• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বন্ধ হয়নি হুমকি, লালবাজারে ত্রিপর্ণা

1
লালবাজারে ত্রিপর্ণা দে সরকার। শুক্রবার। — নিজস্ব চিত্র।

Advertisement

ফেসবুকে তাঁকে নিয়ে অশালীন মন্তব্য এবং পুড়িয়ে মারার হুমকি এসেছে আগেই। তা নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করার পরেও হুমকি বন্ধ হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া ত্রিপর্ণা দে সরকার।

শুক্রবার ত্রিপর্ণা বলেন, ‘‘আগের ফেসবুক পোস্টগুলি নিয়ে বৃহস্পতিবার যাদবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলাম। তার পরেও ফেসবুকে হুমকি বন্ধ হয়নি। ‘পুলিশের কাছে গেলে দেখে নেব’ বলেছেন একজন।’’ ওই তরুণীর মন্তব্য, ‘‘আমি কোনও দেশবিরোধী স্লোগান দিইনি। আমি আমার দেশকে ভালবাসি। অথচ আমাকে লক্ষ করে এ সব কুরুচিকর মন্তব্য করা হচ্ছে। হুমকিও দেওয়া হচ্ছে। যা দুর্ভাগ্যজনক।’’ ত্রিপর্ণার এক সহপাঠীর অনুযোগ, ‘‘একজন নিরীহ ছাত্রীকে রাতারাতি দেশদ্রোহী বানিয়ে তাঁকে নিয়ে কুৎসা রটানো হল, খুনের হুমকি দেওয়া হল।’’ ফেসবুকে যারা এই সব পোস্ট করেছে, পুলিশের সাইবার অপরাধ শাখা তাদের ধরতে পারবে, আশা করছেন ত্রিপর্ণার বন্ধু-বান্ধবরা।

জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া কানহাইয়া কুমারের গ্রেফতারের প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিকেলে মিছিল করেন যাদবপুরের পড়ুয়াদের একাংশ। সেই মিছিলের অন্যতম মুখ ছিলেন ত্রিপর্ণা। ওই মিছিল থেকে দেশবিরোধী কিছু স্লোগান দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। তার পর থেকেই ফেসবুকে ত্রিপর্ণার উদ্দেশে অশালীন মন্তব্য এবং পুড়িয়ে মারার হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। বৃহস্পতিবার যাদবপুর থানায় এ ব্যাপারে অভিযোগ করেন ত্রিপর্ণা। যাদবপুর থানা তাঁকে লালবাজারের সাইবার অপরাধ শাখায় অভিযোগ দায়ের করতে পরামর্শ দেয়। এ দিন লালবাজারে গিয়ে সাইবার অপরাধ শাখায় অভিযোগপত্র জমা দেন ত্রিপর্ণা। লালবাজারে তিনি বলেন, ‘‘যে হেতু ফেসবুকে ওই হুমকি দেওয়া হয়েছে, তাই থানার পাশাপাশি লালবাজারের সাইবার অপরাধ শাখায় আমাকে অভিযোগ করতে বলেছিল যাদবপুর থানা। তাই করেছি।’’

ত্রিপর্ণাকে ফেসবুকে হুমকি দিল কারা?  লালবাজারের সাইবার অপরাধ শাখায় ছাত্রীটি জানিয়েছেন, ‘নরেন্দ্র মোদী সেনা ওয়েস্ট বেঙ্গল-২’ নামের একটি ফেসবুক পেজে তাঁর ছবি দিয়ে অশালীন মন্তব্য করা হয়েছে। পুড়িয়ে মারার হুমকিও দেওয়া হয়েছে ওই পেজে। পুলিশের কাছে গেলে দেখে নেওয়ার হুমকিও দেওয়া হয়েছে ওই একই পেজে। পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করার পরেও হুমকি বন্ধ না হওয়ায় আতঙ্কে রয়েছে ত্রিপর্ণার পরিবার। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
আরও খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন