Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সাম্বা অস্ত্রকে ভোঁতা করতে বিশেষ ছক তৈরি

গ্যারেথ সাউথগেটের ইংল্যান্ডকে আদর করে সমর্থকরা ডাকে ‘থ্রি লায়ন্স’। তাই অনূর্ধ্ব-১৭ দলের ফিল ফডেন, অ্যাঞ্জেল গোমেজ-রা খুদে সিংহ বা ‘ইয়ং লায়ন্

দেবাঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়
২৫ অক্টোবর ২০১৭ ০৪:২১
Save
Something isn't right! Please refresh.
মহড়া: ইংল্যান্ডের প্রস্তুতিতে ব্রিউস্টার। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

মহড়া: ইংল্যান্ডের প্রস্তুতিতে ব্রিউস্টার। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

Popup Close

গ্যারেথ সাউথগেটের ইংল্যান্ডকে আদর করে সমর্থকরা ডাকে ‘থ্রি লায়ন্স’। তাই অনূর্ধ্ব-১৭ দলের ফিল ফডেন, অ্যাঞ্জেল গোমেজ-রা খুদে সিংহ বা ‘ইয়ং লায়ন্স’। বুধবার যুবভারতীর সেমিফাইনাল ম্যাচে সেই ইংরেজ ‘তরুণ সিংহ’দের কি ভয় পাচ্ছেন নেমারের দেশের সমর্থকরা?

মিডিয়া সেন্টারে বসে কাজের ফাঁকে যে সে রকমই ইঙ্গিত দিলেন ব্রাজিল থেকে অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ কভার করতে কলকাতায় আসা বুদা মেন্দেজ। ইংল্যান্ড প্রসঙ্গে তাঁর মন্তব্য, ‘‘জার্মানির চেয়েও ইংল্যান্ড কঠিন প্রতিপক্ষ। মালি বা স্পেন হলে সুবিধা হতো!’’

আদ্যন্ত ব্রাজিল সমর্থক কলকাতার ‘প্রিন্স’ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও সেমিফাইনাল নিয়ে আগাম মন্তব্য করতে নারাজ। বলছেন, ‘‘মাঠে যাচ্ছি না। টিভিতে খেলা দেখতে পারি। আমি ব্রাজিলকেই সমর্থন করি। তবে ইংল্যান্ড কিন্তু গোটা টুর্নামেন্টে ভাল খেলছে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: তিকি তাকা বনাম শক্তির লড়াই মুম্বইতে

বিপক্ষ সম্পর্কে ইংল্যান্ড কোচ স্টিভ কুপারও হুঙ্কার ছাড়ছেন, ‘‘ব্রাজিল দুর্দান্ত দল সবাই জানে। জার্মানির বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়েও জিতেছে। কিন্তু ওদের আমরা ভয় পাচ্ছি না। বরং ব্রাজিলের কিছু ফাঁকফোকর নজরে পড়েছে। তাই খুব বেশি চিন্তিত নই। কারণ ব্রাজিলের সঙ্গে আমাদের দলের শক্তি, গতি বা ট্যাকটিক্সে খুব একটা ফারাক নেই।’’

কিন্তু ব্রাজিলের দুই বিখ্যাত জুটি পাওলিনহো আর লিঙ্কন যদি ছন্দে থাকে? এ বার মুচকি হাসেন কুপার। বলেন, ‘‘বল পায়ে ওরা মারাত্মক ফুটবলার। দু’জনকে খেলতে দিলেই ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে নিয়ে নেবে। ওদের জন্য বিশেষ পরিকল্পনা রয়েছে। ব্রাজিলের আক্রমণ ভাগের শক্তি আমাদের জানা। কিন্তু এই দু’জনের প্রতি বেশি নজর দিতে গিয়ে অন্য কেউ গোল করে দিয়ে গেল, সেটা হতে দিতে চাই না।’’

একটু থেমে ইংল্যান্ড কোচ ফের বলে চলেন, ‘‘ব্রাজিলের সবাই ম্যাচ ঘুরিয়ে দিতে জানে। বল পায়ে ব্রাজিল মারাত্মক। পাওলিনহোদের পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে দেব না। অন্যের শক্তি নিয়ে ভাবার চেয়ে আমরা নিজেদের শক্তির দিকেই তাকাতে চাই। পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারলে ফাইনাল অসম্ভব নয়।’’

পাওলিনহোর জন্য ব্রাজিল যে ঘুঁটি সাজাচ্ছে, তা এ দিন ইংল্যান্ড অনুশীলন থেকেই স্পষ্ট। মে মাসে অনূর্ধ্ব-১৭ উয়েফা চ্যাম্পিয়নশিপে রানার্স হওয়ার পরে ভারতে আসার আগে দু’টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে ইংল্যান্ড। যার মধ্যে একটি আবার এই পাওলিনহোর ব্রাজিল। সেই ম্যাচ শেষ হয়েছিল গোলশূন্য ভাবে। ফলে পাওলিনহো লেফট উইং থেকে যে বল ধরে ‘ডাউন দ্য মিডল’ ঢুকে এসে জোরালো শট নেয়, বাঁ দিক থেকে ডান দিকে জায়গা বদল করে, তা জানা রয়েছে অ্যাঞ্জেল গোমেজ-দের।

ইংল্যান্ড অনুশীলনে এ দিন দু’টো দল গড়ে সিচ্যুয়েশন প্র্যাকটিস করাচ্ছিলেন কুপার। যেখানে ইংল্যান্ডের রাইট উইঙ্গার ফিল ফডেন-কে দেখা যাচ্ছিল ‘বিব’ পরা বিপক্ষের লেফট উইং বল ধরা মাত্রই তার গায়ে লেগে বল কাড়ার চেষ্টা করতে। ফডেনকে পেরোলে ইংল্যান্ড মাঝমাঠ ‘মিডল করিডর’ আটকে ওই ‘ডামি’ পাওলিনহো-কে বাধ্য করছিল উইং-এর দিকে সরতে। যাতে ম্যাচেও পাওলিনহো ‘ডাউন দ্য মিডল’ ঢুকে আচমকা দুরপাল্লার জোরালো শটে গোল না করতে পারে। গোলমুখী একটা ক্রস তুলেই যাতে থামতে হয় ব্রাজিলের সাত নম্বর-কে।

টুর্নামেন্টে ব্রাজিল তিন বারের চ্যাম্পিয়ন হলেও অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে এ বারই প্রথম সেমিফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড। যদিও অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ ফুটবলে দু’দলের মুখোমুখি হওয়ার পরিসংখ্যান ১-১। দশ বছর আগে দক্ষিণ কোরিয়ায় ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১-২ হেরেছিল ব্রাজিল। আর দু’বছর আগে চিলেতে লিয়ান্দ্রোর গোলে ব্রাজিল জেতে ১-০।

যাঁরা ব্রাজিল শহরে পা দেওয়ার পর থেকেই যুবভারতীর নব্বই শতাংশ দর্শক নিজেদের পেলের দেশের নাগরিক ভাবতে শুরু করে দিয়েছে! যার মুখোমুখি হয়েছে জার্মানি। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সে রকম হলে? এ বার গম্ভীর হয়ে যায় সাহেব কোচের মুখ। বলেন, ‘‘কলকাতায় আমরা চারটে ম্যাচ খেলে গিয়েছি। চাইব গ্যালারি বিপক্ষের চেয়ে আমাদের বেশি সমর্থন করবে। না করলেও অসুবিধা নেই। এই ছেলেগুলো বড় হলে প্রতিকূল পরিবেশে খেলার অভিজ্ঞতা সংগ্রহ করবে।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement