• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কশ্যপ থেকে ডেরেক, টুইট-খোঁচা বাবুলের, ‘হাফপ্যান্ট মন্ত্রী’, বলল তৃণমূল

কশ্যপ-ডেরেককে টুইট-খোঁচা বাবুলের, ‘হাফপ্যান্ট মন্ত্রী’, বলল তৃণমূল

Babul's tweet jibe for Anurag and Derek, TMC calls him 'Half-pant Minister' dgtl
ডেরেক ও’ব্রায়েনকে ‘ছপাক’-এর টিকিট বিলির প্রসঙ্গ টেনে খোঁচা বাবুল সুপ্রিয়র।

Advertisement

সিএএ-এনআরসি বিরোধী বিক্ষোভের আগুনে ঘি ঢেলেছে জেএনইউ হামলা। আপাতত দুই ইস্যু মিলেমিশে একাকার। আর দীপিকা পাড়ুকোন বিক্ষোভরত পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়াতেই রাজনীতি-বলিউডও মিলেমিশে একাকার। গায়ক থেকে রাজনীতিক হয়ে ওঠা বাবুল সুপ্রিয় বৃহস্পতিবার টুইটারে তীব্র কটাক্ষ করেছেন বলিউডি ফিল্মমেকার অনুরাগ কশ্যপকে। তার পরে আবার ‘ছপাক’-এর টিকিট বিলির প্রসঙ্গ টেনে খোঁচা দিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েনকেও। এক তৃণমূল সাংসদের পাল্টা কটাক্ষ, ‘‘হাফপ্যান্ট মন্ত্রীর কথার গুরুত্ব নেই।’’

অনুরাগ কশ্যপ বিজেপি-সঙ্ঘ পরিবার তথা মোদী-শাহদের ঘোর সমালোচক। নানা ইস্যুতে মোদী সরকারের বিরোধিতা করেছেন তিনি। বার বারই বিজেপির তরফ থেকে তীব্র আক্রমণের মুখেও পড়েছেন। জেএনইউ হামলার প্রেক্ষিতে মোদী-শাহকে এবং বিজেপি সমর্থকদের কটাক্ষ করে একাধিক টুইট করেছেন অনুরাগ। তারই একটি নিয়ে এ দিন গায়ক তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় পাল্টা কটাক্ষ ছুড়ে দেন অনুরাগের দিকে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা ২৫ মিনিটে বাবুলের করা ওই টুইট বেশ আক্রমণাত্মক। অনুরাগ কশ্যপের নাম তিনি লেখেননি সেখানে। কিন্তু অনুরাগের একটি টুইট তুলে ধরে তার জবাব দেওয়ার ঢঙে বাবুল লিখেছেন, ‘‘ভাই, আগে দু’তিনটে হিট ফিল্ম বানিয়ে নিন। আপনার জন্য অনেক প্রযোজকের পয়সা ডুবে গিয়েছে আর অনেক প্রতিভাবান অভিনেতার কর্মজীবন থমকে গিয়েছে। আপনি বড্ড বাড়াবাড়ি করে ফেলছেন। কিছুটা শিষ্টতা বজায় রাখুন। নিজের প্রতিভা এবং প্রতিষ্ঠার প্রতি সুবিচার করুন। আপনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে এত অবমাননাকর ভাবে ট্রোল করতে পারেন না।’’

 অনুরাগ কশ্যপকে উদ্দেশ্য করে বাবুল সুপ্রিয়র টুইট:

এর কিছু ক্ষণ পরে ফের টুইট করেন বাবুল। এ বারের বিষয়ও বলিউড সংক্রান্ত। জেএনইউ চত্বরে গিয়ে দীপিকা পাড়ুকোন বিক্ষোভরত পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ানোর পরে তাঁর ছবি ‘ছপাক’ বয়কট করার ডাক দেন দিল্লির বিজেপি নেতা তেজেন্দ্র পাল সিংহ বগ্গা। তেজেন্দ্রর এই নিদানের পাল্টাও শুরু হয় সঙ্গে সঙ্গে। সব বিরোধী দল দীপিকা অভিনীত ছবি ‘ছপাক’ দেখার আহ্বান জানাতে শুরু করে। তৃণমূল সাংসদ তথা রাজ্যসভায় তৃণমূলের দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন আবার এক যুগলকে ওই ছবির টিকিট উপহার দেন। টুইটে সে প্রসঙ্গেই ডেরেককে খোঁচা দেন বাবুল। তবে ঘুরিয়ে।

 

দিল্লির বসদের বকা খেয়ে বৈঠক বয়কটে মমতা: তোপ কং-বামের আরও পড়ুন

কী লিখেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী? তিনি লিখেছেন, ‘‘ভাই, আমি আজ কলকাতায়। পরিবার চাইছে ‘ছপাক’ দেখতে। অনেক বার আপনাকে ফোন করেছি। দয়া করে আমাকে চারটে টিকিট দিতে পারেন? আমি টাকা দিয়ে দেব।’’

ডেরের ও’ ব্রায়েনের উদ্দেশ্যে বাবুল সুপ্রিয়র টুইট

‘ছপাক’ তিনি দেখতে যাবেন না, এ কথা বাবুল এক বারও বলেননি। বরং দিল্লির বিজেপি নেতার নিদানের পরেও বাবুল জানিয়েছিলেন যে, ছপাক তিনি দেখবেন। কিন্তু ডেরেকের উদ্দেশে তাঁর যে টুইট, তাতে যে খোঁচা ছিল, তা বুঝতে রাজনৈতিক শিবিরের অসুবিধা হয়নি।

তৃণমূলের তরফেও জবাব দেওয়া হয়েছে বাবুলকে। এক তৃণমূল সাংসদ বলেছেন, ‘‘তিনি একজন হাফপ্যান্ট মন্ত্রী, তাই নিজেকে তিনি ব্যস্ত রাখতে চান। তাঁর দল একের পর এক রাজ্যে হারছে। এর পরে বিজেপির আসনসংখ্যা ওই সব রাজ্যে এক অঙ্কে নেমে আসবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন