• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ত্রিশূল হাতে লকেট, মামলা অস্ত্র-আইনে

Locket Chatterjee
লকেট চট্টোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

Advertisement

কথা ছিল অস্ত্র হাতে রামনবমীর মিছিলে পা মেলাবে না বিজেপি। রবিবার বিজেপি-র মহিলা মোর্চার রাজ্যনেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়কে অবশ্য ত্রিশূল নিয়ে রামপুরহাটের রাস্তায় হাঁটতে দেখা গিয়েছিল। তার পরেই সোমবার লকেট, বীরভূম জেলা বিজেপি-র দুই পর্যবেক্ষক সমীরণ সাহা এবং লাল্টু ঘোষের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করল পুলিশ।

জেলার পুলিশ সুপার নীলকান্তম সুধীর কুমার বলেন, ‘‘শোভাযাত্রার আগেই পুলিশ, প্রশাসন থেকে অস্ত্র নিয়ে মিছিল করা যাবে না বলে জানানো হয়েছিল। সে নির্দেশ সবাই মেনে নিলেও ওঁনারা বাইরে থেকে এসে অস্ত্র নিয়ে শোভযাত্রায় যোগ দিয়েছেন। তাই মামলা রুজু হয়েছে।’’ পুলিশ সূত্রের খবর, রামপুরহাট থানায় ভারতীর দণ্ডবিধি অনুযায়ী সরকারি নিষেধ না মানা, অস্ত্র রাখা এবং তার প্রদর্শন বা অস্ত্র-আইন সহ একাধিক ধারায় মামলা হয়েছে।

লকেট অবশ্য দাবি করেছেন, ত্রিশূল কোনও অস্ত্র নয়। নারীশক্তির জাগরণের প্রতীক। লকেটের কথায়, ‘‘রবিবার দুর্গাষ্টমী ছিল। তারাপীঠে পুজো দিয়ে আমি ত্রিশূল হাতে শোভাযাত্রায় যোগ দিয়েছিলাম। এতে অন্যায় কোথায়?” একই সঙ্গে তাঁর প্রশ্ন, ‘‘রবিবারই পুলিশ বলেছিল শান্তিপূর্ণ মিছিল হয়েছে। এখন এফআইআর কার ইন্ধনে?’’ তবে, এফআইআর-এর কপি হাতে পাননি বলেই দাবি করেছেন বিজেপি-র এই নেত্রী।

বীরভূম জেলা বিজেপি নেতৃত্ব বরাবরই দাবি করে এসেছে, রামনবমীর মিছিল হবে। তবে ‘অস্ত্রের ঝন‌্‌ঝনানি’ থাকবে না। ‘‘পঞ্চায়েত ভোটের আগে অস্ত্র নিয়ে মিছিল করে শাসকদলের হাতে ‘অস্ত্র’ তুলে দেব না বলেই এমন কৌশল’’— রাখঢাক না রেখেই জানিয়ে এসেছেন বীরভূম জেলা বিজেপি-র এক নেতা। নেতৃত্বের আশঙ্কা ছিল, অস্ত্র নিয়ে মিছিল হলে ভোটের আগে পুলিশকে ‘কাজে লাগিয়ে’ তাঁদের বিরুদ্ধে জামিন-অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করা হতে পারে। দিনের শেষে ঘটনা পরম্পরা বলছে, হয়েছেও ঠিক তাই। বিজেপি নেতৃত্ব অবশ্য, লকেটের পাশেই দাঁড়াচ্ছেন। ত্রিশূল অস্ত্র নয়— এক সুর তাঁদেরও।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন