• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নেত্রীর ভাষণের আগে ১ ঘণ্টার বিক্ষোভ, প্রবেশিকা পিছতে আজই পথে টিএমসিপি

Mamata
মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

শুধু প্রতিষ্ঠা দিবস উদ্‌যাপন নয়, প্রতিষ্ঠা দিবসে এ বার অবস্থান বিক্ষোভও। ডাক্তারি এবং ইঞ্জিনিয়ারিং-এর সর্বভারতীয় প্রবেশিকা পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার দাবিতে শুক্রবার অবস্থান বিক্ষোভ করতে চলেছে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ (টিএমসিপি)। মেয়ো রোডের সে অবস্থানে যোগ দিতে চলেছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও। প্রতি বারের মতো এ বারও ২৮ অগস্টের কর্মসূচিতে প্রধান বক্তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে একুশে জুলাইয়ের মতো এ সভাও ভার্চুয়াল।

দলের ছাত্র সংগঠনের প্রতিষ্ঠা দিবস উদ্‌যাপনের কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠান তৃণমূল শুরু করছে শুক্রবার বেলা ২টোয়। তবে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা দলের চেয়ারপার্সন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেলা ৩টে নাগাদ ভাষণ শুরু করবেন বলে টিএমসিপি সূত্রে জানা গিয়েছে। অন্যান্য বছর মেয়ো রোডে মঞ্চ বেঁধে এই ছাত্র সমাবেশ করে তৃণমূল। সামাজিক দূরত্ব বিধির কারণে যে এ বার আর তা হবে না, সেটা আগেই জানা গিয়েছিল। ২১ জুলাইয়ের শহিদ স্মরণ কর্মসূচিতে যে ভাবে ভার্চুয়াল ভাষণ মমতা দিয়েছিলেন, টিএমসিপি-র প্রতিষ্ঠা দিবসেও যে সে ভাবেই ভাষণ দেবেন, তা-ও জানানো হয়েছিল। তবে প্রতিষ্ঠা দিবস উদ্‌যাপন এ বার আর শুধু ছাত্রনেতাদের এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাষণের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকছে না। সে সব শুরুর আগে অবস্থান বিক্ষোভের ডাক দেওয়া হয়েছে।

ডাক্তারি এবং ইঞ্জিনিয়ারিং-এর প্রবেশিকা পরীক্ষা এ বছর পিছিয়ে দেওয়া হোক, বিভিন্ন রাজ্যের সরকার এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এমনই দাবি তুলতে শুরু করেছে। কোভিডের সংক্রমণ এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি, তার মধ্যে এত বড় পরীক্ষার আয়োজন হলে পরিস্থিতি খারাপ হতে পারে— এই যুক্তিই দেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন অ-বিজেপি দল শাসিত রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীরা বিষয়টি নিয়ে বুধবার ভার্চুয়াল বৈঠকেও বসেছিলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সে বৈঠকে মধ্যমণি হয়ে ওঠেন। কেন্দ্রীয় সরকার যে হেতু নিট এবং জেইই পিছিয়ে দিতে এখনও রাজি নয়, সে হেতু সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে হবে, এমন সিদ্ধান্তও সেই বৈঠকে হয়। এ বার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের ছাত্র সংগঠন আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্তও নিল।

আরও পড়ুন: মহরমে শোভাযাত্রার আবেদন খারিজ সুপ্রিম কোর্টের

টিএমসিপির সহ-সভাপতি মণিশঙ্কর মণ্ডল বলেন, ‘‘আমরা শুক্রবার দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত মেয়ো রোডে গাঁধীমূর্তির পাদদেশে অবস্থান বিক্ষোভ করব। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসা সত্ত্বেও নিট এবং জেইই-র মতো পরীক্ষা পিছিয়ে দিতে রাজি না হয়ে কেন্দ্রীয় সরকার লক্ষ লক্ষ পড়ুয়ার জীবনকে সঙ্কটে ফেলতে চলেছে। এটা আমরা হতে দেব না। সংগঠনের প্রতিষ্ঠা দিবসেই আমরা ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থে পথে নামছি।’’ গাঁধী মূর্তিতে শুক্রবার যে ১ ঘণ্টার অবস্থান বিক্ষোভ হবে, তাতে তৃণমূলের মহাসচিব তথা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও যোগ দেবেন বলে টিএমসিপির তরফ থেকে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: আমি আর সুশান্ত স্বামী-স্ত্রীর মতো থাকতাম, আমাদের জন্য ও কেন খরচ করবে না: রিয়া

গাঁধীমূর্তিতে বিক্ষোভের আগে অবশ্য বিভিন্ন কলেজে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে টিএমসিপি কর্মীরা সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করবেন। সে সব সেরে টিএমসিপির রাজ্য নেতৃত্ব পৌঁছবেন অবস্থান বিক্ষোভে। বেলা ২টোয় ভার্চুয়াল সভা শুরু। ৩টেয় ভাষণ শুরু করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবং সেই গোটা ভার্চুয়াল সভার স্ক্রিনিং হবে জেলায় জেলায়। টিএমসিপি সূত্রে জানানো হয়েছে যে, প্রত্যেকটি জেলায় একটি করে সেন্ট্রাল স্ক্রিনিং সেন্টার বা কেন্দ্রীয় সম্প্রচার স্থল থাকছে। সংশ্লিষ্ট জেলার টিএমসিপি নেতা ও কর্মীরা সেই সেন্টারগুলিতে পৌঁছে ভার্চুয়াল সভার লাইভ সম্প্রচার দেখতে পাবেন। তৃণমূলের সোশ্যাল মিডিয়া পেজেও লাইভ দেখানো হবে দলনেত্রীর ভাষণ। ফলে টিএমসিপি কর্মীরা এবং তৃণমূলের নেতা ও সমর্থকরা রাজ্যের যে কোনও প্রান্তে বসে নিজেদের মোবাইলেও প্রতিষ্ঠা দিবসে নেত্রীর দেওয়া বার্তা শুনতে পাবেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন