Advertisement
০৯ ডিসেম্বর ২০২২

শামিদের শর্ট বোলিং আশঙ্কা বাড়াচ্ছে গাওস্করের

বিশ্বকাপের সেই চিরদিনের ম্যাচ যত এগিয়ে আসছে, ততই যেন বাড়ছে ওয়াঘার ও পারে আশা আর এ পারে আশঙ্কা! অথচ কী আশ্চর্যকাপ-যুদ্ধের ইতিহাসে ভারত-পাক লড়াই এখনও পর্যন্ত যে পাঁচবার হয়েছে, প্রতিবারই জয়ী দলের নাম একটাইভারত! তা সত্ত্বেও ১৫ ফেব্রুয়ারি অ্যাডিলেড ওভালের মহাযুদ্ধের পাঁচ দিন আগে এ বার দুই প্রতিবেশী-চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশের প্রাক্তনদের গলায় যেন ভিন্ন সুর। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ধোনির দলের ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে ভারতীয় বোলারদের দশা দেখে সুনীল গাওস্কর যদি প্রমাদ গোনেন, শামি-অশ্বিনরা তীব্র আত্মবিশ্বাসের অভাবে ভুগছেন, তা হলে জাহির আব্বাস মনে করছেন, বিশ্বকাপে ভারত-জুজু এ বার পাকিস্তান কাটিয়ে উঠবে।

কোহলির সঙ্গে আফগান সমর্থকদের সেলফি। ছবি: টুইটার

কোহলির সঙ্গে আফগান সমর্থকদের সেলফি। ছবি: টুইটার

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ ০২:৩৪
Share: Save:

বিশ্বকাপের সেই চিরদিনের ম্যাচ যত এগিয়ে আসছে, ততই যেন বাড়ছে ওয়াঘার ও পারে আশা আর এ পারে আশঙ্কা! অথচ কী আশ্চর্যকাপ-যুদ্ধের ইতিহাসে ভারত-পাক লড়াই এখনও পর্যন্ত যে পাঁচবার হয়েছে, প্রতিবারই জয়ী দলের নাম একটাইভারত! তা সত্ত্বেও ১৫ ফেব্রুয়ারি অ্যাডিলেড ওভালের মহাযুদ্ধের পাঁচ দিন আগে এ বার দুই প্রতিবেশী-চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশের প্রাক্তনদের গলায় যেন ভিন্ন সুর। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ধোনির দলের ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে ভারতীয় বোলারদের দশা দেখে সুনীল গাওস্কর যদি প্রমাদ গোনেন, শামি-অশ্বিনরা তীব্র আত্মবিশ্বাসের অভাবে ভুগছেন, তা হলে জাহির আব্বাস মনে করছেন, বিশ্বকাপে ভারত-জুজু এ বার পাকিস্তান কাটিয়ে উঠবে। এ বারই ভারতকে কাপ-যুদ্ধে পেড়ে ফেলার সুবর্ণ সুযোগ মিসবার দলের সামনে।

Advertisement

গাওস্কর সোজাকথায় ক্ষিপ্ত, প্রস্তুতি ম্যাচে ভারতীয় বোলারদের পারফরম্যান্সে। যে বোলিংকে ওয়ার্নার-ম্যাক্সওয়েলরা তুড়ি মেরে উড়িয়ে ৫০ ওভারের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে ৩৭১ রানে পৌঁছে দিয়েছেন বিশ্বকাপ শুরুর সপ্তাহেই। যা দেখে গাওস্করের প্রতিক্রিয়া, “অ্যাডিলেডের মতো ওভাল আকৃতির মাঠে ভারতীয় বোলারদের কাছ থেকে তো শুধু শর্ট বোলিং দেখলাম! ইয়র্কার কোথায়? অ্যাডিলেড মাঠের স্ট্রেট বাউন্ডারির দূরত্ব আড়াআড়ি বাউন্ডারির দূরত্বের তুলনায় অনেক বেশি। অফ-অনের বাউন্ডারির সাইজ বেশ ছোট। ফলে শর্ট বোলিংকে পুল, হুক মেরে গাদাগুচ্ছের রান তোলাটা খুব সহজ। আর আমাদের বোলাররা সেই সুযোগটাই প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের দেদার দিয়ে গেল। দু’মাসের বেশি ভারতীয় দল অস্ট্রেলিয়ায় কাটিয়ে ফেলল। অথচ এখনও সেখানকার পিচে কোন লাইনে বল করতে হবে সেটা বার করতে পারল না! আসলে ব্যাটসম্যানের আরও সামনে বল পিচ করার আত্মবিশ্বাসটাই ভারতীয় বোলারদের মধ্যে নেই। খারাপ ফর্মে ভুগতে ভুগতে ওদের হয়তো মনে হচ্ছে, বেশি সামনে পিচ করালেই আমাকে মাঠের বাইরে ফেলে দেবে বিপক্ষ ব্যাটসম্যান। কিন্তু সে রকম ভাবনরা মধ্যে কোনও সারবত্তা নেই। এখনও ভারতীয় ম্যানেজমেন্টের সামনে সময় আছে এই ভুলভ্রান্তি শুধরে নেওয়ার। এটা নিছক ওয়ার্ম আপ ম্যাচ। সরকারি বিশ্বকাপ ম্যাচে নামার আগে ভারতীয় দলকে বোলিং সমস্য সমাধানের পথ খুঁজে বার করতেই হবে।”

সবিস্তার দেখতে ক্লিক করুন...

জাহির আবার মুলতানে বসে সংবাদ সংস্থাকে বলেছেন, “বিশ্বকাপে পাকিস্তান এখনও ভারতকে হারাতে না পারলেও এ বার কিন্তু ছবিটা পাল্টে দেওয়ার দারুণ সুযোগ আছে মিসবা-উল-হকদের। অস্ট্রেলিয়ায় সম্প্রতি ভারতের পারফরম্যান্স আমি দেখেছি। গতকাল অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ধোনির দলের ওয়ার্ম আপ ম্যাচও দেখলাম। যার পর আমি বলতে পারি, পাকিস্তান দলে যতই প্রতিদিন একটা না একটা নতুন চোট সমস্যা এলে হাজির হোক না কেন, আমাদের দলের কম্বিনেশন এই মুহূর্তে ভারতের চেয়ে ভাল। তা ছাড়া ভারত আগেরবারের চ্যাম্পিয়ন বলে এ বার অন্তত প্রথম ম্যাচে ওদের উপর বাড়তি চাপ থাকবেই। যেখানে পাকিস্তানের এই ম্যাচটায় নতুন করে হারানোর কিছু নেই। তা ছাড়া ভারতীয় দল অভিজ্ঞতায় এগিয়ে থাকলেও পাকিস্তান টিমের প্রতিভা আমার মতে বেশি। চাপমুক্ত মেজাজে ভাল খেলতে পারলে ওরাই জিতবে।” এমনকী জাহির অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকার পাশাপাশি চতুর্থ সেমিফাইনালিস্ট দেখছেন পাকিস্তানকেই। তবে পাকিস্তান না পারলে তখন জাহিরের বাজি কিন্তু ভারতই!

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.