• শুভাশিস ঘটক
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সাক্ষী চেনাতে ম্যাথুকে ডাকল সিবিআই

Narad
ম্যাথু স্যামুয়েল

বিছানায় আধশোয়া অবস্থায় ছদ্মবেশী সাংবাদিকের থেকে নোটের বান্ডিল নিচ্ছেন মন্ত্রী— নারদ টিভিতে প্রচারিত সম্পাদিত ফুটেজে তা দেখা গিয়েছিল। পরে তদন্তে নেমে অসম্পাদিত ফুটেজ হাতে আসার পরে সিবিআই দেখেছে, মন্ত্রীর বিছানা থেকে চতুর্থ শ্রেণির এক সরকারি কর্মী ওই টাকা সরিয়ে আলমারিতে রাখছেন।

সিবিআইয়ের এক তদন্তকারী অফিসারের কথায়, নারদ কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতগ্রাহ্য তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ করতে ছদ্মবেশী সাংবাদিক ম্যাথু স্যামুয়েল ছাড়া আরও সাক্ষীর প্রয়োজন। টাকা লেনদেনের সময়ে অভিযুক্ত ছাড়া এমন আর যাঁরা আশপাশে ছিলেন, তাঁদের বয়ানকেও তাই গুরুত্ব দিচ্ছে সিবিআই। সম্পাদিত ও অসম্পাদিত ফুটেজ ঘেঁটে টাকা নেওয়ার সময়ে বিভিন্ন নেতার আশেপাশে উপস্থিত থাকা এমন ৪২ জনের হদিশ পেয়েছে তারা।

এক সিবিআই-কর্তার কথায়, মূলত টাইগার মির্জা ও ইকবাল আহমেদই ম্যাথুকে নেতা-মন্ত্রী-সাংসদদের কাছে নিয়ে গিয়েছিলেন। ইকবাল ও টাইগার মির্জাকে এক দফা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এ বার অভিযুক্তদের ঘনিষ্ঠ ওই ৪২ জন কুশীলবকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদের পরিকল্পনা হয়েছে। শুধু তাই নয়, ম্যাথুকে ডেকে তাঁদের শনাক্তও করানো হবে।

এ জন্য ম্যাথুকেও কলকাতায় ডেকে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার ম্যাথু সিবিআই দফতরে আসতে পারেন বলে জানিয়েছেন তদন্তকারীরা। এ বার কলকাতায় এসে বেশ কয়েক দিন তাঁর থাকার কথা। তাঁকে পর পর ডেকে পাঠিয়ে নারদ কাণ্ডে টাকা লেনদেনের সময় অভিযুক্তদের সহযোগীদের শনাক্ত করা হতে পারে।

আরও পড়ুন: নারদের টাকা ক্লাবকে দিয়েছি: ইকবাল

সিবিআইয়ের এক কর্তার কথায়, তদন্তের ক্ষেত্রে টাকা নেওয়ার সময়ে আশেপাশে থাকা লোকেদের বয়ান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অসম্পাদিত ফুটেজে এক সাংসদের দক্ষিণ কলকাতার বাড়িতে পূর্ব-মেদিনীপুরের এক মহিলা বিধায়ককেও দেখা গিয়েছে। ওই সাংসদ নিজের হাতে টাকা নেননি। বিপুল অঙ্কের নগদ টাকা বর্ধমানের এক পুলিশ অফিসারের কাছে জমা দেওয়ার জন্য ম্যাথুকে বলেছিলেন। অসম্পাদিত ফুটেজে ম্যাথু ও সাংসদের মাঝে ওই বিধায়ক এবং টাইগার মির্জাকে দেখা গিয়েছে। টাইগার মির্জা ছাড়া সাংসদের সঙ্গে ম্যাথুর কথাবার্তার সাক্ষী ছিলেন ওই মহিলা বিধায়কও।

সিবিআইয়ের তদন্তকারীরা বলছেন, নারদ কাণ্ডে দু’জন নিজে হাতে টাকা নেননি। এক ওই সাংসদ, আর এক জন দক্ষিণ কলকাতা নিবাসী এক মন্ত্রী। ‘আমি যদি পাঁচ লাখ টাকা নিই, তা হলে আমার ছেলেরা কত নেবে? আপনি টাকাটা আমার ছেলেদের হাতে দিয়ে দিন’—  সম্পাদিত ফুটেজে পাওয়া গিয়েছে ওই মন্ত্রীর এই বয়ান। কিন্তু অসম্পাদিত ফুটেজে দেখা গিয়েছে, মন্ত্রীর পাশে এক দল লোক। তাঁদের এক জন ম্যাথুর ছবি মোবাইলে তুলে রাখছেন। সাক্ষ্য নেওয়া হবে এঁদেরও।

সিবিআই সূত্রে খবর, ইতিমধ্যে ওই ৪২ জন সাক্ষীর তালিকা করা হয়েছে। ম্যাথুকে দিন পাঁচেক সময় হাতে নিয়ে কলকাতায় আসতে অনুরোধ করা হয়েছে। ম্যাথু এ দিন বলেন, ‘‘শুক্রবার সিবিআই কলকাতায় ডেকেছে। যেতে পারব কি না জানি না।’’ ম্যাথু জানান, কলকাতা পুলিশ ২৪ তারিখে ফের তাঁকে ডেকেছে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন