মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধায়কে লেখা একটি চিঠি।  প্রেরকের সই—‘বীণাপাণি ঠাকুর’। এই চিঠি নিয়ে উত্তপ্ত মতুয়া রাজনীতি।

চিঠিটি প্রকাশ্যে আনেন ‘অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসঙ্ঘে’র সঙ্ঘাধিপতি শান্তনু ঠাকুর। তাঁর দাবি, এই চিঠিটি লিখেছেন মতুয়া মহাসঙ্ঘের প্রধান উপদেষ্টা বীণাপাণি ঠাকুর (বড়মা)। তাতে বড়মা নিজের হাতেই সই করেছেন বলে শান্তনুর দাবি। অন্য দিকে, তৃণমূল সাংসদ এবং বড়মার বড় বৌমা মমতা ঠাকুরের বক্তব্য, বড়মার সই জাল করা হয়েছে। 

শান্তনু এ দিন যে চিঠি সাংবাদিকদের হাতে তুলে দিয়েছেন তা কম্পিউটারে বাংলায় লেখা। তাতে মুখ্যমন্ত্রীকে ‘স্নেহধন্যা মমতা’ বলে সম্বোধন করে লেখা হয়েছে— ‘রাজ্যসভায় তোমার দল ভারতীয় নাগরিকত্ব বিল, ২০১৯ সমর্থন করুক। অন্যথায় মতুয়ারা তোমাকে আর সমর্থন করবে না......।’ 

বড়মার পক্ষে ওই চিঠি লেখা সম্ভব কিনা, প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল। জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘‘শান্তনু এখন বিজেপির এজেন্ট। নোংরা খেলায় নেমেছে। সই জালিয়াতির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানাতে বলছি মমতা ঠাকুরকে।’’ রাতে গাইঘাটা থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন মমতা। শান্তনু দাবি করেছেন, ‘‘এটা ঠিক, বড়মা এখন কারও সঙ্গে কথা বলার মতো পরিস্থিতিতে নেই। রবিবার ওঁর কাছে গিয়ে বিষয়টি জানাই। উনি সম্মত হলে চিঠি তৈরি করে ওই দিনই ওঁকে দিয়ে সই করানো হয়।’’