Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৫ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

বল গড়াতে বাকি ৩০ দিন

ব্রাজিলের চ্যালেঞ্জ ‘ঘরের শত্রু বিভীষণ’

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৩ মে ২০১৪ ০৩:২১
দেল বস্কির টিমে এ বার হয়তো ব্রাজিলিয়ান কোস্তা।

দেল বস্কির টিমে এ বার হয়তো ব্রাজিলিয়ান কোস্তা।

নিজের দেশে বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন দেখে সব ফুটবলারই। তবে দিয়েগো কোস্তা-র স্বপ্নপূরণ হতে চলেছে অদ্ভুত ভাবে! ‘ঘরের শত্রু বিভীষণ’ হয়ে তিনি ব্রাজিল বিশ্বকাপ খেলতে চলেছেন!

ব্রাজিল বংশোদ্ভুতই শুধু নন স্পেনের এই তারকা ফুটবলার। বরং ব্রাজিলের হলুদ জার্সিতে দু’বছর আগেই খেলেওছিলেন। ২০১২-এ ইতালির বিরুদ্ধে ফিফা আন্তর্জাতিক ফ্রেন্ডলি-তে। কিন্তু তার পরের বছরই কনফেড কাপের দলে স্কোলারি তাঁকে নির্বাচিত না করায় আটলেটিকো মাদ্রিদ স্ট্রাইকার ক্ষোভে-দুঃখে স্পেনের জার্সিতে বিশ্বকাপ কোয়ালিফাইং রাউন্ডে খেলে ফেলেন। ভূমিপূত্র হয়েও দিয়েগো কোস্তা তাই ব্রাজিলে পেলের দেশের প্রতিপক্ষ ফুটবলার। তাই ভারতের সুপার লিগে (আইএসএল) কলকাতার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধা আটলেটিকো মাদ্রিদের দিয়েগো কোস্তা ব্রাজিলের পাশাপাশি হয়তো এই শহরের কাছেও বাড়তি তাৎপর্য হয়ে উঠছেন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন স্পেনের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকতে পারেন বলে।

স্পেন বিশ্ব ফুটবলে অভূতপূর্ব এক রেকর্ড গড়ার লক্ষ্যে ব্রাজিল বিশ্বকাপের জন্য দল ঘোষণা করতে চলেছে। উপর্যুপরি দু’বার ইউরো কাপের সঙ্গে পরপর দু’বার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন আজ পর্যন্ত কেউ হতে পারেনি। অন্য কোনও মহাদেশের দলও নয়। স্পেনের সামনে সেই মহা-সুযোগ। কাসিয়াসরা ২০০৮ ও ২০১২ ইউরো কাপ জেতার ভেতর ২০১০ বিশ্বকাপও স্পেনে নিয়ে গিয়েছেন। ‘বি’ গ্রুপে স্পেনের সঙ্গে আছে নেদারল্যান্ডস, চিলি, অস্ট্রেলিয়া। যথেষ্ট কঠিন গ্রুপ হলেও বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা নক আউটে যাবে ভাবছেন বেশির ভাগ বিশেষজ্ঞ। সে ক্ষেত্রে ‘রাউন্ড অব সিক্সটিন’-য়েই দিয়েগো কোস্তা মুখোমুখি পড়ে যেতে পারেন মাতৃভূমির। স্পেন বনাম ব্রাজিল এ বার বিশ্বকাপে দ্বিতীয় রাউন্ডেই হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

Advertisement


কোস্তা



এবং চূড়ান্ত দল গড়ার আগেই স্পেন শিবিরে সেই মহা-সংঘর্ষ নিয়ে টুকরোটাকরা মন্তব্য শুরু হয়ে গিয়েছে। কোস্তার ক্লাব কোচ, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে ওঠা আটলেটিকো মাদ্রিদের দিয়েগো সিমিওনে বলেছেন, “দেল বস্কি থেকে কাসিয়াস, স্পেন দলের সবাই নিশ্চয়ই আমার সঙ্গে একমত হবে যে, ব্রাজিলে কোস্তা-ই হতে চলেছে প্রতিপক্ষের জন্য স্পেনের সেরা ইঞ্জেকশন। ও স্প্যানিশ ফুটবলের বাকি সবার চেয়ে অন্য ধরনের প্লেয়ার।” আরাগোনাস ২০০৮-এ স্পেনকে ইউরো কাপ দেওয়ার পর দেল বস্কির স্পেন ২০১২ ইউরো কাপ কোনও সেন্টার ফরোয়ার্ড না-খেলিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। কোস্তার মধ্যে ব্রাজিল বিশ্বকাপে যেন সেই অভাব মেটার সম্ভাবনা দেখছে স্পেন। বার্সেলোনা ফুলব্যাক ইয়র্দি আলবা বলেছেন, “কোস্তার মতো নিখাদ স্ট্রাইকারই আমার পছন্দ।”

জাভি-ইনিয়েস্তা-দাভিদ সিলভা তোরেস-দাভিদ ভিয়ার মতো প্রতিষ্ঠিত সুপারস্টার ফুটবলারদের মধ্যেও যদি স্পেন দলে উদীয়মান তারকা দিয়েগো কোস্তা বাড়তি আগ্রহ হয়ে ওঠেন, তা হলে আর এক জন বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছেন বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের দল ঘোষণার আগে। তিনি ভিসেন্তে দেল বস্কি। স্পেনের নির্বিরোধী, শান্ত কোচ সম্পর্কে অধিনায়ক কাসিয়াস বলেছেন, “ভিসেন্তেই শিখিয়েছেন, সাফল্যের মধ্যে কী ভাবে বেঁচে থাকতে হয়। জয়ের তোড়ে ভেসে না গিয়ে কী করে পরের জয়টার জন্য তৈরি হতে হয়।” জাভি-ও প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন দেল বস্কিকে। “ভিসেন্তের চেয়ে বেশি ভাল মানুষের সঙ্গে আমি ড্রেসিংরুম শেয়ার করিনি। কোচই আমাদের শান্ত ভাবে জিততে শিখিয়েছেন।”

আরও পড়ুন

Advertisement