Advertisement
২৭ জানুয়ারি ২০২৩

জার্সির সম্মানটা মেসিরা ফের ফিরিয়ে এনেছে: মারাদোনা

জার্মানিকে হারানো সম্ভব। ব্রাজিলকে সাত গোলের মালা পরানোর পর তো আরও বেশি করে সম্ভব। বিশ্বকাপে জার্মানির বিরুদ্ধে লিওনেল মেসির আর্জেন্তিনার ফাইনালের যুদ্ধ নিয়ে এমনটাই বিশ্বাস দিয়েগো মারাদোনার।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১১ জুলাই ২০১৪ ০৩:২৩
Share: Save:

জার্মানিকে হারানো সম্ভব। ব্রাজিলকে সাত গোলের মালা পরানোর পর তো আরও বেশি করে সম্ভব। বিশ্বকাপে জার্মানির বিরুদ্ধে লিওনেল মেসির আর্জেন্তিনার ফাইনালের যুদ্ধ নিয়ে এমনটাই বিশ্বাস দিয়েগো মারাদোনার।

Advertisement

বুধবার নেদারল্যান্ডসকে পেনাল্টিতে হারিয়ে মেসিরা ফাইনালে ওঠার পর ভেনেজুয়েলান টিভি শো-তে আর্জেন্তিনার কিংবদন্তি বলেন, “জার্মানিকে হারানো অসম্ভব নয়। আর্জেন্তিনা সেটা করে দেখাতে পারে। আমরা কিন্তু আলজিরিয়ার বিরুদ্ধে এক রকম আর ব্রাজিলের বিরুদ্ধে আর এক রকমের জার্মানিকে খেলতে দেখেছি।”

রাজপুত্র আর বরপুত্র। সবিস্তার জানতে ক্লিক করুন।

মারাদোনার বরাবরের শক্ত গাঁট জার্মানি। ১৯৮৬ বিশ্বকাপটা যদিও জার্মানদের হারিয়েই জিতেছিল তাঁর দল। কিন্তু ১৯৯০ বিশ্বকাপের ফাইনালে তাঁর দল হারে সেই জার্মানির কাছে। কোচিং কেরিয়ারেও বড়সড় আঘাত তাদের বিরুদ্ধেই। ২০১০ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে। মেসিরা ০-৪ হেরে ছিটকে গিয়েছিল। তবে সেই দলের সঙ্গে এই দলের পার্থক্য অনেকটাই বলে মনে করেন আর্জেন্তিনীয় কিংবদন্তি।

Advertisement

“আমরা সবাই আশা করছি ব্রাজিলে এ বার কাপ জিতবে আর্জেন্তিনাই। দলটার শক্তি এখন অনেক বেড়েছে। আবার আর্জেন্তিনা বিশ্ব ফুটবলের শীর্ষে। জার্সির সম্মানটা হারিয়ে গিয়েছিল। আজ সেটা আবার ফিরে এসেছে,” বলেন তিনি। লুই ফান গলের নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে মেসিদের রক্ষণাত্মক ফুটবলেরও প্রশংসা করেন মারাদোনা। যদিও কমলা বাহিনীর বিরুদ্ধে মেসিদের আক্রমণ ততটা দানা বাঁধতে পারেনি। তিনি বলেন, “আর্জেন্তিনা এই ম্যাচটায় ভাল খেলেনি। তবে নেদারল্যান্ডসকেও আমরা ভাল খেলতে দিইনি। এটাও কম গুরুত্বপূর্ণ নয়।”

যে ভাবে ফান গলের টিমের অস্ত্র আর্জেন রবেন, ওয়েসলি স্নাইডারদের ভোঁতা করে দিতে সফল আর্জেন্টাইন ডিফেন্স, তাতে বেজায় খুশি ৫৩ বছর বয়সি প্রাক্তন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দলের নেতা। “আর্জেন্তিনা ওদের মাথা তুলতেই দেয়নি। স্নাইডারকে একটা শটও গোলে মারতে দেয়নি। রবেনও গোলের ধারে কাছে ঘেঁষতে পারেনি। মাসচেরানো আর রোজো ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে দেয়নি রবেনকে।” পাশাপাশি মারাদোনা প্রশংসা করেন করেন, গ্যারে আর পেনাল্টিতে জয়ের নায়ক সের্জিও রোমরোর। “গ্যারে দুরন্ত খেলেছে। চিকিতো-কে (রোমেরো) নিয়ে কিছু বলার নেই।”

কিন্তু আর্জেন্তাইন ক্যাপ্টেনের কী হল? ব্রাজিলে প্রথম ম্যাচ থেকেই দুরন্ত ছন্দ দেখালেও ডাচ ডিফেন্সে সে ভাবে দাঁত ফোটাতে দেখা যায়নি মেসিকে। এটা ঠিক, মার্কারের জালে তাঁকে ঘিরে রেখেছিল ফান গলের টিম। কিন্তু মার্কিং থাকা সত্ত্বেও তো গোল করে এর আগে দলকে জিতিয়েছেন। তা হলে বুধবার এরিনা কোরিন্থিয়ান্সে কী হল? মারাদোনা বলেন, “আমার মনে হয় লিও কিছুটা ক্লান্তির শিকার। তা ছাড়া ওকে খুব ভাল করে মার্ক করা হয়েছিল। তবুও লিও ভাল খেলেছে। তবে আমার সবচেয়ে ভাল লেগেছে আর্জেন্তিনার ডিফেন্সের পারফরম্যান্স। সবাই একজোট থেকে রক্ষণটাকে জমাট রাখতে পেরেছে।” কিন্তু ব্রাজিলকে ঘরের মাঠে শেষ চারে যে ভাবে চুরমার করে ফাইনালে উঠেছে জার্মানি তাতে, বাস্তিন সোয়াইনস্টাইগারদেরই তো মেসিদের বিরুদ্ধে অনেকে ফেভারিট ধরছেন। মারাদোনা যদিও মনে করেন ব্রাজিলকে ও ভাবে হারানোর পর আত্মতুষ্টি আসতে পারে জার্মান শিবিরে। যেটা মেসিদের চ্যাম্পিয়ন হতে সাহায্য করবে।

বিশ্বকাপে সাফল্যের খুশিতে পুরনো বিবাদও ভুলে গিয়েছেন দিয়েগো। মেয়ে জিয়ানিনার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর প্রাক্তন জামাই সের্জিও আগেরোর সঙ্গে এত দিন ‘তিক্ত সম্পর্ক’ থাকলেও মারাদোনা বলে দেন, “আগেরো মাঠে ছন্দে থাকলে দারুণ লাগে। আশা করছি ও ফাইনালে ছন্দে থাকবে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.