রত্যেকের নিজস্ব মতামতও থাকতে পারে। তার সঙ্গে আমার ভাবনা মিলবে এমন কোনও কথা নেই। সে সব পড়ে মাথা গরম করার মানে হয় না। কোহলি অসম্ভব ভাল ক্রিকেটার। নতুনদের প্রেরণা। ওর মতো এক জন ছ’মাস আগে বেরোনো একটা খবর নিয়ে সাংবাদিকের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়ে পড়বে, সত্যি ভাবা যায় না। আমি নিশ্চিত বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিরাট নিজেকে আরও পরিণত করবে। এটাও বুঝবে, এত বড় আর ঘটনাবহুল পৃথিবীতে এগুলো নিছকই তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করার মতো বিষয়।

এমনিতে কোহলিরা প্রথম তিন ম্যাচেই প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে কাল ক্যারিবিয়ানদের মুখোমুখি হচ্ছে। বিশ্বকাপের ঠিক আগেই অস্ট্রেলিয়া সিরিজের পরিপ্রেক্ষিতে ওদের নিয়ে যথেষ্ট সংশয় ছিল। কিন্তু প্রথম তিন ম্যাচ কার্যত নিরুত্তাপ আর দাপুটে মেজাজে ভারত বের করেছে। ধোনিদের কাছেও এটা ড্রেসিংরুমে হঠাৎ বদলে যাওয়া পরিবেশ। হয়তো অস্ট্রেলিয়া সিরিজের হতাশা কাটিয়ে উঠতেই টিমটা প্রথম ম্যাচ থেকে ক্ষুধার্ত ছিল। কালও থাকবে। তা বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে খাটো করছি না। অপ্রত্যাশিত ঘটনা ঘটাতে ওদের জুড়ি নেই। কিন্তু কালও ভারত আগের তিন ম্যাচের মতো খেললে আমি তো ৪-০ দেখছি। এবং এখানেও ধোনির আসল শক্তি হল ব্যাটিং। এই বিশ্বকাপ সেটাই দেখছে। তার উপর ক্যারিবিয়ান বোলিং যথেষ্ট অনভিজ্ঞ। আশা করা যায় কালও ভারতের ব্যাট ওদের উপর স্টিমরোলার চালাবে।

এ দিকে অস্ট্রেলিয়া বুধবার আফগান বোলারদের পিটিয়ে ৪০০-র উপর তুলে ফেলল। আশা করব এই স্কোর টিমটায় নতুন প্রাণসঞ্চার করবে। নিউজিল্যান্ড ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে অস্ট্রেলিয়াই মনে হচ্ছিল না। কারও ব্যাটিংয়ে ভাবনাচিন্তার লেশমাত্র দেখতে পাইনি। আফগানদের বিরুদ্ধে তো শেন ওয়াটসনকে বাদই দিয়ে দিল। দেখে নিতে চাইল জেমস ফকনার কতটা কী করে। এবং বুধবার পারথের ম্যাচের পরে মনে হয় না ক্লার্ক আর শেনের কথা ভাববে। উল্টে ফকনার-মিচেলের তরুণ জুটিকেই খেলিয়ে যাবে। যাতে করে ক্রমশ ওরা আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠে।

Advertisement

সব শেষে ডেভিড ওয়ার্নারের দেড়শোর উপর রান করা প্রসঙ্গ। গত বছরও তো দেখেছি এই ধরনের আরও কিছু ওয়ান ডে দেড়শো। ক্রিকেটের নিয়ম পাল্টেছে। সার্কেলের মধ্যে একজন অতিরিক্ত ফিল্ডার থাকছে। বেড়েছে পাওয়ার প্লে-র ওভারও। সঙ্গে ফ্রি-হিট। স্বভাবতই ব্যাটসম্যানরা নিশ্চিন্তে, নির্ভয়ে তুলে তুলে মারছে। চার দিকে এখন শুধু ব্যাটসম্যান রাজ। যে পরিস্থিতিতে নিউজিল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচটা বিরল আর বিস্ময়কর।

অভিযোগ আইসিসি এবং বোর্ডের কাছে

আগুন নেভার সম্ভাবনা তো নেই-ই, বরং ঘণ্টাপিছু সেটা যেন বাড়ছে!

পারথে মঙ্গলবার সর্বভারতীয় দৈনিকের এক সাংবাদিককে অকথ্য গালিগালাজ করে বসেন বিরাট কোহলি। ভুল করে তাঁকে আর এক সাংবাদিকের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলে। কারণ সেই সাংবাদিক বিরাট-অনুষ্কাকে নিয়ে একটা রিপোর্ট লিখেছিলেন, যা ভারতের সহ-অধিনায়কের মোটেও পছন্দ হয়নি। বুধবার ‘নিগৃহীত’ সাংবাদিক পাল্টা দিলেন। ভারতের এক নম্বর ব্যাটসম্যানের আচরণের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র পাঠালেন ভারতীয় বোর্ড এবং আইসিসিকে। শুধু তাই নয়, অস্ট্রেলিয়ায় বসে এমন আচরণ করে বিরাট সে দেশের আইন ভেঙেছেন কি না, সেটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দেখা হচ্ছে, বিরাটের বিরুদ্ধে কোনও আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যায় কি না!

ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট আবার যতটা পারছে, ব্যাপারটার গুরুত্ব কমানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে। বলা হচ্ছে, বিরাট ভুল করে এটা করে ফেলেছেন। সরাসরি না চাইলেও, আর এক সাংবাদিক মারফত ক্ষমা চেয়েছেন ‘নিগৃহীত’ সাংবাদিকের কাছে। ভুল বোঝাবুঝি থেকে ব্যাপারটা হয়েছে। আর তাই সেটা এখানেই শেষ করে ফেলা ভাল। বোর্ডের নতুন সচিব অনুরাগ ঠাকুর বলেছেন, “বিরাট ব্যাপারটা নিয়ে যা বলার বলেছে। ভারতের জন্য এই বিশ্বকাপটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের উচিত এ সব ঝামেলা বাদ দেওয়া। আর সরাসরি না বললেও ও তো বলেছে যে ভুল বুঝেছে ও। ব্যাপারটাকে এখানেই শেষ করা ভাল।” তবে বোর্ড সচিব এটাও মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, এ সব ঘটনাকে যতটা এড়িয়ে যাওয়া যায়, তত ভাল। “ভবিষ্যতে এ সব ঝামেলা এড়াতে হবে। প্লেয়ারদের সঙ্গে এখনও কথাবার্তা হয়নি আমার। ওখানে টিম ম্যানেজমেন্ট আছে। প্লেয়ারদের নিয়ে ব্যাপারস্যাপার ওরাই দেখছে,” আরও বলেছেন ঠাকুর।

ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট আবার এ দিন এক বিবৃতি মারফত জানিয়েছে যে, ভুল বোঝাবুঝি থেকে ব্যাপারটা হয়েছে। কিন্তু অশ্রাব্য গালিগালাজ বা খারাপ ভাষা ব্যবহার কিছুই করা হয়নি। আর বিরাট ব্যাপারটার পরপরই মিডিয়ার ওই প্রতিনিধির সঙ্গে কথা বলে নিয়েছেন। কিন্তু সংশ্লিষ্ট ওই সংবাদপত্র ছাড়ছে না। বোর্ড প্রেসিডেন্ট জগমোহন ডালমিয়ার কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে সংবাদপত্রের তরফে। চিঠি পাঠানো হয়েছে আইসিসিকেও। বলা হচ্ছে, বিরাট যদি এতই অনুতপ্ত হয়ে থাকেন তা হলে নিজে এসে ক্ষমা চাইলেন না কেন? কেন অন্য সাংবাদিক মারফত তাঁকে বলতে হল, ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে, সরি?

রোহিত রহস্য

কোহলি-বিতর্কের ধাক্কা কাটতে না কাটতে রোহিত শর্মাকে নিয়ে হঠাৎ সরগরম পারথ। বুধবার ভারতীয় টিভি চ্যানেলে দেখানো হতে থাকে এক তরুণীর সঙ্গে রোহিতকে (উপরের ছবি টুইটারের)। যা নিয়ে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া। কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন, কোহলি সাংবাদিককে গালিগালাজ করেছেন, এ বার রোহিত কী করবেন? কারও মন্তব্য, রোহিতকে রীতিমতো ‘বোর’ দেখাচ্ছে তরুণীর সঙ্গে হাঁটার সময়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.