• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সিনেমার ছবি পোস্ট করে দাঙ্গার উস্কানি! বাদুড়িয়া কাণ্ডে ধৃত এক

fake image
‘অওরত খিলোনা নেহি’ নামে একটি ভোজপুরি ছবির একটি বিশেষ দৃশ্য।

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রী এবং পুলিশ-প্রশাসন টানা অনুরোধ করে চলেছেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিঘ্নিত হয় এমন কোনও পোস্ট যেন কেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় না ছড়ান। তার পরেও বেশ কিছু বিভ্রান্তিকর তথ্য ও ছবি ঘোরাফেরা করছে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তেমনই একটি বিভ্রান্তিকর ছবি শেয়ার করার অভিযোগে সোনারপুরের এক বাসিন্দাকে শনিবার গ্রেফতার করেন কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগের অফিসারেরা।

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতের নাম ভবতোষ চট্টোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন দেবাশিস দত্ত নামে এক ব্যক্তি। এ দিন বাড়ি থেকেই ভবতোষবাবুকে গ্রেফতার করা হয়। আদালতে তোলা হলে তাঁর ১১ জুলাই পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দিন কয়েক আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্টের সূত্রেই অশান্তি ছড়িয়েছিল বসিরহাট এলাকায়। এক পুলিশকর্তা জানান, ভবতোষবাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ— ‘অওরত খিলোনা নেহি’ নামে একটি ভোজপুরি ছবির একটি বিশেষ দৃশ্য তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের প্রোফাইলে আপলোড করেন। সঙ্গে লেখেন, এই ছবিটি বাদুড়িয়ার। এর পরে ওই পোস্টটি ফেসবুক, টুইটার সহ একাধিক সোশ্যাল মি়ডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। প্রায় তিনশো জন ওই ছবিটি বিভিন্ন জায়গায় শেয়ার করেছেন। যার জেরে বিভ্রান্তিও ছড়িয়েছে।

এই ছবির পোস্টকে ঘিরেই অশান্তি ছড়িয়েছিল বসিরহাট এলাকায়। ছবি: ভবতোষের ফেসবুক পোস্ট থেকে।

কলকাতা পুলিশের তরফে এ দিন ফের জানানো হয়েছে, রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বিভিন্ন সোশ্যাল মি়ডিয়ার ওপরে কড়া নজর রাখছে তারা। সামাজিক ঐক্য নষ্ট করে এমন কোনও ভ্রান্ত তথ্য কিংবা ছবি পোস্ট করলে আইন-মাফিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: বাদুড়িয়া নিয়ে তদন্ত কমিশন গঠন রাজ্যের

সাধারণ মানুষের সচেতনতা বাড়ানোর চেষ্টার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই জনসাধারণকে পুলিশের অনুরোধ, তাঁরা যেন সহযোগিতা করেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভ্রান্তিকর তথ্য কিংবা ছবি পেলে যেন পুলিশকে জানান।

সিনেমা থেকে রাজনীতি, যে কোনও বিষয়ে সোশ্যাল মি়ডিয়ায় যুদ্ধ এখন রেওয়াজ। অনেক সময়েই দেখা গিয়েছে, সেই যুদ্ধে জিততে গিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে ভুল তথ্য কিংবা ছবি। অনেকেই আছেন, যাঁরা ছবি, ভিডিও-অডিও ফাইল কিংবা কোনও মেসেজ হোয়াটসঅ্যাপে পাওয়া মাত্রই যান্ত্রিক ভাবে কুড়ি-পঁচিশ জনকে ফরোয়ার্ড করে বসেন। সত্যি-মিথ্যে যাচাই কিংবা প্রাপক আদৌ তা পছন্দ করবেন কি না, সে সবের ধার ধারেন না। বসিরহাটে আইন-শৃঙ্খলা ফেরাতে এই প্রবণতার গোড়াতেই আঘাত করতে চাইছে পুলিশ।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন