তীব্র গরম অনুভূত হবে রবিবার সকাল থেকেই। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গরমের সঙ্গে বাড়বে আদ্রতাজনিত অস্বস্তিও। যে হেতু বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই তাই গলদঘর্ম পরিস্থিতির মধ্যেই কাটবে সারাটা দিন। শেষ দফার ভোটের দিনের জন্য এমনটাই পূর্বাভাস দিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

গত কয়েক দিন সান্ধ্যকালীন বৃষ্টিতে স্বস্তি ফিরেছিল দক্ষিণবঙ্গে। হাঁসফাঁস গরমের হাত থেকে কিছুটা হলেও রেহাই পেয়েছিলেন রাজ্যবাসী। ঝড়বৃষ্টি উধাও হতেই ফের প্যাচপেচে গরম ফিরল দক্ষিণে। রবিবার ভোটের দিন গরমের সঙ্গে আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তিও বাড়বে। আপাতত বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই। ফলে চাঁদিফাটা গরমের মধ্যেই কাটবে শেষ দফার ভোট।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী কয়েক দিন এমনই আবহাওয়া থাকবে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। তবে উত্তরবঙ্গে আগামী কয়েকদিন হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে বলে পূর্বাভাস রয়েছে। আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, বিহারের উপরে একটি ঘূর্ণাবর্তের জেরে দার্জিলিং, কোচবিহার, শিলিগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ারে বৃষ্টি হচ্ছে।

উত্তরে বৃষ্টিতে স্বস্তি মিললেও, আগামী কয়েকদিন দক্ষিণবঙ্গে ঝড়বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনাই নেই। শনিবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। রবি ও সোমবার কলকাতা-সহ দুই ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলি, নদিয়াতে আরও ২ থেকে ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রা বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

নতুন করে তাপ প্রবাহের সতর্কতা জারি। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

ফের নতুন করে তাপ প্রবাহের সতর্কতা জারি হয়েছে, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, দুই বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, পশ্চিম মেদিনীপুরএবং ঝাড়গ্রামে। ফলে আগামী সপ্তাহে হাঁসফাঁস গরমের মধ্যেই কাটাতে হবে দক্ষিণবঙ্গের মানুষকে। স্বস্তির খবর দিতে পারছেন আলিপুর আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা গণেশকুমার দাস। তাঁর কথায়, “আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি থাকবে। গরম আরও বাড়বে। ঝড়বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই।” 

আরও পড়ুন: গোলমালের খবর পেলেই ৭ মিনিটে পৌঁছে যাবে কুইক রেসপন্স টিম