• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এক দিনে আড়াই হাজারেরও বেশি আক্রান্ত রাজ্যে, মৃত্যু ৪৮ জনের

COVID-19
কলকাতার পাশাপাশি রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় সংক্রমণও ছড়িয়েছে দ্রুত গতিতে। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

গোটা দেশের মতো পশ্চিমবঙ্গেও কোভিড সংক্রমণের পরিসংখ্যান ভেঙে দিল আগেকার যাবতীয় রেকর্ড। এখনও পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় এ রাজ্যে সংক্রমিত হয়েছেন সবচেয়ে বেশি মানুষ।

শনিবার রাতে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর যে  বুলেটিন প্রকাশ করেছে তাতে দেখা গিয়েছে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৫৮৯ জন। ওই একই সময়ে করোনা-আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৪৮ জনের। এই সংখ্যাটিও সর্বোচ্চ।

ওই বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে সংক্রমণের হার স্বস্তিদায়ক। স্বাস্থ্য দফতর থেকে জানানো হয়েছে, শুক্রবারের তুলনায় এ দিন সংক্রণের হার কমেছে। গত কালের ১৩.১৩ শতাংশ এ দিন কমে দাঁড়িয়েছে ১২.৯০ শতাংশে। প্রতি দিন যত জন রোগীর কোভিড-টেস্ট করা হচ্ছে এবং তার মধ্যে প্রতি ১০০ জনে যত সংখ্যক কোভিড-রিপোর্ট পজিটিভ আসছে, তাকেই বলা হয় পজিটিভিটি রেট বা সংক্রমণের হার। বুলেটিন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ হাজার ৬৫টি কোভিড-১৯ টেস্ট করা হয়েছে। তার মধ্যে ৭.৯৭ শতাংশ রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। ফলে সংক্রমণের হার দাঁড়িয়েছে ১২.৯০ শতাংশ।

আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত বেড়ে ৫৭ হাজার, ফের দশ শতাংশ ছাড়াল সংক্রমণ হার

এ দিন সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছিল, গোটা দেশে কোভিডে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ লক্ষ ৯৫ হাজার ৯৮৮। এবং তার মধ্যে এ রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৭২ হাজার ৭৭৭। তবে স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, মোট আক্রান্তের মধ্যে অধিকাংশই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর সেরে উঠেছেন মোট ৫০ হাজার ৫১৭ জন। এই মুহূর্তে রাজ্যে সক্রিয় কোভিড-রোগীর সংখ্যা ২০ হাজার ৬৩১। সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৬৯.৪১ শতাংশ। 

সুস্থ রোগীর সংখ্যা বাড়লেও গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য ভাবে বেড়েছে। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত মোট ১ হাজার ৬২৯ জনের প্রাণ কেড়েছে এই মারণ ভাইরাস। কলকাতা শহরেও প্রতি দিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এ দিনের বুলেটিন থেকে জানা গিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৭১৪ জন। ওই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। সব মিলিয়ে এ শহরে মোট আক্রান্ত ২২ হাজার ৩৫৩ জন। এই মুহূর্তে কলকাতায় সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ৪৮৫।  

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে মোট ৪৮ জনের মধ্যে কলকাতায় ১৯ জনের পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগনায়  ১৩, হাওড়ায় ৬, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর ও উত্তর দিনাজপুরে ২ জন করে এবং  হুগলি, জলপাইগুড়ি, নদিয়া ও মুর্শিদাবাদে  ১ জন করে কোভিড রোগী মারা গিয়েছেন।

কলকাতার পাশাপাশি রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় সংক্রমণও ছড়িয়েছে দ্রুত গতিতে। আক্রান্তের নিরিখে কলকাতার পরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। ওই জেলায় মোট ১৫ হাজার ৭৩৯ জনের মধ্যে ছড়িয়েছে কোভিড-১৯। হাওড়ায় সংক্রমিত মোট ৮ হাজার ১২, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় তা দাঁড়িয়েছে মোট ৫ হাজার ৩৩৮-তে। অন্য দিকে, হুগলি (মোট ৩ হাজার ৫০৮), দার্জিলিং (মোট ২ হাজার ২৩৫), মালদহ (মোট ২হাজার ৩৯৯), জলপাইগুড়ি (মোট ১ হাজার ৩৫৬), উত্তর দিনাজপুর (মোট ১ হাজার ১৬৮), দক্ষিণ দিনাজপুর (মোট ১ হাজার ২০১), নদিয়া (মোট ১ হাজার ৫৬), পশ্চিম মেদিনীপুর (১ হাজার ২২০), পূর্ব মেদিনীপুর (১ হাজার ৫৫৮) জেলার করোনা-পরিস্থিতিও আশঙ্কা জাগাচ্ছে স্বাস্থ্য কর্তাদের মধ্যে।

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্ক, বাগবাজারে স্থানীয় নেতার ফতোয়ায় একঘরে পরিবার

 

(জরুরি ঘোষণা: কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য কয়েকটি বিশেষ হেল্পলাইন চালু করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। এই হেল্পলাইন নম্বরগুলিতে ফোন করলে অ্যাম্বুল্যান্স বা টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত পরিষেবা নিয়ে সহায়তা মিলবে। পাশাপাশি থাকছে একটি সার্বিক হেল্পলাইন নম্বরও।

• সার্বিক হেল্পলাইন নম্বর: ১৮০০ ৩১৩ ৪৪৪ ২২২
• টেলিমেডিসিন সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-২৩৫৭৬০০১
• কোভিড-১৯ আক্রান্তদের অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা সংক্রান্ত হেল্পলাইন নম্বর: ০৩৩-৪০৯০২৯২৯)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন