• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

উদ‌্‌যাপনে বিধি ভাঙার অভিযোগ

Virtual Meet
চেয়ারের মধ্যে নেই দূরত্ব। বাঁকুড়ায় জেলা তৃণমূল অফিসে। ছবি: অভিজিৎ সিংহ

সরকারি হিসেবে চলছে ‘কমপ্লিট লকডাউন’। কারও বেরোনোর কথা নয়। জমায়েত দূরস্থান। কিন্তু তৃণমূলের ‘শহিদ দিবস’ (২১ জুলাই) পালনের দৌলতে মঙ্গলবার অন্য ছবি দেখলেন মালদহের ইংরেজবাজারবাসী। এ দিন দুপুরে ইংরেজবাজারে জমায়েত করে পৃথক অনুষ্ঠান করেন তৃণমূলের নেতা-নেত্রীরা। অভিযোগ, সেখানে বালাই ছিল না দূরত্ব-বিধি মানার। বাধা দেয়নি পুলিশ। মন্তব্য করেননি পুলিশ-কর্তারা।

‘ভাচুর্য়াল সভা’ দেখতে ‘মাস্ক’হীনদের ভিড় জমার অভিযোগ মিলেছে শিলিগুড়ি, দুই দিনাজপুর, আলিপুরদুয়ার, দুই বর্ধমান, পশ্চিম মেদিনীপুর,  উত্তর ২৪ পরগনা, বাঁকুড়া ও হুগলিতে। বিজেপির জেলা সভাপতি (বর্ধমান সদর) সন্দীপ নন্দীর কথায়, ‘‘রাজ্যে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা ও মৃত্যু বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে দূরত্ববিধি না মেনে রাজনীতি করা তৃণমূলের পক্ষেই সম্ভব।’’ যদিও জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের জবাব, ‘‘এই পরিস্থিতিতে লোক জমায়েত করে সভা বিজেপি করে। বিধি মেনে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘ভার্চুয়াল সভা’র সম্প্রচার দেখেছেন, এমন মানুষের সংখ্যা কম নয়।’’

এ দিন দুপুরে ইংরেজবাজার শহরে কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরী, পুরপ্রশাসক তথা বিধায়ক নীহাররঞ্জন ঘোষ এবং মৌসম নুর ২১ জুলাই পালনের আলাদা বন্দোবস্ত করেন। অভিযোগ, সমস্ত কর্মসূচিতেই উধাও হয় দূরত্ব-বিধি। মৌসম অবশ্য বলেন, ‘‘দূরত্ব মেনেই কর্মসূচি পালিত হয়েছে।’’  তৃণমূলের ২১ জুলাই পালনে শিলিগুড়িতে পুর প্রশাসকদের প্রধান অসুস্থ অশোক ভট্টাচার্যের বাড়ির সামনে মাইক বাজানোর অভিযোগ উঠেছে। দার্জিলিং জেলা তৃণমূল সভাপতি রঞ্জন সরকারের দাবি, ‘‘অশোকবাবুর বাড়ির সামনে মাইক লাগানোয় অসুবিধা হচ্ছে জানার পরে, তা খুলে নেওয়া হয়েছে।’’

আরও পড়ুন: ভোটের পরে ২১ জনও মিলবে না, কটাক্ষ দিলীপের

পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশিয়াড়িতে হাজার দু’য়েক মানুষের মিছিলে ছিল ছোটরাও। অভিযোগ, মানা হয়নি দূরত্ব-বিধি, অনেকের ছিল না ‘মাস্ক’। মেদিনীপুর গ্রামীণের চাঁদড়াতেও তৃণমূলের কর্মসূচিতে শামিল হয় খুদেরা। ‘মাস্ক’ না থাকার অভিযোগ সেখানেও। তবে তৃণমূলের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সভাপতি অজিত মাইতি অভিযোগই মানেননি।

তৃণমূলকে বিধি মেনে সভা করতে দেখা গিয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরে। দেশপ্রাণ ব্লকের মুকুন্দপুর বাজারে ‘জায়ান্ট স্ক্রিন’-এ মমতার বক্তব্য শুনতে আসা শ’তিনেক তৃণমূল কর্মী বিধি মেনে ‘মাস্ক’ পরে দূরে-দূরে বসেন। কাঁথি শহরে সম্পূর্ণ ‘লকডাউন’ চলায় বড় পর্দায় সভা দেখানো হয়নি। ‘লকডাউন’ মেনে বড় কর্মসূচি হয়নি কোচবিহার শহরেও। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতা শুরু হওয়ার কিছু পরেই পুরুলিয়ার প্রায় সর্বত্র তুমুল বৃষ্টি নামে। ফলে, ‘জায়ান্ট স্ক্রিন’ ঘিরে ভিড় হয়নি।

আরও পড়ুন: ২১-এ ফের তৃণমূল, প্রত্যয়ী মমতা ॥ বিজেপিকে বললেন বহিরাগত

২১ জুলাই পালন ঘিরে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর ‘দ্বন্দ্ব’ প্রকাশ্যে আসে উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর-কল্যাণগড় পুর এলাকায়। দু’পক্ষের মারপিটে তিন জন জখম হন। জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক অবশ্য বলেন, ‘‘সামান্য মনোমালিন্য হয়েছিল। আলোচনায় মিটিয়েছি।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন