• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রোজভ্যালির তছরুপে ইডি-র মুখে তাপসও

7

সারদা কাণ্ডে মিঠুন-অপর্ণার পরে রোজভ্যালির আর্থিক অনিয়মে তাপস পাল!

সারদা কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে গিয়েছে কিছু অভিনেতা-অভিনেত্রীর নাম। এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি-র মুম্বইয়ের অফিসে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে মিঠুন চক্রবর্তীকে। ইডি-রই সল্টলেক দফতরে জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়েছেন অপর্ণা সেন। এ বার সেই তালিকায় উঠে এল এমন এক জন অভিনেতার নাম, যিনি ইতিমধ্যেই বিতর্কিত মন্তব্য করে সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে এসেছেন। ইডি সূত্রের খবর, এ বার রোজভ্যালি সংক্রান্ত মামলায় ডেকে পাঠানো হচ্ছে তৃণমূল সাংসদ তাপস পালকে।

সারদা কেলেঙ্কারির পাশাপাশি রোজভ্যালির আর্থিক কেলেঙ্কারি নিয়েও পুরোদমে তদন্ত চালাচ্ছে ইডি। তদন্তে নেমেই জানা গিয়েছে, অভিনেতা-সাংসদ তাপসবাবু এক সময়ে রোজভ্যালির উঁচু পদে ছিলেন। এক ইডি অফিসারের কথায়, “রোজভ্যালির উচ্চ পদে যিনি বা যাঁরা ছিলেন, তাঁদের সকলকে একে একে ডেকে পাঠানো হবে।” তবে ইডি-র সল্টলেক দফতরে কবে তাপসবাবুর ডাক পড়ছে, সেই বিষয়ে নিশ্চিত করে এখনই কিছু বলতে চাইছেন না ইডি অফিসারেরা। ইডি সূত্রের খবর, রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুকে কয়েক দিনের মধ্যেই আবার এক প্রস্ত জেরা করতে চলেছেন তদন্তকারীরা।

রোজভ্যালির সঙ্গে তাপসবাবুর সম্পর্ক কত দিনের এবং কত ঘনিষ্ঠ?

ইডি-র খবর, অভিনেতা-সাংসদ তাপসবাবু ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে অগস্ট পর্যন্ত রোজভ্যালির দু’টি সংস্থার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার অভিযোগ, ওই সময় বাজার থেকে বেআইনি ভাবে প্রচুর টাকা তোলে রোজভ্যালি। তদন্তকারী এক অফিসারের কথায়, “এমন এক সংস্থার উচ্চ পদে থাকার দরুন তাপস পাল নিজের দায়িত্ব এড়িয়ে যেতে পারবেন না।”

এর আগে একাধিক জনসভায় দাঁড়িয়ে দলের ছেলেদের বিরোধীদের ঘরে ঢুকিয়ে ধর্ষণ করিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিলেন তাপসবাবু। এই ব্যাপারে দায়ের করা একটি মামলা এখনও চলছে কলকাতা হাইকোর্টে। তার পর থেকে কার্যত অজ্ঞাতবাসে চলে গিয়েছেন তাপসবাবু। মঙ্গলবারেও তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। মোবাইলে বার্তা পাঠিয়েও সাড়া পাওয়া যায়নি তাঁর।

এ দিকে, সিবিআই হেফাজত থেকে এ বার জেল-হাজতে ঠাঁই হল সিলিকন সংস্থার কর্ণধার শিবনারায়ণ দাসের। সারদা কেলেঙ্কারিতে গ্রেফতার হয়ে শিবনারায়ণকে দু’দফায় থাকতে হয়েছিল সিবিআই হেফাজতে। মঙ্গলবার তাঁকে ১৪ দিন জেল-হাজতে রাখার নির্দেশ দেয় আলিপুর আদালত। পুলিশ জানায়, শিবনারায়ণ সারদা রিয়েলটির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ছিলেন সারদার কর্ণধার সুদীপ্ত সেনের পরামর্শদাতা। তাঁর কাছ থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন