কলকাতার নিউ মার্কেট এলাকার বাসিন্দা এগারো বছরের এক বালকের ডেঙ্গিতে মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ দক্ষিণ কলকাতার ইনস্টিটিউট অব চাইল্ড হেল্‌থ-এ মারা যায় রুহুল মল্লিক নামে ওই বালক। তার মৃত্যুর শংসাপত্রে রক্তে আয়রনের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে ‘সিভিয়র ডেঙ্গি’ লেখা হয়েছে। 

তবে রুহুলের ডেঙ্গি সংক্রমণ কোথা থেকে হয়েছে, তা নিয়ে ধন্দ রয়েছে। রুহুলের বাবা খলিল মল্লিক বলেন, ‘‘গত ১২ অগস্ট ছেলেকে নিয়ে হুগলির সাহাবাগে, আদি বাড়িতে গিয়েছিলাম। ফিরেছি ইদের পরেই। গত কয়েক দিন জ্বরের পর ছেলেকে গত সোমবার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল।’’  

ওই বালকের ডেঙ্গি সংক্রমণ কলকাতাতেই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মত চিকিৎসকদের অনেকেরই। হুগলির মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক শুভ্রাংশু চক্রবর্তী জানান, জেলায় এ পর্যন্ত ১৭৪ জনের শরীরে ডেঙ্গি মিলেছে।’’ কলকাতা পুরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ বলেন, ‘‘মৃত্যুর খবর পেয়ে পুরসভার ডেঙ্গি প্রতিরোধের টিম ছেলেটির বাড়ি এবং স্কুল চত্বরে মশা নিধনের কাজ করেছে।’’ তবে ওই বালকের রক্ত পরীক্ষা যথা সময়ে হয়েছিল কি না, 

সে প্রশ্ন উঠেছে। কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্য উপদেষ্টা তপন মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘আমাদের কাজ, সব কাগজপত্র স্বাস্থ্য দফতরে পাঠিয়ে দেওয়া। বিশেষ কমিটিই ডেঙ্গিতে মৃত্যুর বিষয় নিশ্চিত করে বলতে পারবে।’’