Advertisement
০৮ ডিসেম্বর ২০২২
Virat Kohli

Virat Kohli: কোহলীকে রানে ফেরাতে জিমে গিয়ে পরামর্শ দিয়ে এলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন বোলার

বিরাট কোহলীর সঙ্গে ইংল্যান্ডে দেখা হয়েছে পাকিস্তানের প্রাক্তন বোলারের। সেখানেই কোহলীকে পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

কোহলীকে সাহায্য প্রাক্তনীর

কোহলীকে সাহায্য প্রাক্তনীর ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৩ জুলাই ২০২২ ১২:৫৭
Share: Save:

ইংল্যান্ডে গিয়েও ছন্দে দেখা যাচ্ছে না বিরাট কোহলীকে। এজবাস্টন টেস্টই হোক বা দু’টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ, কোথাওই রান করতে পারেননি তিনি। রানের খরা কবে কাটবে, কেউই জানেন না। তবে পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার এবং ইংল্যান্ডের প্রাক্তন কোচ মুস্তাক আহমেদ মনে করেন, কোহলী খুব তাড়াতাড়ি রানে ফিরবেন। ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ককে দু’টি পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। সেগুলি কাজে লাগাতে পারলে কোহলীর রানে ফেরা সময়ের অপেক্ষা বলে মনে করেন তিনি।

Advertisement

এক টিভি চ্যানেলে মুস্তাক জানিয়েছেন, কোহলীর সঙ্গে ইংল্যান্ডের জিমে দেখা হয়। সেখানেই উপদেশ দেন তিনি। মুস্তাকের কথায়, “বিরাটকে এক দিন দেখলাম জিমে অনুশীলন করছে। নিজেই আমার কাছে এগিয়ে এসে জিজ্ঞাসা করল কেমন আছি। সাধারণ কিছু কথাবার্তার পর আমি ওকে দুটো জিনিস বললাম। খুব মন দিয়ে সব শুনল ও।”

কী উপদেশ দিয়েছেন মুস্তাক? বলেছেন, “আমি বিরাটকে বললাম, প্রথম ১০-১৫ রান করার সময় ওর সামনের পা পিচের সোজাসুজি এগিয়ে আসে। ড্রাইভ করতে চাইলে ওর পা বলের দিকে থাকছে না। ফলে সমতল পিচেও ব্যাটের খোঁচা লেগে বল উইকেটকিপারের হাতে চলে যাচ্ছে।” মুস্তাকের উপদেশ শুনতে সম্মতিসূচক মাথা নাড়েন কোহলী। পরে ইংল্যান্ড সিরিজেও সেটা ব্যবহার করেছেন।

দ্বিতীয় উপদেশ সম্পর্কে মুস্তাক বলেছেন, “বল ব্যাটের মাঝে লাগানোর জন্য কোহলী আড়াআড়ি ব্যাট চালাত। কিন্তু বল স্যুইং করার সময় আড়াআড়ি ব্যাট চালালে অনেক সময় ব্যাটাররা বুঝতে পারে না যে অফস্টাম্প কোথায় রয়েছে। খুব মন দিয়ে সে কথা শোনার পর বিরাট আমাকে বলল, ‘আপনি একদম ঠিক বলেছেন মুশি ভাই। এটা নিয়ে আমাকে খাটতে হবে।’ ইংল্যান্ড সিরিজে আমার কথা যে শুনেছে ও, সেটা বুঝতে পেরেছি।”

Advertisement

কোহলীকে যখন এক দিকে রান করার উপদেশ দিচ্ছেন মুস্তাক, তখন ইংল্যান্ডকে আবার বলে দিচ্ছেন, কী ভাবে কোহলীর রান আটকাতে হবে। কী বলেছেন ইংল্যান্ডকে? মুস্তাকের কথায়, “সাদা বলের সিরিজের আগে ইংল্যান্ডের দল পরিচালন সমিতিকে বলেছিলাম, কোহলীর প্রথম ১৫ রানের সময় আঁটসাঁট ফিল্ডিং সাজাতে। ওকে মিড-অফ, মিড-অনের উপর দিয়ে মারার সুযোগ দিতে বলেছিলাম। কারণ জানতাম, শুরুতেই ও বড় শট খেলার ঝুঁকি নেবে না।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.