Advertisement
০৪ ডিসেম্বর ২০২২
টেনিসে হয়তো ফের তারকা জুটি

মারের ফোন পেলেই ‘হ্যাঁ’ বলতে তৈরি ম্যাকেনরো

সম্ভাব্য যুগলবন্দি

সম্ভাব্য যুগলবন্দি

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০৫ মে ২০১৪ ০৩:০৯
Share: Save:

অ্যান্ডি মারের কোচ জন ম্যাকেনরোর হওয়া মাত্র একটা ফোনকল দূরে!

Advertisement

কথাটা ফাঁস করেছেন টেনিসের ব্যাডবয় স্বয়ং।

তিনি ম্যাকেনরো গত রাতে লন্ডনের এক টিভি চ্যানেলের টেনিস শো-এ বলেছেন, “আমার ফোনটা এখনও অ্যান্ডির কল-এ বেজে ওঠেনি ঠিকই। তবে সে রকম পরিস্থিতি তৈরি হলেই আমি ওকে ‘হ্যাঁ’ বলে দিতে রাজি আছি। ইভান লেন্ডলের সঙ্গে ছাড়াছাড়ির পর ও আমার সাহায্য চাইলেই আমি ওকে স্বাগত জানাব।”

বিশ্ব টেনিসে এখন মহাতারকাদের সেলিব্রিটি কোচের ছড়াছড়ি। নোভাক জকোভিচের কোচ বরিস বেকার। রজার ফেডেরারকে পর্যন্ত দেখভাল করছেন স্টেফান এডবার্গ। সদ্য অতীতে শারাপোভার কোচ ছিলেন জিমি কোনর্স। এ ক্ষেত্রে যিনি পথিকৃত সেই অ্যান্ডি মারে বছর দুয়েক আগে লেন্ডলকে কোচ রাখলেও গত মার্চে দু’জনের মধ্যে বোঝাপড়ার মাধ্যমে সম্পর্ক ভেঙে যায়। তার পর থেকেই চোট এবং অফ ফর্মে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন মারে বিশ্ব র্যাঙ্কিংয়ে আট নম্বরে নেমে গিয়েছেন। ম্যাকেনরো অবশ্য মনে করছেন, “এটিপি র্যাঙ্কিং যা-ই হোক না কেন, মারে এখনও টেনিসের ফ্যাব ফোর-এ (নাদাল-জকোভিচ-ফেডেরার-মারে) থাকার মতোই যোগ্য প্লেয়ার।”

Advertisement

সাতটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী, ৫৫ বছর বয়সি টেনিস কিংবদন্তি ম্যাকেনরো আজ পর্যন্ত এটিপি ট্যুরের কোনও প্লেয়ারকে কোচিং না দিলেও ১৯৯৯-২০০০-এ চোদ্দো মাস যুক্তরাষ্ট্র ডেভিস কাপ টিমের নন প্লেয়িং ক্যাপ্টেন (ডেভিস কাপে যা বকলমে কোচ-ই) ছিলেন। টুর্নামেন্টের সূচির সঙ্গে নিজের ব্যক্তিগত কাজের সংঘাত তৈরি হওয়ায় ম্যাকেনরো সেই দায়িত্ব ছেড়ে দেন। এ বারও সে রকম পরিস্থিতি তৈরি হলে কী হবে? যেখানে লেন্ডল পেশাদার ট্যুরে মারেকে বেশি সময় দিতে না পারার কারণেই মূলত ছাঁটাই হয়েছেন! ম্যাকেনরো বছরভর গ্র্যান্ড স্লামে টিভি ধারাভাষ্য দেওয়া ছাড়াও নিয়মিত বিভিন্ন টেনিস ম্যাগাজিনে কলাম লেখেন। ওয়ার্ল্ড টেনিস টুর্নামেন্ট (ডব্লিউটিটি)-সহ লেজেন্ড এবং সিনিয়র ট্যুরে খেলে থাকেন। আগামী জুনেই সে রকম একটি টুর্নামেন্ট ব্রডিস চ্যাম্পিয়ন্স টেনিসে ম্যাকেনরোর খেলার কথা এডিনবার্গে।

কিন্তু টেনিসগ্রহের সর্বকালের অন্যতম বর্ণময় ও বিতর্কিত চরিত্র বলেছেন, “আমার অন্য কাজের দায়বদ্ধতাগুলো মারের কোচ হওয়ার পথে বাধা হবে না। সোজা কথা, আমি মারেকে ট্রেনিং দিতে আগ্রহী।” ম্যাকেনরোর কথায় স্পষ্ট, তাঁর সমসায়মিক অন্য প্রাক্তন মহাতারকারা বর্তমানে বিশ্বের সেরা টেনিস তারকাদের কোচ হওয়া দেখে তিনি নিজেও সেই ব্যাপারে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। বলেই ফেলেছেন, “আমার জমানার এবং তার আশপাশের কয়েকজন মহান টেনিস প্লেয়ারকে বর্তমানের সেরা তারকাদের কোচিং দিতে দেখাটা চোখের পক্ষে খুব আরামদায়ক। এতে যেমন বর্তমান প্রজন্ম লাভবান হচ্ছে, তেমনই টেনিস খেলাটাও ধনী হয়ে উঠছে।”

মারে ইতিমধ্যে শুধু বলেছেন, “জুনে আমার উইম্বলডন খেতাব অটুট রাখার লড়াইয়ে নামার আগেই নতুন কোচ ঠিক করে ফেলব। দেখতে হবে সেই কোচ আর আমি টেনিসটাকে কী চোখে দেখি। দু’জনের চেষ্টায় আমার খেলায় কতটা উন্নতি ঘটাতে পারি। তিনি কতটা সময় দিতে পারেন।”

তা হলে কি ফরাসি ওপেনের আগে মারের প্র্যাকটিস কোর্টে ম্যাকেনরোকে র্যাকেট হাতে দেখা যাবে? স্বয়ং ম্যাকেনরোর সাফ জবাব, “যদি অ্যান্ডি ওর ফোনটা তুলে আমাকে একটা ‘কল’ করে আমাকে ওর কোচ হতে বলে, তা হলে অবশ্যই সে রকম কিছু দেখা যেতেই পারে।”

এখন অপেক্ষা মারের সেই ফোনের!

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.