Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

কোচ ডাকছেন, বেরোলেন না প্রহরী

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০৩:৪৫
বিতর্ক: চেলসি ম্যানেজার মাউরিসিয়ো সাররি বনাম গোলকিপার কাপা আরিখাবালাগার প্রকাশ্য বিবাদে ঝড় উঠেছে ব্রিটিশ ফুটবলে। রয়টার্স, এএফপি

বিতর্ক: চেলসি ম্যানেজার মাউরিসিয়ো সাররি বনাম গোলকিপার কাপা আরিখাবালাগার প্রকাশ্য বিবাদে ঝড় উঠেছে ব্রিটিশ ফুটবলে। রয়টার্স, এএফপি

সাইড লাইনের ধারে দাঁড়িয়ে ম্যানেজার ক্রমাগত হাত নে়ড়ে বেরিয়ে আসতে বলছেন গোলকিপারকে। অথচ সেই নির্দেশ পালন করার প্রয়োজনই মনে করছেন না তিনি। রবিবার ওয়েম্বলি এমনই এক বিরল ঘটনার সাক্ষী থাকল।

আর সেই নাটকের দুই চরিত্র চেলসি ম্যানেজার মাউরিসিয়ো সাররি এবং কেপা আরিখাবালাগা। লিগ কাপ ফাইনালে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির বিরুদ্ধে টাইব্রেকারে হারের ঘটনাও যেখানে রাতারাতি গৌণ হয়ে গিয়েছে ম্যানেজার বনাম গোলকিপারের সেই প্রকাশ্য বিবাদের ছবি দেখে। যা নিয়ে ঝড় উঠেছে ব্রিটিশ ফুটবলে।

রবিবার ঘটনার সূত্রপাত অতিরিক্ত সময়ের শেষ দিকে। আচমকা পায়ের পেশিতে টান লাগায় মাঠে বসে পড়েন অ্যাথলেটিক বিলবাও থেকে ৭১ মিলিয়ন পাউন্ডে (ভারতীয় মুদ্রায় ৬৫৭ কোটি টাকা) চেলসিতে আসা ২৪ বছরের গোলকিপার। টাইব্রেকারের কথা মাথায় রেখেই সাররি তাঁকে তুলে নিয়ে পরিবর্ত গোলকিপার হিসেবে উইলি কাবায়েরোকে মাঠে নামানোর সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু সেই নির্দেশ অমান্য করে কেপা চিৎকার করে বলতে থাকেন, তিনি মাঠ ছেড়ে বেরোবেন না। বারবার হাত তুলে তিনি মাঠে থাকবেন বলে জানাতে থাকেন।

Advertisement

প্রথম দিকে শান্ত থাকলেও দ্রুত মেজাজ হারিয়ে ফেলেন সাররি। চেয়ারের উপর জার্সি ছুড়ে ফেলে তিনি সাময়িক ভাবে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যান। পরে আবার ফিরে আসেন। ম্যানেজার বনাম গোলকিপারের প্রকাশ্য বিবাদ দেখে স্তম্ভিত হয়ে যান রেফারিও। পরিস্থিতি সামাল দিতে তাঁর সঙ্গে কথা বলে সাররি জানিয়ে দেন, তিনি পরিবর্ত নামাচ্ছেন না। গোলে কেপা খেলবেন। টাইব্রেকারে লেরয় সানে-র শট রুখে দিলেও শেষরক্ষা করতে পারেননি কেপা। ৪-৩ গোলে লিগ কাপ ছিনিয়ে নেন রাহিম স্টার্লিংরা।

সাংবাদিক সম্মেলনে অবশ্য গোটা ঘটনাকে হাল্কা করে দিয়েছেন চেলসি ম্যানেজার। বলেছেন, ‘‘বোঝাপড়ায় বড় একটা ভুল হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ডাগ-আউটে দলের চিকিৎসক ফিরে আসার পরে আমি ব্যাপারটা বুঝে যাই।’’ সেখানেই না থেমে তিনি আরও বলেছেন, ‘‘কেপার পেশিতে টান লাগার পর আমার মনে হয়েছিল ওর হয়তো কোনও সমস্যা হচ্ছে। কিন্তু কেপা জানিয়ে দেয় খেলতে পারবে।’’ একই সুর শোনা গিয়েছে প্রাক্তন বিলবাও গোলকিপারের গলাতেও। তিনি বলেছেন, ‘‘ক্ষণিকের জন্য একটা বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছিল। ম্যানেজারকে অসম্মান করার কথা কোনও দিন আমি কল্পনাও করতে পারি না। ওঁর প্রতি আমার শ্রদ্ধা আগের মতোই অটুট।’’ কেপা আরও বলেছেন, ‘‘হাত নেড়ে আমি সাররিকে এটাই বলতে চাইছিলাম যে, কোনও সমস্যা নেই। খেলতে পারব।’’

যদিও পারস্পরিক এই ব্যাখ্যায় কেউই সন্তুষ্ট হতে পারছেন না। প্রাক্তন ইংল্যান্ড ক্রিকেটার মাইকেল ভন টুইট করেছেন, ‘‘একটা ব্যাপার স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। চেলসির পরের ম্যানেজার হতে চলেছে কেপা।’’ নেদারল্যান্ডসের প্রাক্তন তারকা রুদ খুলিট বলেছেন, ‘‘এই বিদ্রোহই প্রমাণ করে দিয়েছে চেলসি ড্রেসিংরুমের অগ্নিগর্ভ চেহারা। এ ভাবে ভাল ফুটবল খেলা যায় না।’’ রবিবার ম্যাচের পর ম্যান সিটির ডিফেন্ডার ভ্যানসঁ কোম্পানি রসিকতা করে বলেছেন, ‘‘ওখানে আমি থাকলেও হয়তো মাঠ ছাড়তাম না।’’

বরং সোমবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম যে ইঙ্গিত দিয়েছে, তা সাররির পক্ষে কোনও অবস্থাতেই স্বস্তিদায়ক নয়। শোনা গিয়েছে, কেপার বিরুদ্ধে কোনও ধরনের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিচ্ছে না ক্লাব। বরং আগামী বুধবার ইপিএলে টটেনহ্যামের বিরুদ্ধে ম্যাচই অগ্নিপরীক্ষা হতে চলেছে সাররির। সেই ম্যাচে হারলে বিপন্ন ম্যানেজার সাররির পক্ষে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে টিকে থাকা কঠিনই হয়ে দাঁড়াবে।

পাঁচ বছর আগে ক্যাম্প ন্যু দেখেছিল এমনই এক ছবি। লা লিগায় এইবারের বিরুদ্ধে তিন গোলে এগিয়ে থাকার পর লিয়োনেল মেসিকে মাঠ ছেড়ে উঠে আসতে বলেছিলেন বার্সেলোনার প্রাক্তন ম্যানেজার লুইস এনরিকে। কিন্তু মেসি হাত নেড়ে জানিয়ে দেন, তিনি মাঠ ছাড়বেন না। সেই মরসুমের পরেই এনরিকে সরে যান দায়িত্ব থেকে। সেই একই পরিণতি কি অপেক্ষা করছে নাপোলি থেকে আগত ৬০ বছরের সাররির? জবাব দেবে সময়!

আরও পড়ুন

Advertisement