• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পদকে এ বারও বাদ বাংলার আইপিএসরা, ক্ষুব্ধ নবান্নের পুলিশ কর্তারা

Nabanna
ছবি: সংগৃহীত।

প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক থেকে এ বারও বঞ্চিতই রইলেন পশ্চিমবঙ্গ ক্যাডারের আইপিএস অফিসারেরা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে যে তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে এ রাজ্যে নিচুতলার পুলিশ কর্মীদের মধ্যে থেকে ২২ জনকে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু তালিকায় নেই কোনও আইপিএস অফিসার।

এ নিয়ে টানা তিন বছর স্বাধীনতা দিবস ও প্রজাতন্ত্র দিবসের ঠিক আগে দেওয়া পুলিশ পদকের তালিকায় বাংলার আইপিএসদের নাম থাকছে না। ব্যতিক্রম শশীকান্ত পূজারি। তিনি গত ১৫ অগস্ট পুলিশ পদক পেয়েছিলেন। এ ছাড়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে সব অফিসারের নাম পদকের জন্য প্রস্তাব করেছিলেন, তাঁদের কাউকেই গত তিন বছর ধরে পদকের ‘যোগ্য’ বলে মনে করছে না স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। নবান্নের খবর, প্রজাতন্ত্র দিবসের পুলিশ পদকের জন্য সিনিয়র আইপিএস অফিসারদের মধ্যে রাজেশ কুমার, সঞ্জয় সিংহ, সরোজকুমার গজমের, অজয় ঠাকুর-সহ আরও কয়েক জনের নাম প্রস্তাব করেছিল রাজ্য। রাজ্যের প্রস্তাব পাওয়ার পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক নিজস্ব সূত্র মারফৎ তাঁদের ব্যাপারে খোঁজখবর শুরু করে। দেখা যায়, কোনও না কোনও বিষয়ে রাজ্যের তালিকাভুক্ত অফিসারেরা ‘বিতর্কিত’। সেই কারণে চূড়ান্ত তালিকা থেকে তাঁদের ছেঁটে ফেলা হয়েছে। 

নবান্নের সিনিয়র পুলিশ কর্তারা এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তাঁদের বক্তব্য, ‘‘গত তিন বছরে বাংলার আইপিএস অফিসারদের নাম কোনও এক অজ্ঞাত কারণে বাদ পড়ছে, যা স্বাভাবিক নয়। রাজ্যের আইপিএসদের এ ভাবে বঞ্চনা করা হচ্ছে।’’ তা হলে কেন সরকার প্রতিবাদ করছে না? এক কর্তার কথায়, ‘‘প্রতিবাদ হলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক কেন আইপিএসদের পদক দেওয়া হয়নি তা প্রকাশ করে দিতে পারে। যা আরও বেশি কাদা ছোড়াছুড়ির পরিবেশ তৈরি করবে।’’ গত স্বাধীনতা দিবসের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চেয়েছিলেন রাজ্যের আট জন আইপিএস অফিসারকে পুলিশ পদক দিক কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তালিকায় রাজ্যের মাত্র এক জন আইপিএস অফিসারের নাম ছিল। বাদ পড়েছিলেন বাকি সাত। তবে সে বার সারদা-রোজভ্যালি কাণ্ডের তদন্তরত সিবিআইয়ের যুগ্ম-অধিকর্তা পঙ্কজকুমার শ্রীবাস্তবকে রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক দিয়ে সম্মানিত করেছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। নবান্নের খবর, গত বছর স্বাধীনতা দিবসে আইপিএস অফিসারদের মধ্যে শশীকান্ত পূজারি, তমাল বসু, দীপঙ্কর ভট্টাচার্য, নিশাত পারভেজ, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, কঙ্করপ্রসাদ বারুই, অজয় ঠাকুর এবং অনির্বাণ রায়ের নাম দিল্লিতে পাঠিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু শশীকান্ত পূজারি ছাড়া আরও কোনও আইপিএস অফিসার রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক পাননি। 

আরও পড়ুন: লেবেলে ভুয়ো ঠিকানা, ট্রেনে বিকোচ্ছে জলের বোতল

এ বারও পুরনো তালিকার অধিকাংশ অফিসারের নাম আবার পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু অবস্থার পরিবর্তন হয়নি। তবে নিচুতলার পুলিশ অফিসার ও কর্মীদের যে তালিকা রাজ্য পাঠিয়েছিল, তা একপ্রকার মেনে নিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। সংখ্যার বিচারে এ বার ২২টি পদক এসেছে বাংলার ঝুলিতে। বাদ শুধু আইপিএস’রা।   

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন