প্রশ্ন: ২০১১ সালে সিপিএম বিরোধিতায় ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন নির্দল হিসেবে। এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে কী বলবেন?

ছত্রধর: ২০২১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই ফের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই। আমি ওঁর আদর্শে অনেকখানি প্রভাবিত। জঙ্গলমহলে যে উন্নয়ন হয়েছে, তা অন্য কোনও সরকার করতে পারত বলে মনে করি না। আর আমার ভোটে লড়ার সিদ্ধান্তটা ভুল ছিল। কিন্তু আমি লড়েছিলাম মাওবাদী তকমা ঘুচিয়ে এটা প্রমাণ করতে যে সংসদীয় গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি।

 

প্রশ্ন: জেলবন্দি অবস্থায় উন্নয়ন বুঝলেন কী ভাবে? 

ছত্রধর: আত্মীয়স্বজন, সংবাদমাধ্যম থেকে বুঝেছি, গত সাত-আট বছরে জঙ্গ‌লমহলে প্রচুর উন্নয়ন হয়েছে। আদিবাসীদের স্বাধিকারের ক্ষেত্রে কিছু প্রশ্ন হয়তো থাকতে পারে। তবে আলাপআলোচনায় এই সরকারই আদিবাসীদের স্বাধিকারের দাবিকে মর্যাদা দিতে পারে।

 

প্রশ্ন: সাংবিধানিক স্বীকৃতির দাবিতে কুড়মিরা আন্দোলন করলেও একপক্ষ বিজেপিকে এবং অন্যপক্ষ তৃণমূলকে সমর্থন করছে। আপনিও কুড়মি! 

ছত্রধর: কুড়মিদের দাবিকে সমর্থন জানাই। বর্তমান রাজ্য সরকারও কুড়মিদের দাবি-দাওয়া সম্পর্কে সহানুভূতিশীল। কিন্তু দলিত 

সমাজের প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে আমি একমত নই। কারণ, এরা দলিত মানুষের শত্রুই বলা যায়।

 

প্রশ্ন: দশ বছর জেল খাটার পর মাওবাদীদের নিয়ে কী বলবেন? 

ছত্রধর: তৎকালীন রাজ্য সরকার জঙ্গলমহলের সমস্যাকে সহানুভূতির সঙ্গে না দেখাতেই কিছু মানুষ বিপথে গিয়েছিলেন। কিন্তু মানুষ খুন করে কোনও রাজনৈতিক দর্শন প্রতিষ্ঠিত করা যায় না। আমি বরাবরই গণতান্ত্রিক আন্দোলনের পক্ষে।

 

প্রশ্ন: রাজ্য সরকার তো আপনার দুই ছেলেরও কাজের ব্যবস্থা করেছে? 

ছত্রধর: কাজ পাওয়ার মৌলিক অধিকার সকলের আছে। আমার ছেলেদের চতুর্থ শ্রেণির কর্মী হিসেবে কাজ করার যোগ্যতা যথেষ্টই আছে। 

 

প্রশ্ন: একসময় তৃণমূলের বুথ স্তরের দায়িত্বে ছিলেন। পুরনো ছায়াসঙ্গী তৃণমূলের লালগড় ব্লক সভাপতি শ্যামল মাহাতোও বলছেন, ‘দাদা ফিরে এসে হাল ধরুন।’ তাহলে কি তৃণমূলেই ফিরবেন?  

ছত্রধর: আগে ছাড়া পেয়ে ওখানে গিয়ে দেখি। পার্টি আমাকে নেবে কি না, জনগণ কী চাইছেন সেগুলোও বিষয়।

 

প্রশ্ন: ফিরে এসে আগের মতো জনসমর্থন পাবেন তো? 

ছত্রধর: আদিবাসী মানুষ সহজ, সরল, সহানুভুতিশীল। তাঁরা যাকে একবার ভালবাসেন তাকে ছুড়ে ফেলে দিতে পারেন না। আমি তাঁদের পাশে গিয়ে দাঁড়ালে, আমার ধারণা তাঁরাও আমার পাশে থাকবেন।

 

প্রশ্ন: তৃণমূল প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, বাম আমলে মাওবাদী তকমা দিয়ে ধৃতদের নিঃশর্ত মুক্তি দেওয়া হবে। তা তো হয়নি? 

ছত্রধর: যাঁরা এখনও জেলে আছেন, তারা নির্দোষ বলে আমিও মনে করি। সুযোগ পেলেই তাঁদের মুক্তির দাবি নিয়ে যথাস্থানে যাব। 

 

প্রশ্ন: আপনার অপরাধী তকমা তো ঘুচল না? 

ছত্রধর: এই রায়ে সন্তুষ্ট নই। প্রয়োজনে সুপ্রিম কোর্টে যাব।