অষ্টমীর মতোই নবমীতেও বৃষ্টির ভ্রূকুটি। পুজো দেখায় অন্তরায় হতে পারে বর্ষণ। পূর্বাভাস আলিপুর আবহাওয়া দফতরের।

অষ্টমীতে মাঝে মধ্যেই বৃষ্টি বাদ সেধেছে পুজো দর্শনে। ছাতা মাথায় কিংবা বর্ষাতি নিয়েও প্যান্ডেলে দেখা গিয়েছে অনেককে। আজ সোমবারই বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসবের কার্যত শেষ দিন। দুর্গোৎসবের শেষ মুহূর্তের আনন্দ চেটেপুটে উপভোগ করতে জমিয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছে বাঙালি। আবার সন্ধে থেকে রাতের ভিড় এড়াতে দিনের বেলাতেও প্যান্ডেল-প্রতিমা দর্শনে বেড়িয়ে পড়েছেন অনেকে।

কিন্তু এর মধ্যেই খারাপ খবর দিল আবহাওয়া দফতর। আলিপুরের আবহবিদরা জানাচ্ছেন, অষ্টমীর মতোই নবমীতেও মাঝে মধ্যেই দু’-এক পশলা বৃষ্টিতে ভিজবে মহানগর ও শহরতলি-সহ প্রায় গোটা দক্ষিণবঙ্গই। তবে একটাই আশার কথা, টানা বৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা নেই। ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাসও নেই আলিপুরের আবহাওয়া বার্তায়। তবে দশমীতে এই বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কিছুটা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের কর্তারা।

আরও পডু়ন: বৃষ্টি-জনতা টক্করে জমজমাট অষ্টমী

আরও পডু়ন: সুভগা রূপে কুমারী পুজো

কেন এই বৃষ্টি? আবহবিদরা জানিয়েছেন, ওড়িশা এবং ঝাড়খণ্ডের উপর একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। তার সঙ্গে রাজ্যের উপর মৌসুমী বায়ু এখনও যথেষ্ট সক্রিয়। এই দু’য়ের প্রভাবেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির আশঙ্কা।