• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

দৈনিক আক্রান্তের থেকে বেশি দৈনিক সুস্থ, বাড়ল সুস্থতার হার

Corona
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

টানা ৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে দৈনিক সুস্থের সংখ্যাকে ছাপিয়ে গিয়েছিল করোনায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু বুধবার উলটপুরাণ। এ দিন দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যাকে পেরিয়ে গেল দৈনিক সুস্থের সংখ্যা। গত বেশ কয়েক দিন ধরেই রাজ্যে দৈনিক করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা ৪ হাজারের উপরে ছিল। বেশ কয়েক দিন পর গত কাল তা ৩ হাজারের গণ্ডিতে নামে। এ দিনও সেই ছবি দেখা গিয়েছে।

গত ২০ অক্টোবর প্রথম রাজ্যে এক দিনে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজার ছাড়িয়েছিল। টানা এক সপ্তাহ সেই প্রবণতা ছিল। গত কাল তা ৪ হাজারের নীচে নেমে যায়। রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের প্রকাশিত বুলেটিন অনুযায়ী, এ দিনও দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজারের নীচেই, ৩ হাজার ৯২৪ জন। এর ফলে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৩ লক্ষ ৬১ হাজার ৭০৩ জন। এর মধ্যে কলকাতায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি, ৮৯১ জন। এ দিনই ৮৫৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন উত্তর ২৪ পরগনায়।

উৎসবের পর রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বাড়বে বলে আশঙ্কা করেছিলেন অনেকেই। কিন্তু এ দিন রাজ্যে সংক্রমণের চিত্রটা খানিকটা নিয়ন্ত্রিতই। পরিস্থিতি কিছুটা সদর্থক হলেও সাবধানতায় খামতি রাখতে চায় না প্রশাসন।

(গ্রাফে হোভার টাচ করলে দিনের পরিসংখ্যান মিলবে)

আরও পড়ুন: দৈনিক সুস্থতার হার সর্বোচ্চ, দেশে সক্রিয় করোনা রোগী কমে ৬ লক্ষ

এ দিন হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৩ হাজার ৯২৫ জন। এই নিয়ে রাজ্যে মোট ৩ লক্ষ ১৭ হাজার ৯২৮ জন করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠলেন। রাজ্যে এখন সক্রিয় করোনা রোগী ৩৭ হাজার ১১১ জন। স্বস্তি জোগাচ্ছে সুস্থতার হারও। এ দিন রাজ্যে সুস্থতার হার ৮৭.৯০ শতাংশ।

গত কালকের থেকে এ দিন অবশ্য মৃতের সংখ্যা দু’ধাপ বেড়েছে। এ দিন মৃত্যু হয়েছে ৬০ জনের। এর মধ্যে ১৯ জন মারা গিয়েছেন উত্তর ২৪ পরগনায়। ১৮ জন প্রাণ হারিয়েছেন কলকাতায়। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৪ জন এবং হাওড়ায় ৩ জন মারা গিয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে রাজ্যে মোট ৬ হাজার ৬৬৪ জনের মৃত্যু হল করোনায়।

সংক্রমণ কমায়, স্বাভাবিক ভাবে কমেছে পজিটিভিটি রেট বা সংক্রমণের হারও। কোনও একটি এলাকায় ২৪ ঘণ্টায় যত জনের কোভিড টেস্ট করা হয় এবং তার মধ্যে প্রতি ১০০ জনে যত জনের কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তাকেই ‘পজিটিভিটি রেট’ বা সংক্রমণের হার বলা হয়। বুধবারের বুলেটিন অনুযায়ী এই সংক্রমণের হার ৯.২২ শতাংশ। গতকাল তা ছিল ৯.৪০ শতাংশ। এ দিন রাজ্যে ৪২ হাজার ৫৫৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বিসর্জন নয়, লকডাউনের দলিল হিসেবে বড়িশার ‘পরিযায়ী উমা’কে সংরক্ষণ রাজ্যের

কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা বাদ দিলে রাজ্যের মধ্যে দুই শতাধিক মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন এমন জেলার সংখ্যা দুটি — দক্ষিণ ২৪ পরগনা (২৪০) এবং হাওড়া (২২৪)। এ ছাড়া শতাধিক মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন এমন জেলার সংখ্যা ৭টি। পশ্চিম মেদিনীপুরে ১৭৫, হুগলিতে ১৮৬, নদিয়ায় ১৬৪, পূর্ব মেদিনীপুরে ১৩৯, দার্জিলিঙে ১২৯, পশ্চিম বর্ধমানে ১০১, পূর্ব বর্ধমানে ১১৬ জন নতুন করে কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন