Advertisement
০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

হাঁটুতে চোট, সরতে বাধ্য হলেন মাতোস

ফুটবলারদের সঙ্গে মাতোস নিজেও নেমে পড়ছিলেন অনুশীলন ম্যাচ খেলতে। সেখানেই হাঁটুতে মারাত্মক চোট পান তিনি। অন্তত চার মাস শয্যাশায়ী থাকতে হবে তাঁকে।

চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই সরলেন মাতোস। ফাইল চিত্র

চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই সরলেন মাতোস। ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৯ জুলাই ২০১৮ ০৩:৫৭
Share: Save:

অনূর্ধ্ব-১৯ ভারতীয় দল ও ইন্ডিয়ান অ্যারোজের দায়িত্ব ছেড়ে পর্তুগাল ফিরে গেলেন লুইস নর্টন দে মাতোস। অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে তাঁর কোচিংয়েই খেলেছিল ভারতীয় দল। বিশ্বকাপের পরেই মাতোসের সঙ্গে চুক্তি পুনর্নবীকরণ করে ফেডারেশন। কিন্তু হাঁটুতে চোট পাওয়ায় চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই সরে গেলেন তিনি।
ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর শৈশবের ক্লাব স্পোর্টিং লিসবনের স্পোর্টিং ডিরেক্টর ছিলেন মাতোস। অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের কয়েক মাস আগে বিতর্কে জড়িয়ে পড়ায় নিকোলাই অ্যাডামকে বাধ্য করা হয় কোচের পদ থেকে ইস্তফা দিতে। দায়িত্ব পান মাতোস। অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পরে তাঁর কোচিংয়েই আই লিগ খেলেন অভিজিৎ সরকার, রহিম আলিরা। অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় দলের দায়িত্বও তাঁর হাতে তুলে দেন ফেডারেশন কর্তারা। ভারতীয় দলকে অনুশীলন করানোর জন্যই রাশিয়ায় বিশ্বকাপ দেখতে না গিয়ে লিসবন থেকে চলে এসেছিলেন গোয়ায়। কিন্তু অনুশীলনেই ঘটে যায় বিপর্যয়।
ফুটবলারদের সঙ্গে মাতোস নিজেও নেমে পড়ছিলেন অনুশীলন ম্যাচ খেলতে। সেখানেই হাঁটুতে মারাত্মক চোট পান তিনি। অন্তত চার মাস শয্যাশায়ী থাকতে হবে তাঁকে। এই কারণেই সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন তিনি। বুধবার রাতের দিকে ফেডারেশনের তরফে ই-মেল করে জানানো হয়, মাতোস চিঠি লিখে অব্যাহতি চেয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, পরিবার ছেড়ে দীর্ঘদিন তাঁর পক্ষে থাকা সম্ভব নয়। এই কারণেই পদত্যাগ করতে চান। ফেডারেশনকে ধন্যবাদ জানিয়ে মাতোস বলেছেন, ‘‘যুব দলে কোচিং করানোর সুযোগ দেওয়ায় সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। ধন্যবাদ জাতীয় দলে আমার সহকারীদের। আশা করছি, পারিবারিক সমস্যা মিটিয়ে ভবিষ্যতে আবার ফিরে আসার সুযোগ পাব।’’ ভারতীয় ফুটবলের প্রতি তাঁর শ্রদ্ধাও জ্ঞাপন করেছেন মাতোস। ফেডারেশন সচিব কুশল দাস বলেছেন, ‘‘ভারতীয় ফুটবলকে সাহায্য করার জন্য ধন্যবাদ মাতোসকে। আশা করছি, দ্রুত ওঁর ব্যক্তিগত সমস্যায় সমাধান
হয়ে যাবে।’’
চোটের কারণে কোচের ছিটকে যাওয়ার ঘটনা অবশ্য নতুন নয় ভারতীয় ফুটবলে। ইস্টবেঙ্গলের কোচ হিসেবে প্রথম দিন অনুশীলনে নেমেই হাঁটুতে চোট পেয়েছিলেন মৃদুল বন্দ্যোপাধ্যায়। অস্ত্রোপচারও করাতে হয়েছিল তাঁকে। ইস্টবেঙ্গলকে কোচিং করানোর স্বপ্ন শুরুতেই শেষ হয়ে গিয়েছিল মৃদুলের। এ বার সরলেন অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের কোচ।
মাতোস দায়িত্ব ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে, নতুন কোচ কে হবেন তা নিয়ে। জানা গিয়েছে, এই মুহূর্তে বিদেশি কোচ নিয়োগের ব্যাপারে খুব আগ্রহী নন ফেডারেশন কর্তারা। তাঁদের প্রথম পছন্দ অনূর্ধ্ব-১৬ জাতীয় দলের কোচ বিবিয়ানো ফার্নান্দেজ।
হারল ভারতের মেয়েরা: অনূর্ধ্ব-১৭ ব্রিকস ফুটবলের প্রথম ম্যাচেই হারল ভারত। বুধবার আয়োজক দেশ দক্ষিণ আফ্রিকা ৫-১ বিধ্বস্ত করল ভারতীয় দলকে। আজ, বৃহস্পতিবার ভারতের প্রতিপক্ষ রাশিয়া।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.