উচ্চশিক্ষা (এমডি, এমএস)-র জন্য এনইইটি-পিজি উত্তীর্ণদের ভর্তি সংক্রান্ত জটিলতা কাটাতে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে যাচ্ছে। গত এপ্রিলে ভর্তি প্রক্রিয়ায় সরকারের অবস্থানকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন ‘ওপেন ক্যান্ডিডেট’ মুক্ত প্রার্থীরা। তাঁদের বক্তব্য, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী মোট আসনের ৫০ শতাংশ মুক্ত প্রার্থীদের পাওয়ার কথা। প্রত্যন্ত ও দুর্গম এলাকায় যে-সব চিকিৎসক কাজ করছেন, তাঁদের সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ সংরক্ষণের সুযোগ দিয়ে মেধার ভিত্তিতে অভিন্ন যোগ্য প্রার্থীর তালিকা তৈরি করতে হবে। সেই মামলার শুনানিতে বুধবার হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ রাজ্যের হলফনামা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে।

আগামী বুধবার প্রত্যন্ত অঞ্চলে কাজ করেছেন, এমন ‘ইন-সার্ভিস’ ডাক্তারদের তালিকা চাওয়া হয় রাজ্যের কাছে। সার্ভিস ডক্টরস ফোরামের সম্পাদক সজল বিশ্বাস জানান, দ্রুত এই মামলার নিষ্পত্তি না-হলে রাজ্যের জন্য উচ্চশিক্ষায় বরাদ্দ আসনগুলি নষ্ট হতে পারে। স্বাস্থ্য অধিকর্তা অজয় চক্রবর্তী বৃহস্পতিবার বলেন, ‘‘পুরো বিষয়টির সঙ্গে ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ জড়িয়ে রয়েছে। তাই ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করা হচ্ছে।’’

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯